৪ অগ্রাহায়ণ ১৪২৪, রবিবার ১৯ নভেম্বর ২০১৭ , ৩:২১ পূর্বাহ্ণ

একটি মৃত্যু একসাথে বসালো সেলিম ওসমান ও আইভীকে (ছবি ও ভিডিও)


স্টাফ করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ

প্রকাশিত : ০৪:৩৮ পিএম, ৩ জুলাই ২০১৭ সোমবার | আপডেট: ০৮:৫২ পিএম, ৪ জুলাই ২০১৭ মঙ্গলবার


একটি মৃত্যু একসাথে বসালো সেলিম ওসমান ও আইভীকে (ছবি ও ভিডিও)

একটি অপ্রত্যাশিত মৃত্যুতে শোকের স্রোতে এক হয়েছিল নারায়ণগঞ্জের সর্বস্তরের মানুষ, জনপ্রতিনিধি ও ভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতারা। ৩ জুলাই সোমবার দুপুর পৌনে ২টায় কালো মেঘাচ্ছন্ন আকাশ থেকে তখন হঠাৎ হঠাৎ বৃষ্টির ফোটা। ততক্ষণে নারায়ণগঞ্জ শহরের প্রাণকেন্দ্র চাষাঢ়ায় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে কফিনে করে আনা হলো সর্বজন পরম শ্রদ্ধেয় শিক্ষক নজরুল গবেষক ও একুশে পদকপ্রাপ্ত করুণাময় গোস্বামীর মরদেহ। ততক্ষণে শহীদ মিনারে থাকা শোকার্ত লোকজনদের চোখেমুখে বিষাদের ছায়া, শোকে কাতুর সবাই। যে শহীদ মিনারে দাঁড়িয়ে দিয়েছেন বক্তৃতা, যে শহীদ মিনার ছিল তার প্রাণের স্পন্দন সেখানেই শেষবারের মত শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য রাখা হয় ‘প্রিয় স্যারের’ মরদেহ। বিকেল ৩টা পর্যন্ত একে একে নারায়ণগঞ্জের সর্বদলীয় সর্ব শ্রেণির মানুষ শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। পরে মৃত্যুর আগে প্রকাশ করা ইচ্ছেমত শহরের মাসদাইরে সিটি করপোরেশনের কেন্দ্রীয় শশ্মানে শেষকৃত্য করা হয়।

নারায়ণগঞ্জে ইতোপূর্বে অনেক গুণী প্রয়াত বরণ করলেও সব দলের সব শ্রেণির লোকজন সহ নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের এমপি সেলিম ওসমান, সিটি করপোরেশনের মেয়র সেলিনা হায়াৎ আইভী সহ বিএনপি, জাতীয় পার্টি থেকে শুরু করে সকল রাজনৈতিক দলের লোকজনদের একত্রে জমায়েত করে দেয় করুণাময় গোস্বামীর অপ্রত্যাশিত মৃত্যু। শ্রদ্ধা জানাতে আসা অনেকেই নীরবে কিছুক্ষণ দাঁড়িয়ে ছিলেন নিথর দেহের পাশে। কেউবা আবার ফেলেছেন চোখের নোনা জল। কেউবা আবার মাথার সামনে আসতে সাহস না পেয়ে পায়ের কাছে দাঁড়িয়েই নীরবে কৃতজ্ঞচিত্রে প্রিয় স্যারকে শেষবারের মত দেখে শ্রদ্ধা জানান।

শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে শহীদ মিনারের ভেতরে পাশাপাশি বসেছিলেন নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের এমপি সেলিম ওসমান, সিটি করপোরেশনের মেয়র সেলিনা হায়াৎ আইভী, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবদুল হাই সহ অনেকে।

২০১৬ সালের ৭ মার্চ সেলিম ওসমানের মাতা নাগিনা জোহার মৃত্যুর পর ওইদিন বিকেলে শহরের চাষাঢ়ায় হীরা মহল এলাকাতে ছুটে যান আইভী। এর আগে ২০১৪ সালের ২৬ জুন নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের উপ নির্বাচনের বিজয়ের পর সিটি করপোরেশন গিয়েছিলেন। গেল বছরের ২২ ডিসেম্বর নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের নির্বাচনের দিন শহরের চাষাঢ়া এবিসি স্কুল ভোটকেন্দ্রে সেলিম ওসমান ও আইভীকে পাশাপাশি দেখা গিয়েছিল। ওইদিন সেলিম ওসমান আইভীর মাথায় হাত রেখে দোয়া করেছিলেন। তবে এরপর গেল ৬ মাসে তাদেরকে পাশাপাশি দেখা যায়নি। 

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, দুপুর ২টার দিকে নারায়ণগঞ্জ-৫ (শহর ও বন্দর) আসনের সংসদ সদস্য ও নারায়ণগঞ্জ কলেজের গভর্নিং বডির সভাপতি সেলিম ওসমান প্রিয় স্যারকে শেষ শ্রদ্ধা নিবেদন করে শহীদ মিনারে বসে থাকা বিশিষ্টজনদের সঙ্গে কুশল বিনিময় করে তাদের সঙ্গে বসে ছিলেন। এর কিছুক্ষণ পরে শহীদ মিনারে এসে প্রিয় স্যারকে শেষ শ্রদ্ধা নিবেদন করে বিশিষ্টজনদের সঙ্গে কুশল বিনিময় করতে আসেন মেয়র আইভী। তখন নারায়ণগঞ্জের শিক্ষানুরাগী হিসেবে পরিচিত শিল্পপতি কাশেম জামাল মেয়র আইভীকে ডেকে নিয়ে সেলিম ওসমানের পাশে বসান। তখন সেলিম ওসমানও আইভীকে বসতে বলেন। তবে তারা বেশ কিছুক্ষণ পাশাাপাশি বসে থাকলেও আলাপচারিতা হয়নি তাদের মধ্যে। কিছুক্ষণ বসে থাকার পরে আইভী উঠে গিয়ে শ্রদ্ধেয় শিক্ষক নজরুল গবেষক ও একুশে পদকপ্রাপ্ত ড. করুণাময় গোস্বামীর পরিবারের সদস্যদের প্রতি শোক জানাতে যান।

সবশেষ ঢাকার ক্যামব্রিয়ান কলেজে শিক্ষকতা করলেও ড. করুণাময় গোস্বামী দীর্ঘকাল নারায়ণগঞ্জে শিক্ষকতা করেছেন। ১৯৬৪ সালে ইংরেজীর শিক্ষক হিসেবে তোলারাম কলেজে যোগ দেন করুণাময় গোস্বামী। রবীন্দ্র ও নজরুল সঙ্গীতে পারদর্শী করুণাময় তখন থেকেই ছাত্র-ছাত্রীদের মন জয় করে নিয়েছিলেন। তোলারামে ছিলেন ১৯৮০ সাল পর্যন্ত। তিনি ছেড়ে যাওয়ার আগ মুহূর্তে কলেজটি সরকারিকরণ করা হয়। মাঝে করোটিয়া সাদত কলেজসহ আরো কয়েকটি কলেজে শিক্ষকতা করার পর ১৯৯৮ সালে নারায়ণগঞ্জ সরকারি মহিলা কলেজে অধ্যক্ষ হিসেবে যোগদেন। এখান থেকেই তিনি এলপিআর এ যান। সুধীজন পাঠাগারের পরিচালকও ছিলেন এই সঙ্গীতজ্ঞ।

৩০ জুন শুক্রবার রাত পৌনে ১২টায় তিনি মারা যান। তাঁর বয়স হয়েছিল ৭৪ বছর। তিনি ২০১২ সালে একুশে পদক লাভ করেছিলেন। এছাড়া বাংলা একাডেমি সাহিত্য পুরস্কারসহ অসংখ্য পদক লাভ করেছেন।

নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
Shirt Piece

মহানগর -এর সর্বশেষ