নারায়ণগঞ্জে প্রথম বর্জ্য বিদ্যুৎ কেন্দ্র, সমঝোতা স্মারক সই

সিটি করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ১০:৫২ পিএম, ২১ মার্চ ২০১৮ বুধবার



ছবি বিডি নিউজ হতে নেওয়া
ছবি বিডি নিউজ হতে নেওয়া

দেশের প্রথম বর্জ্যভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্র হচ্ছে নারায়ণগঞ্জে। মহানগগরের জালকুড়ি এলাকায় এই বর্জ্য বিদ্যুৎ কেন্দ্র স্থাপনে ২১ মার্চ বুধবার বিদ্যুৎ ও জ্বালানি প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ এবং নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের মেয়র সেলিনা হায়াৎ আইভীর মধ্যে একটি সমঝোতা স্মারক সই হয়। এর মধ্য দিয়ে বিদ্যুৎ উৎপাদনের নতুন অধ্যায়ে প্রবেশ করতে যাচ্ছে বাংলাদেশ। ইতোমধ্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রকল্প বাস্তবায়নে ১০ একর জমি বরাদ্দের অনুমতি দিয়েছেন।

সমঝোতা অনুযায়ী নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের বর্জ্য দিয়ে তিন থেকে পাঁচ মেগাওয়াটের একটি কেন্দ্র নির্মাণ করবে পিডিবি। এজন্য নারায়ণগঞ্জের জালকুরিতে ১০ একর জমি বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। আগামী ১৫ এপ্রিলের মধ্যে কেন্দ্র নির্মাণের জন্য দরপত্র আহ্বান করবে পিডিবি।

বিদ্যুৎ ভবনে সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে প্রতিমন্ত্রী বলেন, “আমরা কয়েক বছর ধরে দেশের সিটি কর্পোরেশনগুলোতে বর্জ্যভিত্তিক বিদ্যুৎ প্লান্ট বসানোর চিন্তা-ভাবনা করছিলাম। (সিটি কর্পোরেশনের) মেয়রদের সঙ্গে এ বিষয়ে আলাপ আলোচনাও হয়েছে। নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন প্রথম এগিয়ে এসেছে। আশা করি, সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে আগামী ১৫ এপ্রিলের মধ্যে (প্রকল্পের) টেন্ডার আহ্বান হবে।”

নারায়ণগঞ্জের পর অন্য নগরীগুলোতেও এই ধরনের বিদ্যুৎকেন্দ্র স্থাপনের পরিকল্পনা সরকারের রয়েছে বলে জানান তিনি।

নারায়ণগঞ্জে প্রস্তাবিত বিদ্যুৎ কেন্দ্রটি হবে ৩-৫ মেগাওয়াট ক্ষমতা সম্পন্ন। এই পরিমাণ বিদ্যুৎ উৎপাদনের জন্য প্রতিদিন প্রয়োজন পড়বে ৩০০-৫০০ মেট্রিক টন ‘সলিড’ বর্জ্য।

বর্জ্য ব্যবস্থাপনা নিয়ে হিমশিম খাওয়া সিটি করপোরেশন এর মধ্য দিয়ে একটা সমাধান খুঁজে পাবে বলে আশা করছেন মেয়র আইভী। তিনি বলেন, “নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের একটা বড় সমস্যা হল বর্জ্য। বর্জ্যরে কারণে শহরে ফাঁকা জায়গা, মাঠ দিন দিন কমে যাচ্ছে। এই প্রজেক্ট বাস্তবায়ন হলে বর্জ্য ব্যবস্থাপনা সুন্দর হবে।”

আইভি বলেন, ‘দুই বছর আগে বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী সিটি করপোরেশনগুলোর বর্জ্য দিয়ে বিদ্যুৎকেন্দ্র করার লক্ষ্যে মেয়রদের সঙ্গে বৈঠক করেন। ওই সময় অন্যান্য সিটি করপোরেশনের মেয়ররা বিদ্যুৎ বিভাগের বিষয়টির সঙ্গে একমত না হলেও আমি সম্মত ছিলাম। কারণ আমি চাই বর্জ্য ব্যবস্থাপনার  মাধ্যমে বিদ্যুৎ উৎপাদন হোক।’

আইভী প্রতিমন্ত্রীর প্রতি আহবান জানান যাতে দ্রুত প্রকল্পটি বাস্তবায়ন হয়। কোন কারণে যেন মাঝপথে বর্জ্য বিদ্যুৎকেন্দ্রটি ঝুলে না থাকে।

তিনি বলেন, ‘দেশের সব সিটি করপোরেশন বা পৌরসভায় যেন ময়লা ব্যবস্থাপনার জন্য সরকার জমির ব্যবস্থা করে সে বিষয়ে যাতে উদ্যোগ নেওয়া হয়। তিনি প্রতিমন্ত্রীকে বলেন প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনা করে ময়লা ব্যবস্থাপনার জন্য জমির ব্যবস্থা করতে। তাতে দেশের সবগুলো সিটি করপোরেশন বা পৌরসভা উপকৃত হবে।’


বিভাগ : অর্থনীতি


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও