৮ আশ্বিন ১৪২৪, রবিবার ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৭ , ৭:২০ পূর্বাহ্ণ

চাষাঢ়ায় রবীন্দ্রজয়ন্তীতে হামলাকারীদের শাস্তি দাবিতে ২২ বুদ্ধিজীবী


|| নিউজ নারায়ণগঞ্জ

প্রকাশিত : ০৮:৪৬ পিএম, ১২ মে ২০১৭ শুক্রবার | আপডেট: ০৭:৪৪ পিএম, ১৩ মে ২০১৭ শনিবার


চাষাঢ়ায় রবীন্দ্রজয়ন্তীতে হামলাকারীদের শাস্তি দাবিতে ২২ বুদ্ধিজীবী

নারায়ণগঞ্জ শহরের চাষাঢ়ায় কেন্দ্রীয় পৌর শহীদ মিনারে গত বুধবার রবীন্দ্রজয়ন্তীর অনুষ্ঠানে হামলার নিন্দা জানিয়ে ও হামলাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবিতে বিবৃতি প্রদান করেছেন দেশের ২২জন বুদ্ধিজীবী। একইসঙ্গে তাঁরা নারাযণগঞ্জের অপশক্তির বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সরকারের প্রতি দাবি জানিয়েছেন।

বিবৃতিতে তাঁরা উল্লেখ করেন, ‘গত ১০ মে ২০১৭ বুধবার বিকেলে নারায়ণগঞ্জের কেন্দ্রীয় শহীদমিনারে স্থানীয় সাংস্কৃতিক সংগঠন উন্মেষ এর আয়োজনে রবীন্দ্রজয়ন্তীর অনুষ্ঠানে পুলিশের উপস্থিতিতেই হামলা চালিয়ে অনুষ্ঠান পন্ড করে দেয় স্থানীয় ছাত্রলীগ নামীয় দুর্বৃত্তরা। হামলা চালিয়ে তারা দুইজন নারী সহ ১০ জন সাংস্কৃতিক কর্মীকে আহত করে। রবীন্দ্রজয়ন্তীর সাউন্ডবক্স ভেঙ্গে ফেলে, আগুন ধরিয়ে দেয়। দুর্বৃত্তরা হামলার সময় নারায়ণগঞ্জের সংসদ সদস্য শামীম ওসমানের পক্ষে শ্লোগান দেয় এবং নারায়ণগঞ্জের সংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব নিহত ত্বকীর পিতা রফিউর রাব্বির কুশপুত্তলিকা দাহ করে এবং তাকে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করে বিভিন্ন হুমকি-ধামকি দেয় বলে আমরা সংবাদ মাধ্যমে জানতে পেরেছি। কিছুদিন আগেও আমরা সংবাদ মাধ্যমে জানলাম শামীম ওসমান স্থানীয় হেফাজতে ইসলামকে দিয়ে রফিউর রাব্বির বিরুদ্ধে মামলা করিয়ে নারায়ণগঞ্জে সাম্প্রদায়িক উত্তেজনার সৃষ্টি করেছে। এখন আবার তারা রবীন্দ্রনাথের উপর আক্রমন করেছে, যা মুক্তিযুদ্ধ পূর্ব পশ্চিমা শাসনের ইঙ্গিত বহন করে।

রবীন্দ্রনাথ ও সংস্কৃতির উপর এ আঘাতকে আমরা আমাদের ভবিষ্যত সংস্কৃতি ও রাজনীতির এক অশনি সংকেত বলে মনে করছি। আমরা এ সব ঘটনার তীব্র নিন্দা জানাই ও ক্ষোভ প্রকাশ করছি এবং প্রশাসনের পক্ষপাতমূলক আচরণেরও নিন্দা জানাচ্ছি।

নারায়ণগঞ্জের এই ঘটনা কোনভাবেই সুশাসনের ইঙ্গিত বহন করে না। গণতান্ত্রিক সমাজে রাষ্ট্র কখনোই অপরাধীদের প্রশ্রয় দিতে পারেনা। শহীদমিনারে হামলাকারীদের নাম ও ছবি বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশ পেয়েছে। আমরা শহীদমিনারে রবীন্দ্রজয়ন্তীতে হামলাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি প্রদানের দাবী জানাচ্ছি এবং নারায়ণগঞ্জে এ সকল অপতৎপরতার সঙ্গে জড়িত গোষ্ঠীর বিরুদ্ধে সরকারকে অতি দ্রুত কঠোর কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণেরও দাবী জানাচ্ছি।”

বিবৃতিতে স্বাক্ষর করেন লেখক গবেষক ভাষাসৈনিক আহমদ রফিক,  ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইমেরিটাস অধ্যাপক সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী, শিক্ষাবিদ ছায়ানটের সভাপতি ড. সন্জীদা খাতুন, সাংবাদিক ভাষাসৈনিক কামাল লোহানী, কথাসাহিত্যিক অধ্যাপক হাসান আজিজুল হক, লেখক শিক্ষাবিদ অধ্যাপক যতীন সরকার, রবীন্দ্র গবেষক লেখক ড. হায়াৎ মামুদ, লেখক শিক্ষাবিদ অধ্যাপক সৈয়দ আনোয়ার হোসেন, লেখক, গবেষক সৈয়দ আবুল মকসুদ, সুশাসনের জন্য নাগরিক (সুজন) সম্পাদক ড. বদিউল আলম মজুমদার, চিত্রশিল্পী রফিকুন নবী, লেখক গবেষক ও উদীচী শিল্পী গোষ্ঠীর সভাপতি ড. সফিউদ্দিন আহমদ, মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরের ট্রাষ্টি ডা. সারোয়ার আলী, নাট্যব্যক্তিত্ব মামুনুর রশীদ, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক লেখক অধ্যাপক শফি আহমেদ, লেখক মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরের ট্রাষ্টি মফিদুল হক, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক অর্থনীতিবিদ অধ্যাপক এম এম আকাশ, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক অর্থনীতিবিদ অধ্যাপক আনু মুহাম্মদ, সঙ্গীতশিল্পী মিতা হক, চিত্রশিল্পী জাহিদ মুস্তাফা, সঙ্গীতশিল্পী কফিল আহমেদ ও প্রকৌশলী ম ইনামুল হক।

নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
Loading...
Shirt Piece

সাহিত্য-সংস্কৃতি -এর সর্বশেষ