৫ মাঘ ১৪২৪, শুক্রবার ১৯ জানুয়ারি ২০১৮ , ১১:২৪ পূর্বাহ্ণ

নারায়ণগঞ্জের ব্যবসায়ী সংগঠনগুলো ঠুটো জগন্নাথ


সিটি করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ

প্রকাশিত : ০৮:৪৯ পিএম, ৯ জানুয়ারি ২০১৮ মঙ্গলবার | আপডেট: ০২:৪৯ পিএম, ৯ জানুয়ারি ২০১৮ মঙ্গলবার


নারায়ণগঞ্জের ব্যবসায়ী সংগঠনগুলো ঠুটো জগন্নাথ

নারায়ণগঞ্জের ব্যবসায়ী সংগঠনগুলোতে যোগ্য ব্যক্তিদের নেতৃত্ব স্থানে আসীন করা হলেও এসব সংগঠনের অনেক ক্ষেত্রে প্রতারণার আশ্রয় নিচ্ছে অনেক নামধারী ব্যবসায়ী। তারা এসব প্রতিষ্ঠান থেকে কোন এক বছরে সনদ নিয়ে সেগুলোকে নিয়মিত দাবী করে বিভিন্ন স্থানে প্রতারণা করে যাচ্ছে। এমনকি আদালতেও এসব ভুয়া কাগজপত্র দাখিল করে যাচ্ছে।

বিষয়গুলো ওইসব ব্যবসায়ী সংগঠনের কর্তাব্যক্তিদের অভিহিত করা হলেও তারা কোন ব্যবস্থা নিচ্ছে না। এতে করে আরো নানা ধরনের প্রশ্নের উদ্বেগ দেখা দিয়েছে।

জানা গেছে, নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার ফতুল্লা কুড়েরপাড় এলাকার মো. ফালান মিয়ার ছেলে সায়েম আহমেদ বাদী হয়ে সম্প্রতি আদালতে দায়ের করেন। সায়েম মামলার আর্জিতে নিজেকে এনএন নিটিং ও এনএন কন্সট্রাকশনের স্বত্বাধিকারী, বাংলাদেশ হোসিয়ারী অ্যাসোসিয়েশন, ইয়ার্ন মার্চেন্ট অ্যাসোসিয়েশন এবং বাংলাদেশ চেম্বার কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির সদস্য দাবী করেছেন। তবে আদালতে দাখিল করা ইয়ার্ন মার্চেন্টের সদস্য প্রমাণ পত্রের নথিতে দেখা গেছে ২০১৫ সালের ৩০ জুন মেয়াদ শেষ হয়। অপরদিকে চেম্বারের নথিতেও দেখা যায় ২০১৩ সালের ৩১ ডিসেম্বর সদস্য বলবৎ ছিল।

এদিকে সায়েম নিজেকে নারায়ণগঞ্জ চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিজ, বাংলাদেশ ইয়ান মার্চেন্ট এসোসিয়েশন (সুতা ব্যবসায়ীদের সংগঠন) ও বাংলাদেশ হোসিয়ারী এসোসিয়েশনের সদস্য হিসেবে পরিচয় দিয়ে আদালতে মামলা দায়ের করলেও খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, মিথ্যা তথ্য দিয়ে ওইসকল সংগঠনে সদস্য হলেও পরবর্তীতে তার সদস্যপদ বাতিল করা হয়েছে। একটি থান কাপড়ের দোকান ভাড়া নিয়ে নিজেকে নিটিং কারখানার অর্থাৎ শিল্পপ্রতিষ্ঠানের মালিক পরিচয় দিয়ে ওইসকল সংগঠনের সদস্যপদ নিয়েছিল সায়েম।

বাংলাদেশ হোসিয়ারী এসোসিয়েশনের সচিব সবদার হোসেন জানান, ইতিপূর্বে থান কাপড়ের বেশ কিছু ব্যবসায়ী আমাদের সংগঠনের সদস্য হয়েছিল। পরবর্তীতে তাদের সদস্যপদ বাতিল করা হয়েছে।

বাংলাদেশ ইয়ান মার্চেন্ট এসোসিয়েশনের (সুতা ব্যবসায়ীদের সংগঠন) সহকারী সচিব মোঃ মাসুম জানান, সায়েমের মালিকানাধীন এন এন নিটিং এর নামে কোন সদস্যপদ গত ৩ বছর ধরে আমাদের সংগঠনে নেই। এর আগে অনেকেই নিটিং এর মালিক পরিচয় দিয়ে আমাদের সংগঠনের সদস্য হয়েছিল। তবে তাদের সদস্যপদ পরে বাতিল করা হয়েছে। এছাড়া ইয়ার্ন মার্চেন্টের সদস্য হতে হলে তাকে অবশ্যই সুতা ব্যবসায়ী হতে হবে।

নারায়ণগঞ্জ চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি খালেদ হায়দার খান কাজল বলেন, ‘২০১৩ এর সনদে কখনো বৈধ সদস্য না। আমাদের চেম্বারের নিয়ম অনুযায়ী প্রতিবছর নবায়ন করতে হয়। যেহেতু নতুন নবায়ন সনদ নেই সেহেতু অবৈধ সদস্য।’

২০১৩ সনদ ব্যবহার করে সদস্য দাবি করা প্রতারণার শামিল কি না প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, ‘অস্ত্রের লাইসেন্স যেমন প্রতিবছর বছর নবায়ন করতে হয়। না হলে যেমন অবৈধ তেমনি চেম্বারের সদস্য পদ নবায়ন করতে হবে। অন্যথায় অবৈধ সদস্য।’

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, সায়েমের বিরুদ্ধে নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানায় গত ২৪ এপ্রিল চাঁদাবাজী, মারামারি, হত্যার উদ্দেশ্যে গুম সহ বিভিন্ন অভিযোগে একটি মামলা হয়। মামলা নং ৬১। এছাড়াও নারায়ণগঞ্জ সদর থানায় ২০১৩ সালের ২০ জুন আরো একটি মামলা হয় যেখানে তার বিরুদ্ধে চুরি, ছিনতাই, চাঁদাবাজীর অভিযোগ আনা হয়েছিল। মামলা নং-২৬। মুন্সিগঞ্জ সদর থানায় চাঁদাবাজী, হত্যার চেষ্টা, মারধর, চাঁদা আদায় সহ বিভিন্ন অভিযোগে ২০১৫ সালের ২৯ জুন একটি মামলা হয়। মামলা নং -৭৬।

ভূমিদস্যুতার বিষয়টি আড়াল করতেই ও প্রশাসনের কাছে নিজেকে ব্যবসায়ী পরিচয় দিতে মিথ্যা পরিচয় দিয়ে ওই সকল সংগঠনের সদস্য হয়েছিল বলে অভিযোগ করেছেন স্থানীয় ক্ষতিগ্রস্তদের অনেকে।

নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
Shirt Piece

অর্থনীতি -এর সর্বশেষ