বিলম্ব না তাৎক্ষনিক অ্যাকশন এসপি হারুনের

স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৪:৫২ পিএম, ২২ জুলাই ২০১৯ সোমবার

বিলম্ব না তাৎক্ষনিক অ্যাকশন এসপি হারুনের

‘সকাল থেকেই জেলা পুলিশ সুপার কার্যালয়ের নিচে সাক্ষাৎপ্রার্থীদের চেয়ারে বসে ছিলেন কয়েকজন নারী পুরুষ। উদ্দেশ্য পুলিশ সুপারের সঙ্গে দেখা করে সমস্যাগুলো ব্যক্ত করবেন। বছরের পর বছর আর মাসের পর মাস ধরে তারা সমস্যায় ভুগলেও পায়নি কোন প্রতিকার। আর সে কারণেই এবার শেষ ভরসা হিসেবে পুলিশ সুপারের কাছে আসা। ২২ জুলাই সোমবার সকালে পুলিশ সুপার হারুন অর রশিদ কার্যালয়ে প্রবেশের সময়েই দেখা পান এসব ভুক্তভোগীদের। তাৎক্ষনিক তিনি সেখানে দাঁড়িয়েই একে একে সবার কথা শুনেন আর উপস্থিত অন্য পুলিশ কর্মকর্তাদের দায়িত্ব দেন দ্রুত সমস্যার সমাধানের।’

পুলিশ সুপার কার্যালয়ের একজন কর্মকর্তা জানান, এবারই নারায়ণগঞ্জের ইতিহাসে সবচেয়ে বেশী ভুক্তভোগী পুলিশ সুপারের সাক্ষাৎ পাচ্ছেন। তিনি কার্যালয়ে না থাকলেও অতিরিক্ত পুলিশ সুপাররা দেখভাল করছেন বিষয়গুলো। তবে পুলিশ সুপার নিজেই সবচেয়ে বেশী সাক্ষাৎ দিচ্ছেন লোকজনদের। জরুরী কাজ না থাকলে কাউকেই ফিরাচ্ছেন না তিনি।

এ ব্যাপারে পুলিশ সুপার হারুন অর রশিদ বলেন, ‘আমাদের কাজ মানুষকে সেবা দেওয়া। অনেক মানুষ এতদিন ভয়ে পুলিশের কাছে আসতো না। এখন প্রতিদিন প্রতিনিয়ত আসছে। মানুষ আমাদের পুলিশ প্রশাসনের উপর আস্থা রাখতে শুরু করেছে। তারা আসলে আমরা চেষ্টা করছি দ্রুত সমস্যা সমাধানের। কোন বিলম্ব করছি না। কারণ যারা আসছে তাদের বেশীরভাগই ভুক্তভোগী। জমি দখল, টাকা পয়সা আত্মসাৎ সহ নানা অভিযোগ। অসহায় মানুষগুলো ক্রমান্বয়ে সেবা পাচ্ছেন বলেই দিন দিন ভীড় হচ্ছে পুলিশ সুপার কার্যালয়ে।

নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশের বিশেষ শাখার পরিদর্শক ডিআই-২ সাজ্জাদ রুমন নিউজ নারায়ণগঞ্জকে জানান, ‘শুধু সোমবার না অন্য দিনেও পুলিশ সুপার স্যার কার্যালয়ে প্রবেশের সময়ে সাক্ষাৎপ্রার্থী কেউ আসলে তাৎক্ষনিক দাঁড়িয়ে থেকেই সমাধান দিচ্ছেন। এতে সবাই বেশ অবাক হচ্ছেন। কারণ একজন পুলিশ সুপার জনগণের সঙ্গে মিশে গিয়ে জনগণের কাংখিত সেবা দেওয়ার সর্বোচ্চ প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন।


বিভাগ : আইন আদালত


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও