৫ আশ্বিন ১৪২৪, বৃহস্পতিবার ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৭ , ২:১৩ পূর্বাহ্ণ

আপডেট

এবার রাজনীতি খেলা খেলবেন শামীম ওসমান


সিটি করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ

প্রকাশিত : ০৫:৫৬ পিএম, ২৭ জুলাই ২০১৭ বৃহস্পতিবার | আপডেট: ১০:০১ পিএম, ২৮ জুলাই ২০১৭ শুক্রবার


এবার রাজনীতি খেলা খেলবেন শামীম ওসমান

নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের এমপি শামীম ওসমান আবারও পূর্বের মত আশংকা করে বলেছেন, দেশে আগামীতে বড় ধরনের আঘাত আসবে। এজন্য আমাদের ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে। আমি যতবার ঐক্য গড়ে তোলার সৃষ্টি করি ততবারই ভাঙনের চেষ্টা করা হচ্ছে। তাই এবার আমি উন্নয়ন ছেড়ে রাজনীতি করবো। খেলতে নামবো। কড়া খেলা হবে।

২৭ জুলাই বৃহস্পতিবার বিকেলে চাষাঢ়া শহীদ মিনারে সেচ্ছাসেবক লীগের প্রতিষ্ঠবার্ষিকী উপলক্ষ্যে মহানগর সেচ্ছাসেবক লীগের উদ্যোগে কেক কাটা ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে শামীম ওসমান এসব কথা বলেন। পরে একটি র‌্যালী শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে।

সেচ্ছাসেবক লীগের নেতাকর্মীদের প্রতি শামীম ওসমান বলেন, ‘নতুন করে কোন পাপীকে কমিটিতে স্থান দেওয়ার দরকার নাই। পরীক্ষিত নেতাদের দিয়েই কমিটি গঠন করতে হবে। কমিটি গঠনের ক্ষেত্রে আমার কেন কোন নেতার কথা শোনা যাবে না। প্রত্যেক ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে কমিটি গঠন করা হবে।’

শামীম ওসমান বলেন, ‘আজ সেচ্ছাসেবক লীগের পাশাপাশি প্রধানমন্ত্রীর ছেলে ডিজিটাল বাংলাদেশের স্বপ্ন দেখা সজীব ওয়াজেদ জয় এরও জন্মদিন। কিন্তু আমি আমি কোন সুখবর দিতে পারছি না। কারণ যুগান্তরে খবর এসেছে আগামী এক বছরে দেশে জঙ্গী হামলা ও গণহত্যা হবে। কারণ একটা ষড়যন্ত্র চলছে এটা আগামীতেও চলবে। নারায়ণগঞ্জও এর বাইরে না। আমি জানি সামনে আঘাত আসবে। যারা হিলারি আর ক্লিনটনকে বাংলাদেশ থেকে লবিং করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ভয় দেখানোর চেষ্টা করে ওই গ্রুপটি এবার ঢাকাতে বসে নারায়ণগঞ্জ নিয়ে খেলতে চায়। তাদের আশীর্বাদে অনেকেই আবার এ নারায়ণগঞ্জ চাষাঢ়া শহীদ মিনারে বক্তব্য দেয়। বক্তা থাকে ১১ জন শ্রোতা থাকে ৫জন।’

তিনি বেশ দৃঢ়কণ্ঠে কয়েকবার বলেন, ‘ইতোমধ্যে খেলা শুরু হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীকে হত্যারও ষড়যন্ত্র হচ্ছে। রূপগঞ্জে যেসব ভারী অস্ত্র উদ্ধার হয়েছে সেটা একটা খেলারই অংশ। ফতুল্লা এলাকাতে প্রচুর উন্নয়ন হয়েছে। এবার আমি একটু উন্নয়নের বদলে রাজনীতি করবো। যারা ভালো রাজনীতি করছে তাদের ওয়েলকাম। কিন্তু যারা ষড়যন্ত্র করছে তাদের সঙ্গে আমিও চাই খেলতে। এবারের খেলা ডু অর ডাই। এবার কঠিন খেলা হবে। লড়াই হবে কঠিন। ষড়যন্ত্রকারীদের কড়া জবাব দেওয়া হবে। কিভাবে জবাব দিতে হয় আমি জানি।’

অতীত স্মৃতিচারণ করে বলেন, ‘৭৫ এর পর যারা আমরা রাজনীতি করতে এসেছি কিছু পাওয়ার জন্য না। বঙ্গবন্ধু হত্যার বিচার চাইতেই রাজনীতি করেছিলাম। ৭জন মিলে চাষাঢ়ায় জিয়াউর রহমানের গাড়ি আটকে দিয়ে মারধরের শিকার হয়েছিলাম। কিন্তু হারি নাই।’

তিনি আরো বলেন, ‘অনেকে বলেন কতিপয় রাজনৈতিক দলগুলোর সঙ্গে আলোচনা করতে। কিন্তু বলি কার সঙ্গে আলোচনা করবো। যে জামায়াত একাত্তরে মা বোনের সম্ভ্রম কেড়েছিল, ক্ষমতায় যাওয়ার জন্য গাড়িতে পেট্রোল বোমা মেরে নিরীহ মানুষ হত্যা করেছিল তাদের সঙ্গে গণতান্ত্রিক আলোচনা চলে না। আমার দল এ ক্ষেত্রে গণতন্ত্র মানলেও আমি ওই গণতন্ত্র মানি না।’

তিনি বলেন, ‘দেশে এখন দুটি পার্টি। একটি আওয়ামী লীগ ও অপরটি এন্টি আওয়ামী লীগ। আবার আওয়ামী লীগেও চলছে বিরোধীতা। একটি গ্রুপ কাউকে কাউকে আমাদের দলের নেতাদেরকেও কখনো আম জামের লোভ দেখিয়ে ভাঙনের সৃষ্টি করছে। আমাদের বিরুদ্ধে উলট পালট বলাচ্ছে। ২/৪ জনের এসব কথায় কিছু যায় আসে না। নারায়ণগঞ্জ আওয়ামী লীগে কোন কোন্দল থাকবে না। গত সিটি করপোরেশন নির্বাচনে আমি আইভীর পক্ষে কাজ করেছি। নির্বাচনে আমি কী করেছি সেটা আমি জানি আর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সহ নির্বাচন পরিচালনা কমিটির লোকজন জানে।’

শামীম ওসমান বলেন, ‘নারায়ণগঞ্জে শতকরা ৯০ভাগ সাংবাদিক ভালো। কিছু সাংবাদিক হলুদ সাংবাদিকতা করছে। নেতারা যা বলে নাই সেটা লিখে দিচ্ছে চরিত্র হনন করছে। প্রশাসনকে আমি বিষয়টা বলেছি। প্রশাসন যদি তদন্ত না করে বিচারের ভার জনগণের উপর দিব। মনে রাখতে হবে জনগণের উপর কোন শক্তি নাই’।

ডিএনডির জলাবদ্ধতা প্রসঙ্গে বলেন, ‘ইতোমধ্যে ডিএনডির প্রকল্প পাশ হলেও কাজ শুরু হয়নি। সে কারণে আমি কয়েকদিন ঢাকাতে এ নিয়ে ব্যস্ত ছিলাম। আগামী দুই একদিনের মধ্যে আমি মন্ত্রীকে বলবো কবে নাগাদ কাজ করবে সেটা জানাতে। নতুবা প্রয়োজনে আমি ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ লিংক রোডে আমরণ অনশন করবো। মন্ত্রী এসে তখন বলতে হবে কবে কাজ শুরু কবে তখনই আমি উঠবো।’

মহানগর সেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি জুয়েল হোসেনের সভাপতিত্বে উপস্থিত ছিলেন মহানগর আওয়ামীলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি চন্দন শীল, সহ-সভাপতি গোপীনাথ দাস, সাংগঠনিক সম্পাদক জাকিরুল আলম হেলাল, সিদ্ধিরগঞ্জ থানা আওয়ামীলীগ সভাপতি মজিবুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক ইয়াসিন মিয়া, শহর যুবলীগ সভাপতি শাহাদাত হোসেন ভুইয়া সাজনু, জেলা তাতীলীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট হাসান ফেরদৌস জুয়েল,জেলা তাতী লীগের সাধারন সম্পাদক জসিম উদ্দিন চৌধুরী, জেলা মহিলা লীগ সভাপতি প্রফেসর শিরিন বেগম, মহানগর মহিলা লীগ সভাপতি ইসরাত জাহান স্মৃতি, জেলা কৃষকলীগের সাধারণ সম্পাদক ইব্রাহীম চেঙ্গিস, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি এহসানুল হাসান নিপু ও জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান সুজন প্রমুখ।

নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
Shirt Piece

রাজনীতি -এর সর্বশেষ