চিকিৎসা নিতে আসা নারীকে ধর্ষণ, ডাক্তারের বিরুদ্ধে মামলা

স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৯:৫১ পিএম, ১২ ফেব্রুয়ারি ২০২০ বুধবার

চিকিৎসা নিতে আসা নারীকে ধর্ষণ, ডাক্তারের বিরুদ্ধে মামলা

চিকিৎসা সেবা নিতে আসা নারীকে অচেতন করে ধর্ষণের অভিযোগে নারায়ণগঞ্জ ৩০০ শয্যা হাসপাতালের নাক, কান গলা বিভাগের রেজিস্টার ডা. আমিনুল ইসলামের বিরুদ্ধে মামলার আবেদন করা হয়েছে আদালতে।

এতে অভিযোগ করা হয়, প্রথম দফায় তাকে অচেতন করে ধর্ষণের পর সেই ভিডিও ধারণ করে সেটার ভয় দেখিয়ে পরবর্তীকে একাধিকবার চেকআপের নামে ধর্ষণ করা হয়েছে।

১২ ফেব্রুয়ারী বুধবার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন বিশেষ ট্রাইব্যুনালে ওই ভুক্তভোগী নারী এ মামলার আবেদন করেন। পরে শুনানী শেষে বিচারক মোঃ শাহীন উদ্দিন তদন্ত করে পুলিশ ব্যুরো ইনভিস্টিগেশনকে (পিবিআই) তদন্তের নির্দেশ নিয়েছেন আদালত।

ঘটনার বিবরণে জানা যায়, ফতুল্লার কাশীপুর এলাকার এক নারী বাসিন্দা দীর্ঘদিন ধরে থাইবোয়েড ক্যানসারে আক্রান্ত ছিল। ফলে ওই নারী তার চিকিৎসার জন্য শহরের খানপুরে গ্যাস্ট্রেলিভ ডায়াগনস্টিক অ্যান্ড কনসালষ্টেশন সেন্টারে ডাঃ আমিনুল ইসলামের চেম্বারে যান। প্রাথমিক পর্যায়ে ডাঃ আমিনুল ইসলাম ওই নারীকে শারীরিক পরীক্ষার টেস্ট ও কিছু ওষুধপত্র দেন।

ওই নারী ডাঃ আমিনুল ইসলামের পরামর্শ অনুযায়ী পর্যায়ক্রমে চিকিৎসা চালিয়ে যেতে থাকেন। চিকিৎসার একপর্যায়ে ২০১৯ সালের ১৩ জুলাই খাঁনপুর জোড়া টাংকি এলাকার ইউনিক ক্লিনিকে ইমার্জেন্সি ইনজেকশন দিয়ে ওই নারীর শরীর অবস করে ধর্ষণ করে ডাঃ আমিনুল ইসলাম। পরবর্তীতে আরও একবার ওই নারীকে ধর্ষণ করে আমিনুল ইসলাম। এই ঘটনায় থানায় মামলা নিতে না চাইলে ওই নারী আদালতের শরনাপন্ন হন।


বিভাগ : আইন আদালত


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও