৫ আশ্বিন ১৪২৪, বৃহস্পতিবার ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৭ , ২:১১ পূর্বাহ্ণ

৩০০ শয্যা হাসপাতাল

‘ডাক্তার বাবু আসেন ১১টায় রোগীরা ৯টা হতেই’


সিটি করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ

প্রকাশিত : ০৮:২৬ পিএম, ৩০ আগস্ট ২০১৭ বুধবার


‘ডাক্তার বাবু আসেন ১১টায় রোগীরা ৯টা হতেই’

নারায়ণগঞ্জ ৩০০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালের বর্হিবিভাগে মহিলা মেডিসিন বিভাগে কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা: অলক কুমার সাহা নির্দিষ্ট সময়ে ডিউটিতে না আসার কারণে রোগীদের দুর্ভোগ চরম আকারে রূপ নেয়।

অভিযোগ উঠেছে, ডা: অলক কুমার সাহা প্রায় সময়ে সকাল সাড়ে ১০টার পর হাসপাতালে পৌছায়। আর রোগীরা সকাল ৯টা থেকে চিকিৎসকের শরনাপন্ন হবার জন্য দীর্ঘ লাইন ধরে অপেক্ষা করতে হয়ভ

২৯ আগস্ট মঙ্গলবার বেলা ১১টায় ফতুল্লা মাসদাইর এলাকা হতে আগত রোগী শেফালী বেগম (৪৫) জানান, সকালে টিকেট কেটে প্রায় আড়াই ঘণ্টা ধরে অপেক্ষা করছি ডাক্তারের জন্য। অথচ ডাক্তার নাকি এখনো পর্যন্ত আসে নাই। কখন ডাক্তার আসবো কখন চিকিৎসা নিবো বাড়িতে সকল কাজ কর্ম পড়ে আছে।

অন্য রোগীদের অভিযোগে আরো জানা যায়, সরকারী হাসপাতালে আসে রোগীরা ফ্রি চিকিৎসা সহ ওষুধ পাওয়া জন্য। এই ডাক্তার বেশীর ভাগই ওষুধ বাইরের থেকে কেনার জন্য বলেন এবং পরীক্ষা নিরীক্ষা লিখে কোন সু পরামর্শ না দিয়ে তার আশপাশে থাকা ডায়াগনস্টিক সেন্টারের কমর্চারীদের হাতে প্রেসক্রিপশন তুলে দিয়ে পরীক্ষা করার জন্য নির্দেশ দেন। অথচ হাসপাতারের প্যাথলজি বিভাগ থাকলেও সেখান থেকে রোগীদেরকে পরীক্ষা করার দিক নির্দেশনা না কমিশন পাওয়ার জন্য তার নির্দিষ্ট ডায়াগনস্টিক সেন্টারে রোগী ভিজিট করছেন ডা. অলক কুমার সাহা। বিশেষ করে বেশীর ভাগই রোগীকে মেডিপ্লাস ডায়াগনস্টিক সেন্টারে প্রেরন করে বলে রোগীরা অভিযোগ করেন। বহু রোগী টাকার অভাবে বাহিরের প্যাথলজিতে পরীক্ষা করতে না পেরে সঠিক চিকিৎসা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে বলে একাধিক রোগীরা জানান।

নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
Shirt Piece

স্বাস্থ্য -এর সর্বশেষ