৫ কার্তিক ১৪২৪, শুক্রবার ২০ অক্টোবর ২০১৭ , ৯:৫৬ অপরাহ্ণ

না.গঞ্জে পূজায় নারীদের পছন্দ ‘এক প্যাঁচের সাদা ও লাল পাড়ের শাড়ি’


স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ

প্রকাশিত : ০৯:০৯ পিএম, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৭ বুধবার


না.গঞ্জে পূজায় নারীদের পছন্দ ‘এক প্যাঁচের সাদা ও লাল পাড়ের শাড়ি’

‘বাংলা এক প্যাঁচের সাদা ও লাল পাড়ের শাড়ি। যদিও এখন লাল-সাদার চেয়ে অফ হোয়াইট, হালকা গোল্ডেন জমিনের শাড়ির সঙ্গে হলুদ, কমলা সবুজ, গোলাপী বা উজ্জ্বল রঙের পাড় লাগানো শাড়ির ফ্যাশন চলছে। আর সেই রকম বেনারসি, কাতান, সিল্কের শাড়ি একের পর এক দেখিয়ে যাচ্ছেন বিক্রেতা মান্নান ও খোকন। ক্রেতারাও একের পর এক শাড়ি দেখে যাচ্ছেন কারণ এখনও আরো ৬দিন আছে পূজার তাই পছন্দের শাড়ি কিনতেই এতো বাছাই। তবে শেষে গোল্ডেন পাড়ের লাল বেনারসিতে পাতার ছোট ছোট নিখুঁত ডিজাইনের শাড়ি পছন্দ করে বাড়ি ফিরে যাচ্ছেন ক্রেতারা।

২০ সেপ্টেম্বর বুধবার দুপুরে নারায়ণগঞ্জ শহরের ডিআইটি বাণিজ্যিক এলাকার ‘বৌ-রাণী’ নামে শাড়ির দোকানে দেখা যায় এ দৃশ্য। দুই একজন ক্রেতা পছন্দ মতো শাড়ি কিনতে পারলেও অনেকেই এখনই কিনতে নারাজ। বেশ কয়েকটি শাড়ির দোকান ঘুরে পছন্দসই শাড়ি কিনবেন বলেও জানান ক্রেতারা।

শাড়ির দোকানে এসব ভিড় দেখা গেলেও ফাঁক ছিল মেয়েদের জামা কাপড়ের দোকানগুলো। ক্রেতা শূন্য টিভি দেখে, গান শুনে আর পত্রিকার পাতায় চোখ বুলিয়ে সময় পার করছেন তারা।’

বৌ-রাণী শাড়ির দোকানের বিক্রেতা মান্নান ও খোকন নিউজ নারায়ণগঞ্জকে জানান, ‘পূজায় নারীদের প্রথম পছন্দ শাড়ি। তাই শাড়ির দোকানেই ভিড় থাকে বেশি। তবে পছন্দসই শাড়ি কিনতে অনেক শাড়ি দেখতে চায়। তাই আমাদেরও অনেক শাড়ির ভাজ খুলে দেখাতে হয়। বলতে হয় শাড়ির গুনাগুণ সম্পর্কেও।’

নারীদের পছন্দের শাড়ি সম্পর্কে মান্নান নিউজ নারায়ণগঞ্জকে জানান, ‘আগের দিনের লাল সাদা পাড়ের শাড়ি এখনও পছন্দ নারীদের। তবে এর সঙ্গে নতুন করে বিভিন্ন রঙের মিশ্রণ হয়েছে। তাই সবাই এগুলোর প্রতি আগ্রহ বেশি। এছাড়া বেনারসি, কাতান, সিল্ক, ভারতীয় ডিজাইনের শাড়িগুলোও রয়েছে নারীদের পছন্দের তালিকায় শীর্ষে। এগুলো ছাড়া বাজেট অনুযায়ীও রয়েছে শাড়ির পছন্দ তালিকা। তবে সব কিছুতেই লাল, খয়রী, গোল্ডেনের মধ্যে শাড়ি পছন্দ থাকে নারীদের।’

বৌ-রাণী শাড়ি দোকানের পরিচালক অভিজিৎ রায় নিউজ নারায়ণগঞ্জকে বলেন, ‘আগের তুলনায় পূজার বেচাকেনা অনেক কম। এখনও পূজার বেচাকেনা তেমন জমে উঠেনি। শুক্রবার ও শনিবার দোকানের ভীড় বেশি থাকে। তাছাড়া অন্য দিনগুলোতে বিকেল বেলায় ক্রেতাদের ভীড় বেশি হয়।’

এদিকে আদর ফ্যাশনের বিক্রেতা অঞ্জন সাহা বলেন, ‘পূজায় শাড়ির চাহিদা বেশি। নতুন বৌ থেকে শুরু করে তরুণীরাও শাড়ি পড়তে পছন্দ করে। পূজার অষ্টমীর দিন পুষ্পাঞ্জলী দিতে সবাই লাল পাড়ের সাদা বা গোল্ডেন শাড়ি বেশি পড়ে। তাই থ্রী-পিছ, ফ্রগ, লেহেঙ্গা এসব বিক্রি কম। ছোট ছোট শিশুদের পোশাক কিছু বিক্রি হয়। বাকিটা সময় টিভি দেখে, না হয় পত্রিকা পড়ে সময় পার করতে হয়।

বর্ষণ সুপার মার্কেট ঘুরে দেখা গেছে, ছেলেদের পোশাকের দোকানগুলোও ছিল ফাঁকা। অনেকেই টিভি ও গান শুনছেন। তবে কিছু দোকানে দুই একজন ক্রেতা দেখা যায়।

বর্ষণ সুপার মার্কেটের বিক্রেতা প্রলব দাস নিউজ নারায়ণগঞ্জকে বলেন, ‘পূজা ছেলেদের প্রথম পছন্দ পাঞ্জাবী। পরে অন্য টি-শার্ট, শাট, ফতুয়া এসবও কিনে। বিগত কয়েক বছর ধরে পূজার বেচাকেনা অনেক কম। যা বেচাকেনা হয় ঈদের সময়। বাকিটা সময় বেচাকেনা তেমন থাকে না। তবে এবছর ঈদের অনেক দিন পর পূজা হওয়ায় কিছু ক্রেতা ভিড় করছে। তারাও বিকেল বেলায়। তাছাড়া শুক্রবার সব থেকে বেশি ভিড় থাকে।’

বর্ষণ সুপার মার্কেটে টি শার্ট কিনতে আসা রঞ্জন দাস বলেন, ‘এবার জামা কাপড়ের দাম অনেক বেশি। গত বছর যেসব টি-শার্ট কিনেছি ২৫০ থেকে ৩০০ টাকায় এবার তার দাম ৪০০ থেকে ৫০০ টাকা চাইছে। আর প্যান্টের দামও ৫০০ টাকার পরিবর্তে ১২০০ থেকে ১৬০০ টাকাও চাইছে। তাই বিভিন্ন মার্কেট ঘুরে দেখছি। যেখানে কমে ও পছন্দ অনুযায়ী পাবো সেখান থেকেই কিনবো।’

শহরের চাষাঢ়া এলাকার বিভিন্ন বিপণী বিতানগুলোতেও বিকালে ভীড় দেখা গেছে। মার্ক টাওয়ার, হক প্লাজা, সায়েম প্লাজা, সমবায় মার্কেট সহ বিভিন্ন দোকান গুলোতে ভিড় না থাকলেও ক্রেতাদের আনাগোনা ছিল। ওইসব মার্কেটের শাড়ির দোকান গুলোতেই ছিল ভিড় বেশি। অন্যন্যা দোকানগুলোতে তেমন ক্রেতা দেখা যায়নি।’

নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
Shirt Piece

অর্থনীতি -এর সর্বশেষ