৭ আশ্বিন ১৪২৪, শুক্রবার ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৭ , ১২:১৫ অপরাহ্ণ

এমপি বাবুর প্রতিপক্ষ যুবলীগ নেতা ইকবাল পারভেজ গ্রেপ্তার


|| নিউজ নারায়ণগঞ্জ

প্রকাশিত : ০৯:০৪ পিএম, ১৯ ডিসেম্বর ২০১৬ সোমবার


এমপি বাবুর প্রতিপক্ষ যুবলীগ নেতা ইকবাল পারভেজ গ্রেপ্তার

নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারের সরকার দলীয় এমপি নজরুল ইসলাম বাবুর প্রধান প্রতিপক্ষ হিসেবে পরিচিত যুবলীগ নেতা ইকবাল পারভেজকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তিনি রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের সাবেক সহকারী পরিচালক (আইন) ইকবাল পারভেজ। রোববার রাজধানীর ওয়ারী থানায় মামলা করার পর তাঁকে গ্রেপ্তার করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

সাবেক গণপূর্ত প্রতিমন্ত্রী আবদুল মান্নান খানের মুহুরি ইকবাল পারভেজ রাজউকে সহকারী পরিচালক (আইন) হিসেবে চাকরি পান। ইকবাল পারভেজের অবৈধ সম্পদের বিস্তারিত বর্ণনাসহ ১৫৫ পাতার অভিযোগ পেয়ে গত বছরের শেষ দিকে তাঁর বিরুদ্ধে অনুসন্ধানে নামে দুদক। অভিযোগের বিষয়ে দুদক সূত্র জানায়, গুলশান, বনানী ও মতিঝিল এলাকায় সরকারের পরিত্যক্ত সম্পত্তি বিভিন্ন সিন্ডিকেটের যোগসাজশে ভুয়া মালিক সাজিয়ে বিক্রি করে দেন তিনি। পাঁচ বছরে রাজধানী ও আশপাশের বিভিন্ন এলাকায় তিনি বিপুল পরিমাণ জমি কিনেছেন। ওয়ারী থানায় করা মামলার এজাহারে বলা হয়েছে, দুদকের অনুসন্ধানেই ইকবাল পারভেজের প্রায় ৬০০ শতাংশ জমি কেনার প্রমাণ পাওয়া গেছে। নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার সাবরেজিস্ট্রি অফিসে করা ওই সব জমির দলিলমূল্য দেখানো হয়েছে তিন কোটি টাকার কিছু বেশি। তবে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের মতে, বাস্তবে এসব জমির মূল্য অনেক বেশি। এছাড়া টিকাটুলীতে কিংস প্লাজায় ইকবাল পারভেজের নামে ১ হাজার ৪০০ বর্গফুটের একটি অফিস রয়েছে, যার বাজারমূল্য কয়েক কোটি টাকা। তাঁর একটি গাড়ি ও ব্যাংক অ্যাকাউন্টের তথ্যও তুলে ধরা হয়েছে এজাহারে। দুদকের উচ্চপর্যায়ের একাধিক সূত্র জানিয়েছে, প্রাথমিকভাবে যে তথ্য-প্রমাণ পাওয়া গেছে তা দিয়েই মামলা করা হয়েছে। তবে ইকবাল পারভেজের সম্পদের পরিমাণ আরও অনেক বেশি। তদন্ত পর্যায়ে ওই সব সম্পদের তথ্যপ্রমাণ হাজির করা হবে। তাঁদের ধারণা, সব মিলিয়ে ইকবাল পারভেজের সম্পদের পরিমাণ শতকোটি টাকারও বেশি।

সূত্র জানিয়েছে, ইকবাল পারভেজের নামে কদমতলী এলাকায় ২০ কাঠা জমি, মেরাজনগরে সাততলা ও তিনতলা দুটি বাড়ি, কদমতলী এলাকায় একটি একতলা মার্কেট এবং ঢাকার পূর্বাচল এলাকায় ১০ কাঠার একটি প্লট রয়েছে। এসবের বাজারমূল্য প্রায় ৭০ কোটি টাকা। এ ছাড়া রাজধানীর রমনা ও নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় তাঁর ফ্ল্যাট রয়েছে। এফ প্রিমিও ও মিতসুবিশি ব্র্যান্ডের দুটি গাড়িরও মালিক তিনি। বিভিন্ন ব্যাংকে নামে-বেনামে বিপুল পরিমাণ জমা অর্থের প্রমাণ এখন পর্যন্ত তাঁদের হাতে আসেনি বলে দুদকের সূত্রটি জানিয়েছে।

নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
Shirt Piece

অর্থনীতি -এর সর্বশেষ