১২ ফাল্গুন ১৪২৩, শনিবার ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ , ১:৩৬ পূর্বাহ্ণ
bangla fonts
facebook twitter google plus rss
Laisfita

আবারও শীতলক্ষ্যা সেতুর কথা বললেন আইভী, হবে দেওভোগ লেকও


০৯ জানুয়ারি ২০১৭ সোমবার, ০৮:৪৭  পিএম

নিউজ নারায়ণগঞ্জ


আবারও শীতলক্ষ্যা সেতুর কথা বললেন আইভী, হবে দেওভোগ লেকও

নারায়ণগঞ্জের পূর্ব ও পশ্চিমপাশের সংযোগে শীতলক্ষ্যা সেতু নির্মাণের কথা আবারও বলেছেন সিটি করপোরেশনের মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী।

সোমবার ৯ জানুয়ারী বেলা সোয়া ১১টায় নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের নগর ভবনের বারন্দায় দাঁড়িয়ে উপস্থিত জনতার উদ্দেশ্যে দেওয়া বক্তব্যে আইভী ওই সেতুর কথা বলেন।

ওই সময়ে আইভী বলেনৈ, শহরের দেওভোগে লেক নির্মাণ নিয়ে আমাকে কী ধরনের হেনস্থা করা হয়েছে সবাই দেখেছেন। এবার ইনশাল্লাহ এ লেক করা হবে। ধলেশ্বরী হতে শীতলক্ষ্যা পর্যন্ত খাল অবমুক্ত করা হবে। আমি প্রধানমন্ত্রীর কাছে শীতলক্ষ্যা সেতুর কথা বলেছি। আমি বিশ্বাস করি নারায়ণগঞ্জবাসীর কথা ভেবে, বন্দরবাসীর কথা ভেবে লক্ষ্যাপারের মানুষের কথা ভেবে এবার তিনি সেতু করে দিবেন।

তিনি বলেন, আগামী ৫ বছর আমি শুধু কাজ কাজ আর কাজ করতে চাই। অনেকে ভাববে ভোটের সময়ে আইভী তো অনেক সময় দিয়েছে এখন কেন দেয় নাই। অনেকের সাথে আমার দেখা হবে আবার দেখা হবে না। আমি বলতে চাই আমি সবার জন্য কাজ করতে চাই। আমি উন্নয়ন করতে চাই।

তিনি বলেন, ৮ বছর পৌরসভা ও ৫ বছর সিটি করপোরেশন চালানোর সময়েও একটি টাকার সঙ্গে আমার কোন সম্পর্ক ছিল না। সততার সঙ্গে কাজ করেছি আগামীতেও করবো। ওই সময়ে আইভী অনেকবার ‘নৌকা ও শেখ হাসিনা’ ‘জয় বাংলা জয় বঙ্গবন্ধু’ স্লোগান তুলেন।

এদিকে নতুন বছরের প্রথম সপ্তাহেই সৈয়দপুর-মদনগঞ্জ দিয়ে শীতলক্ষ্যা সেতুর কাজ শুরু হতে যাচ্ছে। আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে সংশ্লিষ্ট ঠিকাদারকে আনুষ্ঠানিকতার মধ্য দিয়ে সেতু নির্মাণের কার্যাদেশ দেওয়া হবে জানা গেছে। ২৯ ডিসেম্বর ঢাকায় সচিবালয়ে ক্রয় সংক্রান্ত কমিটির সভায় এ সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছেন শীতলক্ষ্যা সেতু প্রকল্পের পরিচালক ইকবাল হোসেন।

শীতলক্ষ্যা নদীর পশ্চিম প্রান্তে সৈয়দপুর ও পূর্ব প্রান্তে মদনগঞ্জ সংযোগ করে চারলেন বিশিষ্ট সেতু নির্মাণের স্থান নির্ধারণ করা হয়েছে। সৌদি আরবের আর্থিক অনুদানে নির্মিত সেতুটি ১ হাজার ২৯০ মিটার দীর্ঘ। এ প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে সড়ক ও জনপথ অধিদফতর। তবে ২০২০ সালের আগেই শীতলক্ষ্যা নদীর উপরে তৃতীয় সেতু নির্মাণ করা হবে বলে জানায় সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগ। যেহেতু এসএফডি ঋণ পাওয়া গেছে এখন আর সেতুটি নির্মাণে কোনো বাধা নেই বলে জানা গেছে।  
 
অন্যদিকে সওজ সূত্র জানায়, সাত বছরে মোট ছয় বার প্রকল্প পরিচালক পরিবর্তন করা হয়েছে। ২০১১ সালে সাইদুল হককে প্রকল্প পরিচালক হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়। এর পর পর্যায়ক্রমে ছয়বার প্রকল্প পরিচালক পরিবর্তন করা হয়। পরিমল বিকাশ সূত্র ধরকে ২০১৩ এবং ২০১৪ সালে দুই বার পরিবর্তন করা হয়। এছাড়াও এম ফিরোজ ইকবাল, দলির উদ্দিন ও মোহাম্মদ ইকবাল প্রকল্প পরিচালকের দায়িত্ব পালন করেন।
 
বর্তমানে মোহাম্মদ ইকবাল প্রকল্প পরিচালকের দায়িত্বে আছেন। ফলে ২০১১ সাল থেকে ২০১৬ সাল পর্যন্ত একই পকল্পে ছয়জন প্রকল্প পরিচালক দায়িত্ব পালন করেন। বারবার প্রকল্প পরিচালক পরিবর্তনের কারণে প্রকল্পের অগ্রগতি কম হয়েছে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে। প্রকল্প বাস্তবায়নে ছয় জন প্রকল্প পরিচালক বিভিন্ন মেয়াদে দায়িত্ব পালন করেছেন।


নিউজ নারায়াণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:

Shirt Piece
মহানগর -এর সর্বশেষ