৫ আশ্বিন ১৪২৪, বৃহস্পতিবার ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৭ , ২:১৫ পূর্বাহ্ণ

যারা ত্বকীর বিচারে বিলম্বিত করাচ্ছে তাদেরও বিচার হবে : রাব্বি


সিটি করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ

প্রকাশিত : ০৮:২৬ পিএম, ৮ সেপ্টেম্বর ২০১৭ শুক্রবার


যারা ত্বকীর বিচারে বিলম্বিত করাচ্ছে তাদেরও বিচার হবে : রাব্বি

নারায়ণগঞ্জের আলোচিত তানভীর মুহাম্মদ ত্বকী হত্যার ৫৪ মাস পূর্তি উপলক্ষ্যে মোম শিখা প্রজ্জলন করে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন নিহত ত্বকীর বাবা সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব রফিউর রাব্বী সহ অন্যরা।

৮ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যা ৭টায় চাষাঢ়ার শহীদ মিনারে ‘তানভীর মুহাম্মদ ত্বকী হত্যার বিচার কর, দ্রুত অভিযোগ পত্র দাও’ ব্যানারে নারায়ণগঞ্জ সাংস্কৃতিক জোট ওই কর্মসূচির আয়োজন করেন।

মোম প্রজ্জলনের আগে সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে রফিউর রাব্বী বলেন, ‘ত্বকী হত্যাকান্ডে যারা জড়িত তারা কখনই রেহাই পাবে না। হয়তো বিলম্বিত হচ্ছে কিন্তু বিচার হবে। আর যারা বিলম্বে সহযোগিতা করছে তাদেরও একদিন বিচার হবে। জটিল মামলা সাত খুনের বিচার আড়াই বছরের হয়ে গেছে। পাঁচ খুনের বিচারও দেড় বছরের মধ্যে হয়ে গেছে। কিন্তু ত্বকী হত্যার সাড়ে ৪ বছর হয়ে গেলেও এখনও পর্যন্ত অভিযোগপত্রই দেওয়া হয়নিত্বকীকে কখন, কারা, কিভাবে হত্যা করেছে তা র‌্যাবের কর্তৃপক্ষ ও সংবাদিকদের সরবরাহ করলেও তা আদালতে জমা হয়নি। আমরা প্রতি মাসে ত্বকী হত্যার বিচার দাবীতে আন্দোলন করেই যাবো যতদিন বিচার না হবে।

কবি হালিম আজাদ বলেন, ‘আজমেরী ওসমান এ ত্বকী হত্যায় জড়িত। সে এখন বড় গডফাদার হয়েছে। সে এখনো প্রকাশ্যে ঘুরাফেরা করছে। অথচ তাদের বিরুদ্ধে হত্যাকান্ডের সকল প্রমাণ থাকলেও আটক করা হচ্ছে না। আমাদের সাংস্কৃতিক জোটের উপর কিছুদিন পর পর হামলা হচ্ছে। এতে প্রতীয়মান তারা আসলেই হত্যাকারী। তাদের রক্তচক্ষুকে ভয় পাই না। যত হামলা হবে তত আমাদের প্রতিবাদ বাড়বে।’

নারায়ণগঞ্জ সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি জিয়াউল ইসলাম কাজলের সভাপতিত্বে সাধারণ সম্পাদক ধীমান সাহা জুয়েলের সঞ্চালনায় উপস্থিত ছিলেন নারায়ণগঞ্জ নাগরিক কমিটির সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রহমান, বাংলাদেশ সমাজতান্ত্রিক দল (বাসদ) জেলার সমন্বয়ক নিখিল দাস, নারায়ণগঞ্জ সাংস্কৃতিক জোটের সাবেক সভাপতি ভবানী শংকর রায়, গণসংহতি আন্দোলন নারায়ণগঞ্জ জেলার সমন্বয়ক তরিকুল সুজন প্রমুখ।

প্রসঙ্গত ২০১৩ সালের ৬ মার্চ বিকেলে ত্বকী শহরের শায়েস্তাখান সড়কের বাসা থেকে বের হয়ে আর ফেরেনি। পরে ৮ মার্চ সকালে চাড়ারগোপে শীতলক্ষ্যা নদীর তীরে তার মরদেহ পাওয়া যায়। ত্বকী হত্যা মামলার আসামিদের মধ্যে ৮জনই পলাতক। আর ঘটনার সঙ্গে জড়িত সন্ধেহে ৫জনকে গ্রেপ্তার করা হয়। তাদের মধ্যে দুইজন আসামি ইউসুফ হোসেন লিটন ও সুলতান শওকত ভ্রমর স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন। কিন্তু এ হত্যাকান্ডের ৪ বছর অতিবাহিত হলেও এখনও পর্যন্ত এ মামলার অভিযোগ পত্র দেয়া হয়নি।

নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
Shirt Piece

সাহিত্য-সংস্কৃতি -এর সর্বশেষ