৪ অগ্রাহায়ণ ১৪২৪, রবিবার ১৯ নভেম্বর ২০১৭ , ৩:১৮ পূর্বাহ্ণ

রূপগঞ্জে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হচ্ছেন বসুন্ধরা গ্রুপের আনভীর!


রূপগঞ্জ করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ

প্রকাশিত : ১১:০৭ পিএম, ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৭ মঙ্গলবার | আপডেট: ০৮:২০ পিএম, ১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৭ বৃহস্পতিবার


রূপগঞ্জে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হচ্ছেন বসুন্ধরা গ্রুপের আনভীর!

নারায়ণগঞ্জ-১ তথা রূপগঞ্জ আসনে আগামীতে আওয়ামী লীগের এমপি প্রার্থী হিসেবে সম্ভাব্য তালিকায় উঠে এসেঠেছন বসুন্ধরা গ্রুপের পরিচালক সায়েম সোবহান আনভীর। তাঁর প্রার্থীতা নিয়ে গত কয়েক মাস ধরেই নানা গুঞ্জন থাকলেও গত কয়েকদিন ধরে আনভীরের পক্ষে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে চলছে প্রচারণা। সেখানে রঙধনু গ্রুপের চেয়ারম্যান শিল্পপতি রফিকুল ইসলাম ও তার লোকজন ওই প্রচারণা চালাচ্ছে। যদিও আনভীর কিংবা তাদের গ্রুপের পক্ষ থেকে কোন আনুষ্ঠানিক ঘোষণা আসেনি।

রূপগঞ্জে আওয়ামী লীগের একাধিক নেতা জানান, আগামীতে রূপগঞ্জের নির্বাচনে বড় ধরনের নাটকীয় পরিবর্তন আসতে পারে। বিষয়টি বেশ প্রায় এক বছর ধরেই আলোচিত হচ্ছিল। এখানে শিল্প প্রতিষ্ঠান বসুন্ধরা গ্রুপের কেউ প্রার্থী হবেন সেটাই ছিল মূলত আলোচনার বিষয়। তাছাড়া এখানকার এমপি গোলাম দস্তগীর গাজীর বিরুদ্ধেও স্থানীয় আওয়ামী লীগ ও এর সহযোগি সংগঠনের অনেক নেতাকর্মী বিক্ষুব্ধ। এছাড়া গাজী ও তার লোকজনের বিরুদ্ধেও রয়েছে নানা অভিযোগ। এসব অভিযোগের বেড়াজালে সাবেক সেনাপ্রধান কে এম শফিউল্লাহ, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবদুল হাই, রূপগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সেক্রেটারী ও উপজেলা চেয়ারম্যান শাহজাহান ভূইয়া, শিল্পপতি ও কায়েতপাড়ার চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম রফিক এক প্লাটফরমে আসতে দেখা গেছে। সেখানে তাঁরা অনেকেই সভা সমাবেশ করেছে। রব তুলেছিল গাজীর বিরুদ্ধে।

এর মধ্যে শফিউল্লাহ ও আবদুল হাই এমপি প্রার্থী হতে পারেন এমন কথা যখন সর্বত্র চাউর তখনই আনভীরের বিষয়টি প্রকাশ পাওয়ায় বদলে যাচ্ছে দৃশ্যপট।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, এমনিতে গাজীর আগামী নির্বাচনে মনোনয়ন নিয়ে বেশ শংকা তৈরি হয়েছে। তিনি মনোনয়ন পাবেন কী না সেটা নিয়েও চলছে আগাম কানাঘুষা। তবে সেখানকার আওয়ামী লীগের বেশীরভাগ নেতাকর্মীর দাবী আগামীতে হয়তো মনোনয়ন দৌড়ে ছিটকে যেতে পারেন গাজী। এটা নিয়ে যখন দোলাচল তখন সায়েম সোবহান আনভীরের পক্ষে প্রচারণা ভাবিয়ে তুলেছে গাজী ও তাঁর সমর্থকদের। কারণ বসুন্ধরা গ্রুপ চাইলে সেখানে তাদের কোন প্রার্থীর মনোনয়ন বাগানো অসাধ্য কিছু না।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, বাংলাদেশের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ আসন রূপগঞ্জ। ঢাকার পাশের পূর্বাচল উপশহর এ রূপগঞ্জে অবস্থিত। অন্যদিকে রূপগঞ্জ একটি শিল্পাঞ্চল ও বাণিজ্যিক এলাকা। বাংলাদেশ স্বাধীনের পর থেকে নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ আসনে যে দলের প্রার্থী বিজয়ী হন, সেই দলই সরকার গঠন করেন। সব মিলিয়ে এ আসনকে একটি ভিআইপি আসন হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে। ফলে এখানে উভয়দলের পক্ষ থেকে হিসেব-নিকেশ কষেই প্রার্থী ঘোষণা করেন। শেখ রাসেলনগর ছাড়াও ৭টি ইউনিয়ন ও ২টি পৌরসভা নিয়ে নারায়ণগঞ্জ-১ (রূপগঞ্জ) আসন গঠিত।

প্রসঙ্গত রূপগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে সংসদ সদস্য গোলাম দস্তগীর গাজী বহু চেষ্টা করেও শাহজাহান ভূইয়ার মনোনয়ন ঠেকাতে পারেননি। পরপর দুইবার উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত হওয়ায় আওয়ামী লীগের শীর্ষ মহলের নেক নজরে রয়েছেন শাহজাহান ভূঁইয়া। আব্দুল হাই নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নির্বাচিত হওয়ার পর থেকে তাঁর জনপ্রিয়তাও বাড়ছে রূপগঞ্জের সর্বত্র।

নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
Shirt Piece

রাজনীতি -এর সর্বশেষ