৫ আশ্বিন ১৪২৪, বৃহস্পতিবার ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৭ , ২:১৬ পূর্বাহ্ণ

এখনো হারিয়ে যাননি শামীম ওসমান


স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ

প্রকাশিত : ০৯:৪৩ পিএম, ১৩ আগস্ট ২০১৭ রবিবার


এখনো হারিয়ে যাননি শামীম ওসমান

এখনো হারিয়ে যাননি এমপি শামীম ওসমান। শনিবার ১২ আগস্ট শহরে বিশাল শোক র‌্যালি করে তিনি আবারও প্রমাণ করেছেন এখনো তাঁর ডাকে লোকজন ছুটে আসে। আর রাজনীতিতেও যে তিনি একেবারে হারিয়ে যাননি সেটাও তিনি বার বার প্রমাণ করছেন।

শনিবারের শোক র‌্যালি নিয়ে অনেক ধরনের কানাঘুষা ছিল। লোকজন হবে না, অনুষ্ঠান প- হয়ে যেতে পারে ছিল নানা গুঞ্জন। কিন্তু সব কিছুকে ছাড়িয়ে তিনি আবারও প্রমাণ করেছেন বঙ্গবন্ধু, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও আওয়ামী লীগের জন্য তিনি নিজের জীবনও বিলিয়ে দিতে পারেন।

দীর্ঘদিন ধরে নারায়ণগঞ্জে নেই কোন শো ডাউন, ছিল না বড় ধরনের কোন কর্মসূচী এ অবস্থায় শামীম ওসমান আবারও শহরে শোক র‌্যালি করে আওয়ামী লীগকে জাগ্রত করেছে। এ মিছিল ও সমাবেশ আগামী ১৫ আগস্ট শোক দিবসের অনুষ্ঠানে নেতাকর্মীদের জাগ্রত করতে আরো সহায়ক হবে।

আওয়ামী লীগের অনেক নেতাকর্মী জানান, আওয়ামী লীগের বিরোধ, বিভাজন, দ্বন্দ্ব থাকতে পারে নেতৃত্বের প্রশ্নে। কিন্তু শামীম ওসমান শনিবার প্রমাণ করেছেন দলের ক্রান্তিলগ্নে দলের প্রয়োজনে তিনি লাখো মানুষের জমায়েত ঘটাতে পারেন। নারায়ণগঞ্জে যে কোন প্রয়োজনে এর চেয়েও বড় সমাবেশ ঘটানো নারায়ণগঞ্জে সম্ভব।

আওয়ামী লীগের র‌্যালির কারণে বিএনপিতে অনেকটাই ভীতি কাজ করবে মনে করছেন অনেকে। কারণ বিএনপির অনেকেই মনে করতো কিংবা গুজব ছড়াতো রাজনৈতিকভাবে ‘শামীম ওসমান দুর্বল’। তবে শনিবারের র‌্যালিতে তিনি প্রমাণ করেছেন তিনি আদৌ হারিয়ে যাননি।

গত ডিসেম্বরে সুষ্ঠুভাবে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন সম্পন্ন হওয়ায় নারায়ণগঞ্জের আওয়ামী লীগ নেতা শামীম ওসমানকে অভিনন্দন জানিয়ে ফেসবুকে একটি পোস্ট করেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম। ফেসবুক দেয়া পোস্টে নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্যকে অভিনন্দন জানিয়েছেন তিনি। নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্যের প্রশংসা করে তিনি বলেন, শামীম ওসমান। আওয়ামীলীগ যখন যেভাবে চেয়েছে, দলের প্রয়োজনে সেভাবেই হাজির হয়েছেন। অভিনন্দন আপনাকে।’

এদিকে শনিবার ১২ আগস্ট সকাল থেকেই গুড়ি গুড়ি বৃষ্টি। আর সে বৃষ্টির মধ্যে দুপুর ২টার পরেই শহরের চাষাঢ়ায় সলিমুল্লাহ সড়কে ট্রাকের উপর অস্থায়ী ট্রাকে শুরু হয় সভার কাজ। ওই সময় থেকেই বিভিন্ন এলাকা থেকে কালো পতাকা নিয়ে একে একে লোকজন আসতে থাকে মঞ্চের সামনে। ক্রমশ লোকে লোকারণ হয়ে উঠে চাষাঢ়া থেকে মিশনপাড়া পর্যন্ত সলিমুল্লাহ সড়কের দুই পাশ।

এর আগে সমাবেশ উপলক্ষে দুপুর থেকেই দলীয় নেতাকর্মীরা দলে দলে এসে যোগ দিতে থাকে সমাবেশে। মূল র‌্যালী শুরু হবার আগেই বিকেল সাড়ে ৩ টার মধ্যেই সমাবেশস্থল সম্পূর্ন পরিপূর্ণ হয়ে উঠে দলের নেতাকর্মীদের দিয়ে।

সমাবেশে আগত নেতাকর্মীরা জানান, শামীম ওসমান আমাদের নেতা, তিনি ছিলেন আছেন এবং আমাদের মধ্যেই থাকবে। আমরা সকলেই তার সাথে রয়েছি, জীবনের শেষ রক্তবিন্দু পর্যন্ত আমরা তার সাথে থাকবো। শামীম ওসমান একজন কিন্তু আমরা সবাই তার সাথে মিলে শেখ হাসিনার হাতকে সব সময় শক্তিশালী করতে তার নির্দেশেই কাজ করি। শামীম ওসমানের কথার বাইরে আমরা কখনো কিছু করি নাই আর করবোও না।

নেতাকর্মীরা জানান, শামীম ওসমানের নারায়ণগঞ্জের রাজনীতিতে ঐক্যের জন্য কাজ করছে। তিনি সবাইকে নিয়েই কাজ করেছেন এবং করবেন। তিনি আমাদের মাথার উপর ছায়ার মত। আমাদের সুখে দুঃখে আমরা সবসময় আমাদের এ নেতাকে কাছে পেয়েছি। তিনি আমাদের সবাইকে নিয়েই কাজ করে যাচ্ছেন নারায়ণগঞ্জ ও আওয়ামীলীগের কল্যাণের জন্য। সকল বাধাকে পার করে হলেও আমরা আমাদের নেতার জন্য রাজপথে ছিলাম আছি থাকবো, কারণ শামীম ওসমান রাজপথের নেতা, শামীম ওসমান আছে, থাকবে।

নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
Shirt Piece

রাজনীতি -এর সর্বশেষ