৫ অগ্রাহায়ণ ১৪২৪, সোমবার ২০ নভেম্বর ২০১৭ , ৮:১২ পূর্বাহ্ণ

শাহআলমের ঈদ পুনর্মিলনী : কেউ যায় এলাকায় কেউ জোরে ডাকে নিজ বাড়িতে


স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ

প্রকাশিত : ০৮:১১ পিএম, ১০ সেপ্টেম্বর ২০১৭ রবিবার | আপডেট: ০২:৩৫ পিএম, ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৭ মঙ্গলবার


শাহআলমের ঈদ পুনর্মিলনী : কেউ যায় এলাকায় কেউ জোরে ডাকে নিজ বাড়িতে

নারায়ণগঞ্জে সচরাচর যেসব ঈদ পুনর্মিলনীর অনুষ্ঠান হচ্ছে সেগুলো মূলত বিএনপির ইউনিট এলাকাতেই হচ্ছে। থানা উপজেলা কিংবা ইউনিয়ন পর্যায়ে গিয়ে নেতারা যোগ দিচ্ছে এসব পুনর্মিলনী অনুষ্ঠানে। সেখানে গিয়ে স্ব শরীরে হাজির হয়ে নেতারা অনুষ্ঠানকে জমিয়ে তুলছে।

তবে এ ক্ষেত্রে কিছুটা ব্যতিক্রম নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির সহ সভাপতি ও ফতুল্লা থানা বিএনপির সভাপতি শাহ আলম। তিনি এবার নিজের ফতুল্লার বাড়িতে ফতুল্লার ৫টি ইউনিয়নের নেতাদের নিয়ে ঈদ পুনর্মিলনী করছেন। ৫টি ইউনিয়নের নেতাদের জোর করে নিজের বাসায় ডেকে এনে তাদের খাবার খাইয়ে সেটিকে ঈদ পুনর্মিলনী হিসেবে প্রচার করছেন তিনি। একই সাথে ইউনিয়ন বিএনপি নেতারাও পদ রক্ষার্থে থানা বিএনপির সভাপতি ডাকে তার বাসায় আসছেন।

বিগত কয়েকদিন ধরেই ফতুল্লায় নিজ বাসায় এ অনুষ্ঠান করছেন তিনি। অনুষ্ঠানে আসা একাধিক ইউনিয়ন বিএনপি নেতা এসব অভিযোগ জানিয়েছেন। তারা জানান, শাহ আলম বিগত দিনে আমাদের কোন খোঁজ খবর না রাখলেও সামনে নির্বাচন হওয়াতে তিনি এখন আমাদেরকে ডেকে এনে খাওয়াচ্ছেন আর এটিকে বলছেন ঈদ পুনর্মিলনী।

নেতাকর্মীরা জানান, তারা সব সময় দেখেছেন সকল নেতাকর্মীদের একসাথে ডেকে বা বিভিন্ন ইউনিয়নে গিয়ে নেতাকর্মীদের সাথে ঈদ শুভেচ্ছা বিনিময় করতে কিন্তু শাহ আলমতো নিজের পরিচিত ও অনুগত কয়েকজনকে নিজের বাসায় ডেকে খাইয়ে সেটিকে ঈদ পুনর্মিলনী বলে প্রচার করছেন যা মোটেই ঠিক নয়। দলের নেতাকর্মী সবাইকে নিয়েই ঈদ পুনর্মিলনী করা উচিত আর উনিতো সামনে নির্বাচন করবেন উনার তো এখন এমন সংকীর্ণ মনমানসিকতা প্রদর্শন অনেকটাই বেমানান।

নেতাকর্মীরা অভিযোগ করে, বিগত সময়ে দলের দুঃসময়ে তাদের সহায়তায় শাহ আলম একদিনও ফতুল্লার কোন ইউনিয়নে যাননি। তিনি ফতুল্লার কোন ইউনিয়নে কাজ করেননি এমনকি কোন ইউনিয়নের নেতাকর্মীদের বাড়িতে ভুলেও পা ফেলেননি। ইউনিয়ন বিএনপির নেতাকর্মীদের নিজে ফোন করে দাওয়াতও করছেন না তিনি। শুধুমাত্র নিজের অনুগত কয়েকজনকেই দাওয়াত করছেন শাহ আলম। আর সেই হাতে গোনা নেতাকর্মীদের তার বাসায় এনে খাইয়ে সেটিকেই ঈদ পুনর্মিলনী বলছেন তিনি।

বক্তাবলী ইউনিয়ন বিএনপির এক নেতা জানান, শাহ আলম সাহেবতো ফতুল্লা থানা বিএনপির সভাপতি তিনি দাওয়াত করলে পদ রক্ষার্থে হলেও আমাদেরকে আসতে হয়। ইচ্ছা না থাকলেও এসেছি, আর ইচ্ছা থাকবেই বা কেমন করে ইউনিয়ন বিএনপির সবাইকে তো আর বলা হয়নি। সেই বক্তাবলী থেকে ফতুল্লায় তার বাসায় আমরা কয়েকজন এসেছি দাওয়াতে এসে শুনি এটা ঈদ পুনমিলনী। সবাইকে নিয়ে একসাথে ঈদ পুনমিলনী করলেই মনে হয় ভালো হতো।

প্রসঙ্গত এক সময়ে শুধুমাত্র ব্যবসার খাতিরেই ফতুল্লায় আসতেন তখন। নয়তো ঢাকা কিংবা দেশের বাইরে কাটত বেশী সময়। ওয়ান ইলেভেন সময়কালে তার নাম শোনা যায় প্রথম। রাজনীতির ময়দানে নেমেই কিংস পার্টি খ্যাত কল্যাণ পার্টির কেন্দ্রীয় কমিটি কোষাধ্যক্ষ পদ বাগান। অবস্থা বেগতিক দেখে নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে বিএনপিতে যোগ দিয়ে নারায়ণগঞ্জ-৪ (ফতুল্লা) আসনের টিকেট পেয়ে যান এক যাদুর চেরাগের মহীমায়। নির্বাচনের পরাজয় বরণ করলেও ওই দলের একাধিক পদ তার বগলদাবা হয় সেই চেরাগেই। এরপর কদাচিৎ দলীয় কর্মসূচীতে থাকতেন তিনি, তাও অনেক মহল ম্যানেজ করে। দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পর থেকে তিনি একেবারে উধাও। এবার তিনি হয়েছেন জেলা বিএনপির সহ সভাপতি। জেলা কমিটির নব গঠিত কমিটিতে নেতা নির্বাচনে বিশেষ ভূমিকা ছিল শাহআলম যিনি এখন তিনি বিএনপির ‘আন্ডার’ গডফাদার হিসেবেই পরিচিতি পেয়েছেন।

দলীয় সূত্রে জানা যায়, কেন্দ্রীয় কমিটির শীর্ষ নেতাদের কাছে শাহ আলমকে সোনার ডিম পাড়া হাঁস মনে করা হয়। তারা যখন চান তখনই সোনার ডিম পাড়েন তিনি। তাই তার প্রতি সহানুভুতিশীল হাই কমান্ড। তবে দলীয় কর্মসূচীতে না থাকায় মাঠ পর্যায়ের নেতাকর্মীরা তার উপর ক্ষুব্দ। নেতাকর্মীদের মূল্যায়ন করা নিয়েও বিস্তর অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে। এ প্রতিবেদকের সাথে আলাপকালে কয়েকজন ক্ষুব্দ কর্মী জানালেন, উনি শিল্পপতি তাই দল বা রাজনীতি বুঝেন না।

জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি ফতুল্লা থানা বিএনপির সভাপতি শিল্পপতি মুহাম্মদ শাহআলম কল্যানপার্টির কেন্দ্রীয় কমিটির কোষাধ্যক্ষ ছিলেন। কল্যানপার্টি থেকে তিনি বিএনপিতে যোগদান করেন। তবে বিএনপির রাজনৈতিক আন্দোলন সংগ্রামে তার কোন ভুমিকা নেই। উল্টো আন্দোলনে রাজপথে না নামার জন্য কর্মীদের তার কঠোর হুশিয়ারী। ৯ম সংসদ নির্বাচনে অংশ নিলেও পরবর্তীতে কোন ধরনের আন্দোলনে না থাকায় এ নেতার বিরুদ্ধে এখন পর্যন্ত কোন মামলা হয়নি।

নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
Shirt Piece

রাজনীতি -এর সর্বশেষ