১ অগ্রাহায়ণ ১৪২৫, বৃহস্পতিবার ১৫ নভেম্বর ২০১৮ , ৩:০৬ অপরাহ্ণ

UMo

না.গঞ্জে ‘ডিবি’ পরিচয়ে তুলে নেয়ার আতঙ্ক


স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ

প্রকাশিত : ০৮:৫৯ পিএম, ২৭ অক্টোবর ২০১৮ শনিবার


না.গঞ্জে ‘ডিবি’ পরিচয়ে তুলে নেয়ার আতঙ্ক

গত কয়েকদিন ধরেই নারায়ণগঞ্জে বিরাজ করছে ‘ডিবি’ পরিচয়ে তুলে নেয়ার আতঙ্ক। গত দেড় মাসে জেলার বিভিন্ন স্থানে ডিবি পরিচয়ে তুলে নেয়ার পরে মিলেছে ৮টি লাশ। এছাড়া ডিবি পরিচয়ে রূপগঞ্জ উপজেলার কায়েতপাড়া ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি শফিকুল রহমান ভূইয়া বাদল সহ তিন নেতাকে তুলে নেয়ার ১৬ ঘন্টা পরে তারা ফেরত এসেছে। এর আগেও ডিবি পরিচয়ে নারায়ণগঞ্জ জেলা ছাত্রদল নেতা সভাপতিকে তুলে নেয়ার অভিযোগের ২ দিন পরে তাকে অস্ত্রসহ গ্রেফতার দেখায় পুলিশ।

এদিকে ‘ডিবি’ পরিচয়ে একের পর এক অপহরণের ঘটনায় জেলা জুড়েই বিরাজ করছে আতঙ্ক। এর আগেও ২০১৪ সালে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য পরিচয়ে একাধিক অপহরণ ও গুমের ঘটনা ঘটে। আলোচিত ৭ খুনের পরে সাদা পোশাকে গ্রেফতার অভিযান বন্ধের নির্দেশনা থাকলেও বর্তমানে আবারো তার অপব্যবহারে উদ্বিগ্ন হয়ে উঠেছে সাধারণ মানুষ।

জানা গেছে, ২৪ অক্টোবর বুধবার বিকেল ৪টায় নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ উপজেলার কায়েতপাড়া ইউনিয়নের বড়ালু এলাকা থেকে কায়েতপাড়া ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি শফিকুল রহমান ভূইয়া বাদল সহ তিন নেতাকে সাদা পোশাকধারী ৮-৯জন ব্যক্তি নিজেদেরকে ডিবি পুলিশ পরিচয় দিয়ে মাইক্রোবাসে করে তুলে নিয়ে যায়। অপহৃতদের কোনো সন্ধান না পেয়ে রূপগঞ্জ উপজেলা যুবলীগ, ছাত্রলীগ, স্বেচ্ছাসেবকলীগের শতাধিক নেতাকর্মী ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের ভুলতা এলাকায় সন্ধ্যা ৬টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত অবরোধ করে রাখে। পুলিশ ও সংসদ সদস্য গোলাম দস্তগীর গাজীর আশ্বাসে নেতাকর্মীরা অবরোধ তুলে নেয়। পরদিন বৃহস্পতিবার সকাল ৮টায় অপহৃত বাদলসহ তিন নেতা নিজ বাড়িতে ফিরে আসে।

কায়েতপাড়া ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি শফিকুল রহমান ভূইয়া বাদল জানান, তাকে সহ যুবলীগ নেতা শাকিল মিয়া, ছাত্রলীগ নেতা শাকিল আহমেদকে সাদা পোশাকে অস্ত্রধারী ৮-৯জন লোক নিজেদের ডিবি পুলিশ পরিচয় দিয়ে মাইক্রোবাসে তুলে নেয়। পরে তাদের হাত-পা ও চোখ বেঁধে ফেলে। গাড়িতে করে সারা রাত বিভিন্ন স্থানে ঘুরানো হয়। এসময় একাধিক বার তাদের হত্যা করবে বলেও হুমকি দেয়া হয়। পরে ভোর ৫টায় তাদের গাজীপুরের কাপাসিয়া এলাকায় মহাসড়কের পাশে ফেলে দিয়ে চলে যায়। সকালে স্থানীয় লোকজন উদ্ধার করে হাত পা ও চোখের বাধন খুলে দেয়। সকাল ৮টার দিকে রূপগঞ্জের কায়েতপাড়া ইউনিয়নের মাঝিনা গ্রামের বাড়ি ফিরে যুবলীগের এই নেতা।

এর আগে গত ২১ অক্টোবর ভোরে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার উপজেলার সাতগ্রাম ইউনিয়নের পাচঁরুখী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের উত্তর পাশের দীঘির পাড় এলাকা থেকে ৪ যুবকের লাশ উদ্ধার করা হয়। লাশ উদ্ধারের স্থান থেকে দু’টি দেশী পিস্তল ও এক রাউন্ড গুলি উদ্ধার এবং একটি মাইক্রেবাস জব্দ করে পুলিশ। উদ্ধারকৃত লাশগুলোর মাথা ও মুখ ম-ল থেতলানো এবং বিকৃত ছিল। নিহতদের পরিবারের অভিযোগ ১৯ অক্টোবর বিকেলে তাদেরকে ডিবি পুলিশ পরিচয়ে তুলে নেয়ার পরে রাখা হয়েছিল ভুলতা পুলিশ ফাড়িতে। লাশ উদ্ধারের ঘটনায় আড়াইহাজার থানায় পৃথকভাবে দুটি মামলা হয়েছে। এসআই রফিকউদ্দৌলা বাদী হয়ে ওই দুটি মামলা দায়ের করেন। আড়াইহাজারে নিহত ৪ জন হলেন পাবনা জেলার আতাইউল্লা থানাধীন পুষ্টপাড়া ধর্মগ্রাম এলাকার মৃত সোলেমানের পুত্র ফারুক প্রামানিক (৩৭), একইগ্রামের মোঃ লোকমান সরদারের পুত্র জহিরুল (২৫), খায়রুল ইসলামের পুত্র সবুজ (২২), ফরিদপুরের ভাঙা থানার উত্তর আকনবাড়িয়া এলাকার মৃত মনসুর মোল্লার পুত্র লুৎফর রহমান মোল্লা। রূপগঞ্জে নিহত হলেন পাবনা জেলার আতাইউল্লা থানাধীন পুষ্টপাড়া ধর্মগ্রাম এলাকার লিটন। এর মধ্যে জহিরুল, সবুজ ও লিটন সম্পর্কে খালাতো ভাই। আর মৃত ফারুক প্রামানিক তাদের দূর সম্পর্কের মামা। 

গত ১৫ সেপ্টেম্বর রাজধানী ঢাকার বাড্ডা এলাকা থেকে নারায়ণগঞ্জ জেলা ছাত্রদলের সভাপতি মশিউর রহমান রনিকে কয়েকজন সাদা পোষাকধারী নিজেদের ডিবি পুলিশ পরিচয়ে একটি কালো মাইক্রোবাসে করে তুলে  যায়। এরপর থেকে নিখোঁজ ছিল রনি। পরে ১৭ সেপ্টেম্বর সকালে তাকে ফতুল্লার দাপা ইদ্রাকপুর এলাকা থেকে পিস্তল ও গুলিসহ গ্রেফতার দেখায় ফতুল্লা মডেল থানা পুলিশ।

গত ১৪ সেপ্টেম্বর নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জের পূর্বাচল উপশহর থেকে রাজধানীর ৩ ব্যবসায়ীর গুলিবিদ্ধ লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ উপজেলার পূর্বাচল উপ শহরের কাঞ্চন-কুড়িল বিশ্বরোড (৩০০ ফিট) সড়কের আলমপুর এলাকার ১১ নং সেতুর নিচ থেকে লাশগুলো উদ্ধার করা হয়। পরিবারগুলো দাবি করছেন তাদেরকে সাদা পোশাকধারী কিছু লোক পুলিশ পরিচয়ে তাদের আটকের পর পরিকল্পিতভাবে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে। নিহতরা হলেন মুন্সিগঞ্জের টংগীবাড়ি উপজেলার বিক্রমপুর গ্রামের মৃত আব্দুল ওহাবের ছেলে নূর হোসেন বাবু (২৯), তার ভায়রা ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলার গুড়েলা এলাকার আব্দুল মান্নানের ছেলে শিমুল আজাদ (২৬), বর্তমানে রাজধানীর মুগদা মান্ডা এলাকার হাজীর বাড়ির ভাড়াটিয়া এবং তাদের বন্ধু ও ব্যবসায়ীক অংশিদার রাজধানীর বনানী মহাখালী দক্ষিনপাড়া এলাকার মৃত শহিদুল্লাহর ছেলে সোহাগ ভূইয়া (৩৪)। তারা ৩ জনই মুগদা এলাকায় অংশীদারিত্বের ভিত্তিতে গার্মেন্ট পণ্যের ব্যবসা করতেন। এদের মধ্যে নিহত শিমুলের প্যান্টের পকেট থেকে নেশাজাত ৬৫ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করা হয়েছে। নিহত প্রত্যককেই মাথায় বুকেসহ একাধিকস্থানে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে বলে জানান রূপগঞ্জ থানার ওসি মনিরুজ্জামান। পরিবারের অভিযোগ ছিল তাদেরকে মাওয়া ঘাট এলাকা থেকে তুলে নেয় ডিবি পরিচয় দেয়া লোকজন। ওই ঘটনার অদ্যাবধি কোন কুলকিনারা হয়নি।

এদিকে রাজধানীর উপকণ্ঠ শিল্প ও বাণিজ্যনগরী নারায়ণগঞ্জে ডিবি পরিচয়ে একের পর এক বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষদের তুলে নেয়ার ঘটনায় জনমনে সৃষ্টি হয়েছে আতঙ্কের। নারায়ণগঞ্জের বিভিন্ন স্থানে প্রায়শই মিলছে অজ্ঞাত লাশ। সম্প্রতি ফতুল্লার সাইনবোর্ড এলাকা থেকে সাদা পোশাকে পুলিশ পরিচয় দেয়া ওয়াকিটকি ও ভুয়া আইডিকার্ডসহ ৫ ভুয়া পুলিশকে আটক করেছে ফতুল্লা মডেল থানা পুলিশ। এছাড়া গত দেড় মাসে ডিবি পরিচয়ে তুলে নেয়ার ঘটনায় শুধু বিরোধ দল বিএনপিই নয় আওয়ামীলীগেরও অনেক নেতাকর্মীর মনেও বিরাজ করছে উদ্বেগ উৎকণ্ঠা। এর আগে ২০১৪ সালের ১৬ এপ্রিল নারায়ণগঞ্জের লিংক রোড থেকে বেলার রিজওয়ানার স্বামীকে অপহরণের ঘটনা দেশজুড়ে আলোচিত হয়েছিল। তাকে ৩৬ ঘন্টা পরে অপহরণকারীরা ছেড়ে দিলেও সেই রহস্যের উদঘাটন আজো হয়নি। এর কিছুদিন পরে ওই বছরের ২৭ এপ্রিল আলোচিত ৭ খুনের ঘটনা শুধু বাংলাদেশেই নয় বিশ্বজুড়ে আলোচিত হয়েছিল। এরপরে সাদা পোশাকে পুলিশের অভিযান বেশ কিছুদিন স্থগিতও ছিল। কিন্তু সাম্প্রতিক সময়ে আবারো বেড়েছে সাদা পোশাকে ডিবি পুলিশ পরিচয় দিয়ে তুলে নেয়ার ঘটনা। এতে করে জনমনে আতঙ্ক আরো বেড়েছে।

rabbhaban

নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
Shirt Piece

আইন আদালত -এর সর্বশেষ