৫ অগ্রাহায়ণ ১৪২৪, সোমবার ২০ নভেম্বর ২০১৭ , ৮:১৭ পূর্বাহ্ণ

নারায়ণগঞ্জবাসীর লজ্জা ও শামীম ওসমানের কাছে প্রশ্ন


শিপন ভূইয়া, অতিথি লেখক || নিউজ নারায়ণগঞ্জ

প্রকাশিত : ০৯:৩০ পিএম, ২১ আগস্ট ২০১৭ সোমবার | আপডেট: ১০:২৯ পিএম, ২১ আগস্ট ২০১৭ সোমবার


নারায়ণগঞ্জবাসীর লজ্জা ও শামীম ওসমানের কাছে প্রশ্ন

নারায়ণগঞ্জের ক্রিকেট প্রেমিরা অবশেষে হতাশ হলো। নারায়ণগঞ্জবাসীর গর্ব যে ফতুল্লায় আন্তর্জাতিক মানের একটি ক্রিকেট স্টেডিয়াম রয়েছে। দিন দিন সে গর্বই নারায়ণগঞ্জবাসীর খর্ব হয়ে যাচ্ছে। সঠিক তদারকির অভাবে আন্তর্জাতিক মানের স্টেডিয়াম আজ নর্দমায় পরিণত হয়েছে। প্রবাল দ্বীপের মত ভেসে আছে খান সাহেব ওসমান আলী স্টেডিয়াম।

ফতুল্লায় ময়লা পানির দুর্গন্ধের অপবাদে প্রস্তুতি ম্যাচও খেলবে না অস্ট্রেলিয়া। লজ্জিত এবং হতাশ হয়েছে নারায়ণগঞ্জ বাসী সহ সমগ্র দেশ। বিশ্ব মিডিয়ায় স্টেডিয়ামের বেহাল দৃশ্য প্রচার হয়েছে। এ ব্যর্থতার দায়ভার কার ? দেশবাসী জানতে চায়।

খান সাহেব ওসমান আলী স্টেডিয়াম একটি আন্তর্জাতিক মানের ক্রিকেট স্টেডিয়াম। দর্শক ক্ষমতা রয়েছে মোট ২৫ হাজারের মত। আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ম্যাচ যখন শুরু হয় মিডিয়ার কল্যানে সারা বিশ্বে ছড়িয়ে যায় খান সাহেব ওসমান আলী স্টেডিয়ামের নাম। কিন্তু কে সেই খান সাহেব? নারায়ণগঞ্জবাসী খান সাহেবের সঠিক ইতিহাস জানে। যার নাম বঙ্গবন্ধু তার অসমাপ্ত আন্তজীবনী বইতে বার বার উল্লেখ করেছেন। খান সাহেব ওসমান আলীর আপনি সুযোগ্য নাতি হলেন এমপি শামীম ওসমান ও এমপি সেলিম ওসমান। তাঁদের কাছে আমার অনুরোধ আপনারা থাকতেও বিশেষ করে শামীম ওসমান থাকতেও কেন আমাদের শেষ রক্ষা হলো না। আপনি কেন একটু উদ্যোগী হলেন না। আপনি উদ্যোগী হলে হয়তো এ সমস্যার সমাধান হতো দ্রুত। আমার প্রশ্ন অবহেলায় দাদার নামের স্টেডিয়াম এবং নারায়ণগঞ্জবাসীর স্বপ্নের খেলার মাঠটির অকালে মৃত্যু হবে।

স্টেডিয়ামটি জাতীয় ক্রীড়া পরিষদের সম্পত্তি যা ব্যবহার করে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড। স্বভাবতই চুক্তি অনুযায়ী এনএসসি (জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ) ও বিসিবি (বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড) স্টেডিয়ামটি দেখভাল করবে। কিন্তু নারায়ণগঞ্জ ক্রিকেট প্রেমীদের আবেগ তো আর এনএসসি (জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ) ও বিসিবি (বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড) বোঝে না। সামান্য বৃষ্টিতে তলিয়ে যায় মাঠ। কচুরিপনার মত ভেসে থাকে খান সাহেব ওসমান আলী স্টেডিয়াম।

যে স্টেডিয়ামে প্রথম টেষ্ট হয়েছিল অস্ট্রেলিয়া বনাম বাংলাদেশের ২০০৬ সালের ৯ এপ্রিল। সময়ের ব্যবধানে সব কিছুর উন্নতি হলেও খান সাহেব ওসমান আলী স্টেডিয়ামের চোখে পড়ার মত কোন উন্নয়ন হয়নি। অথচ স্টেডিয়ামটি মিরপুর স্টেডিয়ামের বিকল্প হিসাবে ঢাকার অদূরে রয়েছে। বর্তমান এমন বেহাল অবস্থা যে এখন বাংলাদেশ বনাম অস্ট্রেলিয়ার প্রস্তুতি ম্যাচটিও হওয়ার মত অবস্থা নেই। নারায়ণগঞ্জে কি কোন অভিভাবক নেই যে স্টেডিয়ামটি রক্ষা করবে?

মাননীয় সংসদ সদস্য একেএম শামীম ওসমান সাহেব আপনি তো নারায়ণগঞ্জবাসীর অনুভূতি বোঝেন। আপনি তো আর এনএসসি বা বিসিবির মত দায় এড়াতে পারেন না ?

সকল বিভাগের সাথে সমন্বয় রেখে খান সাহেব ওসমান আলী স্টেডিয়ামকে আরো আধুনিক করার জন্য অনুগ্রহ আর দয়া করে একটু বিশেষ নজর দিন। নারায়ণগঞ্জের ক্রীড়া প্রেমীদেরকে যেনো আর হতাশ হতে না হয় কোন আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ম্যাচ নিয়ে। দীর্ঘদিন বেচে থাকুক খান সাহেব ওসমান আলী স্টেডিয়াম ক্রীড়া প্রেমী মানুষের অন্তরে।

নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
Shirt Piece

মন্তব্য প্রতিবেদন -এর সর্বশেষ