৪ মাঘ ১৪২৩, মঙ্গলবার ১৭ জানুয়ারি ২০১৭ , ২:৫৩ অপরাহ্ণ
bangla fonts
facebook twitter google plus rss
Narayanganj city corporation 2016
Laisfita

ত্বকী হত্যার বিচার দাবী : ওসমান পরিবারের হুংকারে কেউ ভয় পায় না


০৮ জানুয়ারি ২০১৭ রবিবার, ০৮:৫৬  পিএম

নিউজ নারায়ণগঞ্জ


ত্বকী হত্যার বিচার দাবী : ওসমান পরিবারের হুংকারে কেউ ভয় পায় না

নারায়ণগঞ্জের মেধাবী ছাত্র তানভীর মুহাম্মদ ত্বকী হত্যাকান্ডের চার্জশীট দ্রুত দেওয়ার দাবীতে অনুষ্ঠিত মোমশিখা প্রজ্জলন কর্মসূচীতে সাংস্কৃতিক জোটের নেতারা বলেছেন, নারায়ণগঞ্জের মানুষ এখন আর ওসমান পরিবারের ভয়ে ও হুংকারে ভীত না।

৮ জানুয়ারী রোববার সন্ধ্যায় নারায়ণগঞ্জ শহরের চাষাঢ়ায় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে সাংস্কৃতিক জোট ওই কর্মসূচী পালন করে।

সমাবেশে নারায়ণগঞ্জ প্রেস ক্লাবের সাবেক সভাপতি হালিম আজাদ বলেন, ৪৬ মাস অতিবাহিত হওয়ার পরও আবারো আমরা বিচার চাইছি। আর কত বার এই হত্যাকান্ডের বিচার চাইতে হবে। প্রধানমন্ত্রী জানেন এই হত্যাকান্ডের সাথে কারা জড়িত এবং কে করেছে কোন গডফাদারের পরিচালনায় ও নির্দেশে এ হত্যাকান্ড হয়েছে। এদেরকে এখন চার্জশীট থেকে বাদ দেয়ার চেষ্টা চলছে। ত্বকী হত্যাকান্ডের ঘটনায় জড়িত আজমীর ওসমান কি করে মুক্ত বাতাসে ঘুরে বেড়ায়। এরা মাটির নিচে চলে গেলেও বের করে এনে বিচার করা হবে। এখন আর এদের হুংকারে মানুষ ভয় পায় না।

সাংস্কৃতিক জোটের উপদেষ্টা ও ত্বকী মঞ্চের আহবায়ক রফিউর রাব্বি বলেন, বিচার কার্য বিলম্ব হওয়ার একটাই কারণ সেটা হল আজমীর ওসমান সরকার দলীয় লোক। আজমীর ওসমানের পক্ষে সরকার রয়েছে কারণ এরা সরকার সমর্থিত লোক। তদন্ত রিপোর্টে আজমীর সহ মোট ১১ জনের নাম থাকা সত্ত্বেও কেন বিলম্ব হচ্ছে। নিশ্চয় এতে কিন্তু আছে। রাষ্ট্রের বিচার ব্যবস্থা যে প্রশ্নবিদ্ধ তা  এই হত্যাকান্ডের বিচার ব্যবস্থার মধ্য দিয়ে আবারো প্রমাণিত হল।

নারায়ণগঞ্জ জেলা সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি জিয়াউল হক কাজলের সভাপতিত্বে উপস্থিত ছিলেন নারায়ণগঞ্জ প্রেস ক্লাবের সভাপতি মাহবুবুর রহমান মাসুম, নারায়ণগঞ্জ নাগরিক কমিটির সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রহমান, সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি মন্ডলীর সদস্য ভবানী সংকর রায়, বাংলাদেশ ওয়ার্কার্স পার্টির জেলার সাধারণ সম্পাদক হিমাংশু সাহা, ছাত্রনেতা তরিকুল সুজন সহ, শিল্পী শাহীন বাবু প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, আমাদের হাতে যো আলোটা আছে এটা হচ্ছে ত্বকী। এই আলোটা আমরা কখনো নিভতে দিব না। যতদিন আমার সন্তানের বিচার পাব না তত দিন বিচারের দাবিতে এই আলো চলবে।

প্রসঙ্গত ২০১৩ সালের ৬ মার্চ বিকেলে ত্বকী শহরের শায়েস্তাখান সড়কের বাসা থেকে বের হয়ে আর ফেরেনি। পরে ৮ মার্চ সকালে চাড়ারগোপে শীতলক্ষ্যা নদীর তীরে তার মরদেহ পাওয়া যায়।


নিউজ নারায়াণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:

Shirt Piece
সাহিত্য-সংস্কৃতি -এর সর্বশেষ