৩০ অগ্রাহায়ণ ১৪২৪, শুক্রবার ১৫ ডিসেম্বর ২০১৭ , ৩:০০ পূর্বাহ্ণ

ফেসবুকে ভুয়া আইডি : মাদ্রাসা ছাত্র নাঈম হত্যায় ৩জনের দোষ স্বীকার


সিটি করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ

প্রকাশিত : ০৮:৪২ পিএম, ৩০ নভেম্বর ২০১৭ বৃহস্পতিবার | আপডেট: ০২:৪২ পিএম, ৩০ নভেম্বর ২০১৭ বৃহস্পতিবার


ফেসবুকে ভুয়া আইডি : মাদ্রাসা ছাত্র নাঈম হত্যায় ৩জনের দোষ স্বীকার

নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার ফতুল্লায় মাদ্রাসা ছাত্র আবু নাঈমকে (১৮) হত্যার দায়স্বীকার করে আরো তিন বখাটে পৃথক আদালতে দোষস্বীকার করে জবানবন্দি দিয়েছে। ৩০ নভেম্বর বৃহস্পতিবার দুপুর থেকে বিকেল পর্যন্ত তিনটি আদালতের বিচারক তাদের জবানবন্দি গ্রহন করেছেন।

গ্রেফতারকৃতরা হলো- পশ্চিম নন্দলালপুর এলাকার সিফাত (১৮), সজল (১৮) ও হৃদয় (২০)। বুধবার রাতে ফতুল্লার বিভিন্ন এলাকা থেকে পুলিশ তাদের গ্রেফতার করেন। এদের মধ্যে নারায়ণগঞ্জ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আশেক ইমামের আদালতে সিফাত, সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ইশরাত জাহানের আদালতে সজল ও সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট হুমায়ান কবীরের আদালতে হৃদয় জবানবন্দি দিয়েছেন।

সত্যতা নিশ্চিত করে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা পরিদর্শক গোলাম মোস্তফা জানান, বখাটে  হৃদয় প্রেমিকার কথা বলে আবু নাঈমকে নন্দলালপুর সড়ক থেকে মন্তাজ উদ্দিন সড়কের ভিতরে ডেকে নিয়ে যায়। এরপর তারা ওই সড়কের একটি স্থানে আটক করার চেষ্টা করে। এতে আবু নাঈম ছুটে যাওয়ার চেষ্টা করলে বখাটে সজলসহ অন্যান্য সহযোগীরা তাকে মারধর শুরু করে। এসময় নাঈমের সাথে তাদের ধস্তাধস্তি হলে এক পর্যায়ে সিফাত তার পিঠে ছুরিকাঘাত করে। এতে নাঈম মাটিতে পড়ে গেলে বখাটেরা পালিয়ে যায়।

তিনি আরো জানান, ফেসবুকে তরুনীর নামে ভূয়া আইডি থেকে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে আবু নাঈমকে ডেকে নিয়ে অপহরণে ব্যর্থ হয়ে ছুরিকাঘাত করে হত্যা করা হয়। এ হত্যাকান্ডে প্রায় ২২জন বখাটে অংশ নিয়েছে। গত মঙ্গলবার বিকেলে এঘটনায় গ্রেফতার সুমন ওরফে রাফা (১৮) নামে এক বখাটে আদালতে দোষস্বীকার করে জবানবন্দি দিয়েছে। এনিয়ে ৪জন বখাটে দোষস্বীকার করে আদালতে জবানবন্দি দিয়েছে।

নিহত আবু নাঈম ফতুল্লার আলীগঞ্জ মাদ্রাসার ছাত্র এবং মুন্সিগঞ্জ জেলার চরডুমিয়া গ্রামের ব্যবসায়ী মনসুর আহম্মেদের ছেলে। তারা স্বপরিবারে ফতুল্লার পিলকুনি জোড়া মসজিদ এলাকায় নানার বাড়ির সম্পদ পেয়ে বাড়ি নির্মান করে বসবাস করেন।

ফতুল্লা মডেল থানার ওসি কামাল উদ্দিন জানান, গ্রেফতারকৃতরা একটি সংঘবদ্ধ প্রতারক চক্র। তারা ফেসবুকে তরুনীদের ছবি দিয়ে ভুয়া আইডি খুলে ধনাঢ্য পরিবারের ছেলেদের বেছে নিয়ে বন্ধুত্বের প্রস্তাব পাঠায়। এরপর বন্ধুত্ব হলে ম্যাসেঞ্জারে চেট করে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তুলে। এরপর তাদের পছন্দ করা স্থানে আসার জন্য অনুরোধ করে। এক পর্যায়ে কেউ তাদের এ খপ্পরে পড়লে তাদের নিয়ে আটক করে পরিবারের কাছে মুক্তিপন দাবী করে। দীর্ঘদিন ধরে এভাবেই সাধারন মানুষের সাথে ওই চক্রটি প্রতারনা করে আসছে বলে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতারকৃত সুমন ওরফে রাফা পুলিশকে জানিয়েছে।

তিনি আরো জানান, মাদ্রাসা ছাত্র আবু নাঈমও তাদের খপ্পার পড়ে ১৯ নভেম্বর রাতে ফতুল্লার পাগলা নন্দলালপুর এলাকায় যায়। সেখানে ওই বখাটেদের সাথে তার দেখা হয়। এক পর্যায়ে ভুয়া আইডির সেই সিন্থিয়ার জাহান তোরার সাথে দেখা করানোর কথা বলে নাঈমকে নিয়ে যায় ওই এলাকার মন্তাজউদ্দিন রোডে। সেখানে গিয়ে আবু নাঈম তাদের প্রতারনার বিষয়টি বুজতে পেরে ছুটে আসার চেষ্টা করলে বখাটেরা তার চার পাশ ঘিরে ধরে। এক পর্যায়ে আবু নাঈমের পেটে বখাটেরা ছুরিকাঘাত করে হত্যা শেষে পালিয়ে যায়।

নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
Shirt Piece

আইন আদালত -এর সর্বশেষ