১৫ চৈত্র ১৪২৩, বুধবার ২৯ মার্চ ২০১৭ , ১:১৯ অপরাহ্ণ
bangla fonts
facebook twitter google plus rss
Laisfita

বছরে নারায়ণগঞ্জবাসী পেয়েছে দুটি আধুনিক পার্ক ও একটি হাতিরঝিল


০৬ জানুয়ারি ২০১৭ শুক্রবার, ০৮:১১  পিএম

নিউজ নারায়ণগঞ্জ


বছরে নারায়ণগঞ্জবাসী পেয়েছে দুটি আধুনিক পার্ক ও একটি হাতিরঝিল

নারায়ণগঞ্জবাসীর জন্য ২০১৬ বছরটি ভয় ও আতংকের বছর হলেও বছরে এ বছরে নারায়ণগঞ্জবাসীর কয়েকটি উন্নয়নের সুসংবাদ পেয়েছে। নারায়ণগঞ্জবাসী এ বছরে তাদের কাঙ্খিত বিনোদন ও অবসর সময় কাটানোয় পর্যাপ্ত স্থান না পেলেও পেয়েছে দুটি আধুনিক পার্ক ও একটি হাতিরঝিল আদলে শহরের দেওভোগে নির্মাণাধীন পার্ক। যদিও হাতিরলঝিল আদলের ওই পার্কের কাজ এখনো শেষ হয়নি। সেই সাথে নদীর পাড়ে জায়গা খালি করে মানুষের হাঁটার জন্য বিশাল ওয়াকওয়ের মত স্থানও হয়েছে শহরবাসীর জন্য।

বছরের শুরু থেকেই নানা বাধা বিপত্তি থাকলেও সকলের সাথে লড়াই করে রেলের জমি হিসেবে আখ্যা দেয়া জমি উদ্ধার করে শহরের দেওভোগে মানুষের জন্য বিশাল হাতিরঝিল আদলে পার্ক নির্মাণ প্রকল্প শুরু করেছে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন। সৌন্দর্য্য বর্ধনে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের দেওভোগ এলাকায় ময়লা ও কচুরিপানিতে নোংরা জলাশয়কে ঢাকার রাজধানীর হাতিরঝিলের প্রকল্পের আদলে উন্নতমানের লেক ও ভ্রমণ পিপাসু মানুষের জন্য সবুজে ঘেরা ওয়াকওয়ে তৈরি কাজ শুরু করে। নাসিকের সম্পূর্ণ নিজেস্ব অর্থায়নে এ প্রকল্পের কাজ ব্যয় ধরা হয় ৭ কোটি ৭৪ লাখ ৯৮ হাজার ৭৫০ টাকা।

এ বছরের মাঝামাঝিতে উদ্বোধন করা হয় শহরের খানপুরে চৌরঙ্গী ফ্যান্টাসি পার্ক। এ পার্কে রয়েছে শিশুদের জন্য নানা রাইডের ব্যবস্থা, বড়দের জন্য বিশাল হাটার স্থান এবং মনোরম পরিবেশ। এ পার্ক উদ্বোধনের পর থেকে সপ্তাহের ছুটির দিনগুলোতে শহর ও আশেপাশের মানুষ তাদের পরিবার পরিজন নিয়ে এ পার্কে ভীড় জমান। উৎসবের দিনগুলোতে অনেক ভীড় দেখা যায় এ পার্কে। সব ধরনের মানুষের কথা বিবেচনা করে পার্কের প্রবেশ মুল্য নির্ধারণ করা হয়েছে পঞ্চাশ টাকা।
 
বছরের শেষ দিকে উদ্বোধন করা হয় নাসিম ওসমান মেমোরিয়াল পার্ক। ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ লিংক রোডের ফতুল¬া স্টেডিয়ামের বিপরীত দিকে এ পার্কের অবস্থান। বিশাল জায়গা নিয়ে করা এ পার্কে রয়েছে আধুনিক ও উন্নতমানের খাবার রেস্টুরেন্ট। এখানে রয়েছে সকল বয়সী মানুষের জন্য অনেক রাইড। শহরের অদূরে অবস্থিত হওয়ায় এ পার্কে ছুটির দিনগুলোতে ভালো ভীড় লক্ষ্য করা যায়। এ পার্কেও সকল শ্রেনী পেশার মানুষের কথা বিবেচনা করে প্রবেশ মুল্য রাখা হয়েছে ৫০ টাকা।
 
সর্বোপরি একটু দেরিতে হলে নারায়ণগঞ্জবাসীর প্রাণের চাওয়া বিনোদনের যায়গা ও ওয়াকওয়ে নির্মাণ হওয়াতে শহরবাসী ও নগরবাসী ব্যাপক আনন্দিত। তবে মানসম্পন্ন বৃহৎ পার্কের দাবি এখনো রয়েছে নারায়ণগঞ্জবাসীর। যে পার্কে মানুষ তাদের পরিবার পরিজন নিয়ে কিছুটা সুন্দর সময় অতিবাহিত করতে পারবেন।


নিউজ নারায়াণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:

Shirt Piece
সাহিত্য-সংস্কৃতি -এর সর্বশেষ