মাদকের বিরুদ্ধে আমরা লড়াইয়ে নেমেছি : আইজিপি

স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০২:১৫ পিএম, ২৮ নভেম্বর ২০১৯ বৃহস্পতিবার

মাদকের বিরুদ্ধে আমরা লড়াইয়ে নেমেছি : আইজিপি

বাংলাদেশ পুলিশের মহাপরিদর্শক আইজিপি জাবেদ পাটোয়ারী বলেছেন, ‘আমরা যেভাবে সন্ত্রাস জঙ্গীবাদ রুখে দিয়েছি ঠিক তেমনি মাদকের বিরুদ্ধেও আমরা লড়াইয়ে নেমেছি। একজন মাদকসেবী শুধু তার পরিবার, সমাজের জন্য বোঝা নয় দেশের জন্যও বোঝা। মাদকের বিরুদ্ধে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী যেভাবে নির্দেশনা দিচ্ছেন সেখানেই আমরা কাজ করছি এবং সামনে আরো বেশী কঠোর হবো আমরা। বাবা মাকে অবশ্যই সন্তানদের দিকে দৃষ্টি রাখতে হবে, আপনার সন্তান কোথায় যাচ্ছে কার সাথে মিশছে তারা আপনাদের সন্তানদের কোথায় নিয়ে যাচ্ছে। ইতোমধ্যে যারা মাদকসেবী হয়ে গেছেন তাদের পুনর্বাসনের জন্য চেষ্টা করছি আমরা।’

বৃহস্পতিবার (২৮ নভেম্বর) দুপুরে নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার পঞ্চবটিতে কমিউনিটি ব্যাংক পঞ্চবটি শাখার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। এর আগে তিনি পুলিশ লাইনে ৬টি উন্নয়ন প্রকল্পের কাজ উদ্বোধন করেন তিনি।

উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসক জসিমউদ্দিন, জেলা পুলিশ সুপার (ভারপ্রাপ্ত) মনিরুল ইসলাম, এফবিসিসিআইয়ের সাবেক পরিচালক মোহাম্মদ আলী, পরিচালক প্রবীর সাহা প্রমুখ।

তিনি বলেন, আমরা আপনাদের দ্বারপ্রান্তে পৌছে দিতে চাই আমাদের সেবা। প্রতিদিনই দেশের আনাচে কানাচে উন্নয়নের ছোয়া লাগছে এ জন্য আমরাও আপনাদের দোরগোড়ায় পৌছে যেতে চাই। বছরখানেকের মধ্যে ৬৪ জেলা, প্রান্তিক জনগোষ্ঠী এবং আপনাদের সকলের কাছে আমরা পৌছে যাবো। আপনাদের জানমালের নিরাপত্তার জন্য যেমন আমাদের উপর নির্ভর করেন, আপনাদের সম্পদ আমানতের নিরাপত্তাও আমাদের দায়িত্ব। যদি এই দায়িত্ব আমাদের দিয়ে আপনারা এ ব্যাংকের মাধ্যমে আসেন তাহলে আপনাদের আপনাদের আমানতের নিরাপত্তা দেব। আপনার আমানত আমাদের কাছে সুরক্ষিত থাকবে সে ব্যাপারে আপনারা নিশ্চিত থাকতে পারেন।

আইজিপি বলেন, আমাদের কল্যাণ ট্রাস্টের প্রতি বছর যেসব লভ্যাংশ আসে সেখান থেকে আমাদের লক্ষাধিক পুলিশ সদস্য ও তাদের পরিবারের কাছে তা বুঝিয়ে দেয়া হয়। এখানে একজন কনস্টেবলের যত পরিমাণ টাকার শেয়ার রয়েছে আমার আইজিপিরও তত পরিমাণ শেয়ার রয়েছে। এটি একটি অন্যরকম দৃষ্টান্ত।

জাবেদ পাটোয়ারী বলেন, বাংলাদেশ পুলিশের সদস্যরা দেশের জন্য যেসকল ভূমিকা রাখছে তার জন্য দেশবাসী আজ বাংলাদেশ পুলিশকে নিয়ে গর্বিত। বাংলাদেশ পুলিশকে নিয়ে এ কমিউনিটি ব্যাংক। বাংলাদেশ পুলিশ জনগনের পুলিশ এবং এ ব্যাংকটিও জনগনের, আপনার। মাত্র দুমাস আগে এ ব্যাংকের উদ্বোধন হয়েছিল। এই দুমাসে আমরা ৬টি শাখার অনুমোদন পেয়েছি এবং উদ্বোধন করেছি। প্রতিটি উদ্বোধনেই এত মানুষ ব্যবসায়ীরা ছিল যা এর আগে কখনো দেখা যায়নি। এ ব্যাংকটি আপনাদের ব্যাংক আর আমরা আপনাদের জন্য।

তিনি বলেন, একটা সময় নিয়ম ছিল সন্ধ্যায় মাগরিবের আজান দিলেই বাসায় আমাদের চলে যেতে হতো। এটা পরিবারের অলিখিত নিয়ম ছিল। এখানে অনেক মুরুব্বি রয়েছে তারাও মাথা নাড়ছেন। আগে মুরুব্বিদের একটা বিশাল কন্ট্রোল ছিল, দূর থেকে আগে সিগারেট হাতে থাকলেও মুরুব্বি দেখতে তা ফেলে দিলেও এখন আর তা হচ্ছেনা। টিচারদের ভয়ে আগে আমরা স্কুলে নিয়ম মেনে চলতাম এখনো সেই শিক্ষকদের দেখলে আমরা সালাম করি কিন্তু এখন সেই দিন হারিয়ে যাচ্ছে। শিক্ষকদেরকেও তাদের সম্মানের যায়গা অর্জন করে ধরে রাখতে হবে।

আইজিপি আরো বলেন, মানুষকে উদ্বুদ্ধ করতে আমরা চেষ্টা করছি এবং মানুষকে নিয়ে আমরা সামাজিক সমস্যা ও স্যোসাল ক্রাইম দূর করতে হবে। দ্রুত সমস্যা সমাধানে আমরা জরুরি সেবা নাম্বার ৯৯৯ খুলেছি। এটি চালু হবার পর দু বছরের মধ্যে আমরা পুলিশি, এ্যাম্বুলেন্স ও ফায়ার সার্ভিসের সেবা দিতে পারছি। ইতোমধ্যে অনেকগুলো অপরাধ হবার আগেই আমরা তা উদঘাটন করতে পেরেছি। আমাদের ১০০ টি ডেস্ক রয়েছে যেটি আমরা ৫শ সেন্টারে উন্নিত করতে চেষ্টা করছি। ইতোমধ্যে ৯৯৯ এর মাধ্যমে আমরা কয়েক কোটি কল রিসিভ করেছি, ৭৮ লাখ লোকজনকে সহযোগিতা করতে চেষ্টা করেছি। আমাদের প্রতিটি ডেস্ক সার্বক্ষণিক ব্যস্ত থাকে এবং সেখানে সবাই কল সেবা দিতে সর্বোচ্চ চেষ্টা করেন।


বিভাগ : আইন আদালত


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও