১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫, শনিবার ২৬ মে ২০১৮ , ২:১৩ অপরাহ্ণ

ফের নারায়ণগঞ্জে মাছ দাম চড়া, বাড়ছে সবজির


সিটি করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ

প্রকাশিত : ০৯:১৭ পিএম, ৪ জানুয়ারি ২০১৮ বৃহস্পতিবার | আপডেট: ০৩:১৭ পিএম, ৪ জানুয়ারি ২০১৮ বৃহস্পতিবার


ফের নারায়ণগঞ্জে মাছ দাম চড়া, বাড়ছে সবজির

নারায়ণগঞ্জের দিগু বাবুর বাজারে সবজি বাজারে পণ্যের দর আবারো কিছুটা ঊর্ধ্বমুখী। এদিকে মীর জুমলা সড়কে উচ্ছেদ অভিযানের কারণে উত্তর মেরুর মাছ ব্যবসায়ীরা একচেটিয়ে চড়া দামে ব্যবসা করছে বলে ক্রেতারা অভিযোগ করেছে। অন্যদিকে মাংসের দাম অনেকটা স্থিতিশীল রয়েছে।

৪ জানুয়ারী বৃহস্পতিবার দুপুরে শহরের দিগু বাবুর বাজার ঘুরে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের নানা তথ্য পাওয়া যায়।

শহরে বিভিন্ন সড়কে হকার উচ্ছেদের ধারাবাহিকতায় মীর জুমলা সড়কের মাছ বাজারটি উচ্ছেদ করা হয়। এতে করে বাজারের উত্তর মেরুর মাছ বাজারের দোকানিরা বেশ চড়া দরে মাছ বিক্রি করতে দেখা যায়। আর অন্যদিকে বাজারের দক্ষিণ মেরুর মাছ বাজারের জায়গাটি সড়ক হিসেবে ব্যবহৃত হয়ে আসছে। তাই বাজারে আসা ক্রেতাদের মাছ কিনতে উত্তর মেরুর একমাত্র মাছ বাজারে যেতে হয়। আর সেখানে বেশ চড়া দামে মাছ কিনে অস্বস্তিতে পড়তে হয়।

মাছের মধ্যে ইলিশ মাছ আকারভেদে ৭শ থেকে ১২শ টাকা কেজিতে পর্যন্ত বিক্রি হয়। চিংড়ি মাছ ৪শ টাকা থেকে শুরু করে ৭ টাকা পর্যন্ত কেজিতে বিক্রি হয়। আইর মাছ ৭-৮শ টাকা কেজিতে বিক্রি হয়। শিং মাছ আকার ভেদে ৪শ থেকে ৫শ টাকা কেজিতে বিক্রি হয়। রুই মাছ ৩শ থেকে সাড়ে ৩শ, পাঙ্গাস মাছ ১শ ২০ টাকা, বোয়াল মাছ আকার ভেদে ৪-৬শ টাকা, মেনি মাছ আকার ভেদে সাড়ে ৩শ থেকে ৫শ টাকা, পাবদা মাছ ৩-৪শ টাকা, তেলাপিয়া মাছ ১শ ৩০ টাকা কেজিতে বিক্রি হয়।

মাছ বাজারের ক্রেতারা জানান, ‘মীর জুমলা সড়কের মাছ বাজারটি উচ্ছেদ করায় দিগু বাবু বাজারের একমাত্র মাছ বাজারের ব্যবসায়ীরা সুযোগ পেয়ে চড়া দামে মাছ বিক্রি করছে। আর ক্রেতাদের বাধ্য হয়ে মাছ কিনতে হচ্ছে। দিগু বাবুর বাজারের দুটি মাছ বাজারের মধ্যে একটি মাছের বাজার বন্ধ হয়ে যাওয়ার অন্য বাজারের মাছ ব্যবসায়ীরা এভাবে চড়া দামে মাছ বিক্রি করতে পারেনা। এটা মোটেও ঠিকনা।

সপ্তাহের ব্যবধানে সবজির দাম আবারো বাড়তে শুরু করেছে। সবজির মাধ্যে ঢেড়স, কহির দাম বেড়ে ৬০ টাকা হয়েছে। সীম কেজি প্রতি ২০ টাকা বৃদ্ধিতে ৪০-৬০ টাকার বিভিন্ন দামে বিক্রি হচ্ছে। ফুলকপির দাম কিছুটা বেড়ে একজোড়া ফুলকপি আকার ভেদে ৪০-৬০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। টমেটো ভিন্ন ভিন্ন জাত ভেদে ২০ টাকা থেকে শুরু করে ৭০ টাকা কেজিতে বিক্রি হচ্ছে। বরবটি আবারো ৮০ টাকা কেজিতে বিক্রি হচ্ছে। বেগুণ ভিন্ন ভিন্ন জাত ভেদে ২০-৪০ টাকা  কেজিতে বিক্রি হচ্ছে। লাউ প্রতি পিছ আকার ভেদে ৪০-৬০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

পেঁয়াজের দাম কিছুটা কমে দেশি পেঁয়াজের পাল্লা (৫ কেজি) হয়েছে ৩শ ২০-৫০ টাকা, নতুন আলুর পাল্লা ৯০ থেকে ১শ টাকা, আদা ৭০-১শ টাকা, রসুন ৬০-৭০ টাকা, ধনে পাতা ৬০টাকা, কাঁচা মরিচ ৬০-৮০ টাকা, শশা, ক্ষিরাই ৪০ টাকা, গাজর ৫০ টাকা কেজিতে বিক্রি হচ্ছে।

মাংসের মাজার সেই আগের চড়া দামেই রয়েছে। গরুর মাংস ৫শ টাকা, বরকির মাংস ৬শ টাকা, খাসির মাংস ৭শ টাকা কেজিতে বিক্রি হচ্ছে। বয়লার মুরগির মাংসের দাম কিছুটা বেড়ে ১শ ৩৫-৪০ টাকা  হয়েছে। লাল লেয়ার মুরগির মাংসের দাম ১শ ৬০ টাকা কেজি হয়েছে। কক মুরগির মাংসের দাম আবারো কিছুটা বেড়ে ২শ ২০ টাকা হয়েছে ।

নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
Shirt Piece

অর্থনীতি -এর সর্বশেষ