স্বপন হত্যা মামলার যুক্তিতর্ক পেছালো

সিটি করেসপন্ডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৮:৪৩ পিএম, ২১ আগস্ট ২০১৯ বুধবার

স্বপন হত্যা মামলার যুক্তিতর্ক পেছালো

নারায়ণগঞ্জের আলোচিত কাপড় ব্যবসায়ী স্বপন কুমার সাহা হত্যা মামলার যুক্তিতর্কের তারিখ পিছিয়েছে আদালত। বুধবার (২১ আগস্ট) জেলা ও দায়রা জজ আদালতে ওই মামলার যুক্তিতর্কের তারিখ পেছানোর আবেদন জানালে আদালত তা মঞ্জুর করে।

পূর্ব নির্ধারিত তারিখ অনুযায়ী বুধবার মামলার যুক্তিতর্ক হবার কথা থাকলেও তা পিছিয়ে আগামী ২৬ আগস্ট নির্ধারন করা হয়েছ। এসময় আদালতে মামলার আসামী পিন্টু দেবনাথ ও রত্মা চক্রবর্তী ও মোল্লা মামুন উপস্থিত ছিলেন।

পিপি এস এম ওয়াজেদ আলী খোকন বলেন, স্বপন হত্যার মামলাটি বর্তমানে যুক্তিতর্কের জন্য প্রস্তুত হয়েছে। বুধবার আসামী পক্ষের আইনজীবী সময় আবেদন করায় এর তারিখ পেছানো হয়েছে। তবে পুরো মামলাতে আসামীর জবানবন্দী যে সাক্ষ্য প্রমান উপস্থাপন করা হয়েছে তাতে করে আসামীর সর্বোচ্চ সাজা দিতে আমরা সক্ষম হবো।

উল্লেখ্য ২০১৬ সালের ২৭ অক্টোবর নারায়ণগঞ্জ শহরের মাসদাইর বাজার কাজী বাড়ির প্রবাসী আজহারুল ইসলামের ৪ তলা ভবনের ২য় তলায় হত্যার পূর্বে যৌন মিলনের প্রলোভন দেখিয়ে পিন্টু তার প্রেমিকা রত্মা রানীকে দিয়ে স্বপনকে ডেকে নেয় মাসদাইরের ওই ফ্ল্যাটে। এরপর বিছানায় বসিয়ে যৌন উত্তেজনা সৃষ্টি করে পূর্বে থেকে ঘুমের ওষুধ মিশিয়ে রাখা ফ্রুটিকা জুস স্বপনকে পান করায় রত্মা রানী। এতে ঘুমিয়ে পড়ে স্বপন। এরপর শীল পাটা দিয়ে স্বপনের মাথায় আঘাত করে পিন্টু। পরে বাথরুমে নিয়ে বটি দিয়ে লাশ গুমের জন্য ৭ টুকরো করা হয়।

পরে রাতে ৫টি বাজারের ব্যাগে করে ওই লাশ তিন দফায় শীতলক্ষ্যা নদীতে নিয়ে ফেলে দেয় পিন্টু। সহায়তা করে রত্মা সে ও পিন্টু মিলেই বাড়ির নিচে ব্যাগগুলো নামায়। মাসদাইর থেকে তিন দফায় ঘাটে ব্যাগগুলো আনা হয়। প্রথম দফায় একটি, দ্বিতীয় ও তৃতীয় দফায় দুটি করে ব্যাগ কেন্দ্রীয় লঞ্চ টার্মিনালের পাশে সেন্ট্রাল খেয়া ঘাটে আনে। মাসদাইর থেকে রিকশায় করে লাশবোঝাই ব্যাগগুলো যাতে কেউ বুঝতে না পারে সেজন্য উপরে দেওয়া হয় সবজি। প্রত্যেকবার সে বৈঠা চালানো নৌকা রিজার্ভ করে বন্দর ঘাটে যাওয়ার জন্য। পরে মাঝির অগোচরে ব্যাগগুলো ফেলে দেওয়া হয় শীতলক্ষ্যায়।


বিভাগ : আইন আদালত


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও