রূপগঞ্জে স্কুল ছাত্র জিসান হত্যায় আসামী জাহিদ রিমান্ডে

রূপগঞ্জ করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৯:২০ পিএম, ৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯ মঙ্গলবার

রূপগঞ্জে স্কুল ছাত্র জিসান হত্যায় আসামী জাহিদ রিমান্ডে

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে স্কুল ছাত্র জিসান হত্যা মামলায় এজাহারভুক্ত আসামী জাহিদ হাসান বিদ্যুতকে দুইদিনের রিমান্ডে নিয়েছে পুলিশ। সোমবার (৩ সেপ্টেম্বর) সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মাহমুদুল মোহসীন এ আদেশ দেন।

এর আগে ৩১ আগস্ট জাহিদ হাসানের ১০ দিন রিমান্ড চেয়ে আদালতে প্রেরণ করে পুলিশ। সোমবার শুনানীর দিন ধার্য হলে আদালত ২ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। রিমান্ডকৃত আসামী জাহিদ হাসান বিদ্যুৎ উপজেলার গোলাকান্দাইল দক্ষিনপাড়া এলাকার মনসুর আহমেদের ছেলে।

গত ৩০ আগস্ট ভুলতা ফাঁড়ির উপ-পরিদর্শক রোকনুজ্জামান বাদী হয়ে ১৭ জনকে নামীয় ও ৪/৫ জনকে অজ্ঞাত আসামী করে হত্যা মামলাটি দায়ের করেন। পরিবারের লোকজন আসামীদের ভয়ে মামলা না দেওয়ায় পুলিশ বাদী হয়ে হত্যা মামলা দায়ের করে।

রূপগঞ্জ থানার ওসি মাহমুদুল হাসান মামলার এজাহারের বরাত দিয়ে জানান, গত ২৫ আগস্ট জাতীয় পত্রিকায় রূপগঞ্জে খুনিদের ভয়ে এলাকা ছাড়া নিহতের পরিবার শিরোনামে একটি নিউজ ছাপা হয়। এ নিউজ প্রকাশের পর পুলিশ ঘটনাটি অনুসন্ধানের জন্য ঘটনাস্থলে গিয়ে এলাকাবাসীকে জিজ্ঞাসাবাদ করেন।

জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, গোলাকান্দাইল এলাকার সৌরভ, সিয়াম ও শাহিনের সঙ্গে শিক্ষার্থী জিসানের বিভিন্ন বিষয়াদি নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল। এ নিয়ে আসামীরা জিসানকে শায়েস্তা করার পায়তারা করে আসছিল। এর বিরোধের জের ধরে গত ২২ আগষ্ট সৌরভ, সিয়াম, শাওন, জাহিদ হাসান বিদ্যুৎ, ইকরাম, পারভেজ, আল-আমিন, সাকিব, ইয়ামিন, মাসুম, মোস্তাকিম, রোহান, নিরব, আরমান, ইমন, হৃদয় ও ফাহিমসহ অজ্ঞাত ৪/৫ জন মিলে স্কুল শিক্ষার্থী জিসান ও তার বন্ধু শুভকে বাড়ি থেকে ডেকে গোলাকান্দাইল বালুর মাঠে এনে লোহার রড ও লাঠি দিয়ে গুরুতর আহত করেন। এক পর্যায়ে আসামীরা বন্ধু শুভকে পিটিয়ে তাড়িয়ে দেয়। পরে আসামীরা শিক্ষার্থী জিসানকে লোহার রড ও লাঠি দিয়ে পিটিয়ে মরে গেছে মনে বালুর মাঠে ফেলে রেখে চলে যায়। স্থানীয়রা জিসানকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া পথেই তার মৃত্যু হয়।


বিভাগ : আইন আদালত


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও