৫৯৮ কোটি কেলেংকারী : জহির কারাগারে দেশ ছেড়েছেন তাপস সহ অনেকে

৪ ভাদ্র ১৪২৫, রবিবার ১৯ আগস্ট ২০১৮ , ৫:১৮ অপরাহ্ণ

৫৯৮ কোটি কেলেংকারী : জহির কারাগারে দেশ ছেড়েছেন তাপস সহ অনেকে


সিটি করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ

প্রকাশিত : ০৮:৪২ পিএম, ৮ মে ২০১৮ মঙ্গলবার | আপডেট: ০২:৪২ পিএম, ৮ মে ২০১৮ মঙ্গলবার


৫৯৮ কোটি কেলেংকারী : জহির কারাগারে দেশ ছেড়েছেন তাপস সহ অনেকে

সরকারী কর্মকর্তাদের সঙ্গে যোগসাজশের মাধ্যমে দলিল জালিয়াতি, ঘুষ কেলেংকারীসহ নানাভাবে সোনালী ব্যাংক নারায়ণগঞ্জ কর্পোরেট শাখা থেকে ৪৩ কোটি ২১ লাখ টাকা লোপাটের অভিযোগে দায়েরকৃত মামলায় মেসার্স লিজেন্ড ফাইভ অ্যাটায়ার্স লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক খেলাঘর কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক জহিরুল ইসলাম গ্রেফতারের পরে কারাগারে গেলেও অনেক আগেই দেশ ছেড়েছেন তার অন্যতম সহযোগী কারখানাটির পরিচালক তাপস কুমার সাহা। এছাড়া ওই মামলার আসামীদের অনেকেই ইতোমধ্যে দেশ ছেড়েছেন বলে খবর পাওয়া গেছে। এছাড়া যারাই দেশে রয়েছেন তারাও রয়েছেন আত্মগোপনে।

জানা গেছে, ২০১০ সালের ১১ ফেব্রুয়ারী জাল দলিল, ঘুষ লেনদেনের মাধ্যমে ৫৯৮ কোটি টাকা লোপাটসহ দুর্নীতির অভিযোগ এনে সোনালী ব্যাংক নারায়ণগঞ্জ করপোরেট শাখার সাবেক প্রিন্সিপাল অফিসারসহ ৪ কর্মকর্তা এবং কয়েকটি গার্মেন্টের ১৬ জন মালিকের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন ব্যাংকের তৎকালীন এজিএম সফিজ উদ্দিন আহমেদ।

মামলাটি ২০১৩ সালের ১৪ জুলাই হাইকোর্টের নির্দেশে স্থগিত করা হলেও ২০১৭ সালের ১০ ফেব্রুয়ারী স্থগিতাদেশ শেষ হয়। প্রথমে মামলাটি সদর মডেল থানার এসআই ইমদাদুল হক তদন্ত করলেও পরবর্তীতে আদালতের নির্দেশে দুদকের উপ পরিচালক মো. বেনজীর আহমেদ মামলার তদন্ত শেষে ২০১৭ সালের ১৮ সেপ্টেম্বর নারায়ণগঞ্জ চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে ১৯ জনকে অভিযুক্ত করে চার্জশিট দাখিল করেন। চলতি বছরের ৭ জানুয়ারী সিডিসহ মামলাটির নথি নারায়ণগঞ্জ সিনিয়র স্পেশাল ট্রাইব্যুনালে দাখিল করা হয়। মামলার আসামীরা হলেন, সোনালী ব্যাংকের সাবেক প্রিন্সিপাল অফিসার মোঃ নুরুজ্জামান, সাবেক সিনিয়র অফিসার বাহার আলী হাওলাদার, সাবেক অফিসার বিমল কৃষ্ণ দাস, মেসার্স লিজেন্ড ফাইভ অ্যাটায়ার্স লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) মো. জহিরুল ইসলাম, পরিচালক রবীন্দ্রনাথ ধর, বিশ্বাস খালেদ হোসাইন, তাপস কুমার সাহা, মোঃ হোসাইন, মেসার্স আই এন নিটওয়্যার এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) কাজী নজরুল ইসলাম, মেসার্স ইউনিটি নিটওয়্যার এর মালিক মজিবুর রহমান সোহেল, মোঃ ইলিয়াছ সরকার, মেসার্স ড্রিম অ্যাপারেলস এর চেয়ারম্যান হারুন অর রশিদ, মেসার্স ওবায়েদ নিট ওয়্যার এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) মোঃ ওবায়দুর রহমান, চেয়ারম্যান আব্দুর রাশেদ, মেসার্স কেপিএফ টেক্সটাইল আতাউর রহমান, মেসার্স কেএমএস ডিজাইন এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) মিজানুর রহমান।

যার মধ্যে ৪৩ কোটি ২১ লাখ টাকা লোপাটের অভিযোগ দায়েরকৃত মামলায় খেলাঘর কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক জহিরুল ইসলামকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। রোববার রাতে তাকে শহরের ১৮নং ওয়ার্ডের শীতলক্ষ্যা এলাকার নিজ বাসা থেকে গ্রেফতারের পরে সোমবার (৭ মে) দুপুরে নারায়ণগঞ্জ অতিরিক্ত চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট অশোক কুমার দত্তের আদালতে হাজির করা হলে আদালত তার জামিন না মঞ্জুর করে জেলহাজতে প্রেরণের নির্দেশ দেন।

গ্রেফতারকৃত জহিরুল ইসলাম শহরের ১৮নং ওয়ার্ডের শীতলক্ষ্যা এলাকার ২০/১ বিকে রোডের বাসিন্দা ছিলেন। তিনি মেসার্স লিজেন্ড ফাইভ অ্যাটায়ার্স লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক পদে ছিলেন। জহিরুল বর্তমানে খেলাঘর আসর কেন্দ্রীয় কমিটির সম্পাদক পদে রয়েছেন। এর আগে তিনি দীর্ঘদিন নারায়ণগঞ্জ খেলাঘর আসরের সেক্রেটারী পদে ছাড়া নারায়ণগঞ্জ সাংস্কৃতিক জোটেরও সক্রিয় নেতা ছিলেন।

এদিকে মামলার আসামীদের মধ্যে মেসার্স লিজেন্ড ফাইভ অ্যাটায়ার্স লিমিটেডের পরিচালক তাপস কুমার সাহা ইতিমধ্যে আমেরিকায় পাড়ি জমিয়েছেন। এছাড়া আরো কয়েকজন দেশের বাহিরে চলে গেছেন বলে শোনা যাচ্ছে। কয়েকজন বেশ কয়েকবছর আগেই নারায়ণগঞ্জ ছেড়ে অন্য জেলার বাসিন্দা হয়েছেন।

নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
Shirt Piece

অর্থনীতি -এর সর্বশেষ