১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫, শুক্রবার ২৫ মে ২০১৮ , ৫:০৫ অপরাহ্ণ

চালের দাম কমলেও অস্বস্তি, আটার দাম বৃদ্ধিতেও স্বস্তি


স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ

প্রকাশিত : ০৯:১৮ পিএম, ১৩ মে ২০১৮ রবিবার | আপডেট: ০৩:১৮ পিএম, ১৩ মে ২০১৮ রবিবার


চালের দাম কমলেও অস্বস্তি, আটার দাম বৃদ্ধিতেও স্বস্তি

নারায়ণগঞ্জে নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্যের মধ্যে আটার দাম কিছুটা বাড়লেও চালের দাম কমেছে। তবে চালের দাম কেজি প্রতি মাত্র ১ টাকা কমলেও এখনো সাধারণ মানুষের নাগালের বাইরে রয়েছে। অন্যদিকে আটার দাম কেজি প্রতি ১ থেকে ২ টাকা বাড়লেও তা এখনো সাধারণ মানুষের নাগালের মধ্যে রয়েছে বলে জানাগেছে।

সম্প্রতি শহরের নিতাইগঞ্জ এলাকা ঘুরে চাল ও আটার দরের নানা তথ্য পাওয়া যায়।

জানা গেছে, আটা মানের ভিন্নতা ভেদে বিভিন্ন নামে বিক্রি হয়ে থাকে। বাসা বাড়িতে রুটি তৈরিতে ব্যবহৃত আটার দাম কেজি প্রতি ১-২ টাকা বৃদ্ধিতে এখন ২২-২৫ টাকায় কেজিতে বিক্রি হচ্ছে যা পাইকারী বাজারে ৫০ কেজির বস্তা হিসেবে ১১শ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। আর বেকারীতে বিভিন্ন পণ্য তৈরিতে উন্নত মানের ময়দার দাম কেজি প্রতি ২-৩ টাকা বৃদ্ধিতে ৩০-৩৫ টাকা কেজিতে যা ৭৪ কেজির বস্তা ২২শ থেকে ২৫শ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। এছাড়াও সুজি আটা কেজি প্রতি ১ টাকা বৃদ্ধিতে ২২-২৫ টাকা কেজিতে বিক্রি হচ্ছে।

শীতল ফ্লাওয়ার মিলের মালিক মো. আমিনুর রহমান অপু জানান, ‘বেকারীর ময়দা ব্যাতিত অন্য সকল আটা-ময়দার দাম দ্রুত পরিবর্তনশীল। তাই যারা আগের মালামাল এখন সরবরাহ করছে তাদের সাথে দামের পার্থক্য থাকতে পারে। স্বাভাবিকভাবে শীতের মৌসুমে আটা ময়দার দাম ও চাহিদা বেড়ে যায়। কিন্তু এই শীতকালীন মৌসুমে আটা-ময়দার দামচাহিদা কোনটি বাড়েনি। তবে এখন দাম কিছুটা বাড়লেও তা সাধারণ মানুষের নাগালের মধ্যে রয়েছে। তবে বিভিন্ন কারণে এখন ব্যবসা মন্দা চলছে। বিশেষ করে সিন্ডিকেট সহ ব্যাংক ঋণ ও তারল্যের অভাবে এই ব্যবসায়ে এখন মন্দাভাব দেখা দিচ্ছে।

এদিকে চালের পাইকারী বাজারে দাম কমলেও খোলা বাজারে এখনো তেমন কোন দাম কমেনি। মিনিকেট চাল ৫০ কেজির বস্তা প্রতি ৫০-১০০ টাকা কমে এখন সাড়ে ২৮শ টাকা থেকে সাড়ে ২৯শ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। চালের মধ্যে লতা চালের দাম সবচেয়ে বেশি কমেছে। লতা চাল বস্তা প্রতি দেড়শ থেকে ২শ টাকা কমে এখন ২২শ থেকে ২২শ ১০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। চিকন নাজিরশাইল চাল বস্তা প্রতি ১শ টাকা কমে ২৮শ থেকে ২৯শ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। মোটা নাজির চাল বস্তা প্রতি ১শ টাকা কমে ২১শ ২০-৫০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। চিকন স্বর্ণা চাল বস্তা প্রতি প্রায় ১শ টাকা কমে এখন ১৮শ ২০-৬০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। তবে মোটা স্বর্ণা চাল সেই আগের দামেই ১৭শ ২০-৬০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। দেশি বাসমতি চালের ২৫ কেজির বস্তা ১৮শ থেকে সাড়ে ১৮শ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

এদিকে ভোক্তারা বলছেন, ‘আটার দাম বাড়লেও তা সাধ্যের মধ্যে রয়েছে। কারণ ২৫-২৬ টাকা কেজিতে আটা বিক্রি হচ্ছে যা সাধ্যের মধ্যে রয়েছে। অন্যদিকে চালের দাম ৬৫-৭০ টাকা কেজিতে বিক্রি হচ্ছে। এর মধ্যে যদি ১-২ টাকা কেজি প্রতি দাম  কমে তাতেও কোন মুনাফা হচ্ছেনা। এখনো চালের দাম সেই চড়া দামের নাগালের বাইরে রয়েগেছে। তাই এখনো চালের দাম নিয়ে ভোক্তাদের দুর্ভোগ রয়েই গেছে।

নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
Shirt Piece

অর্থনীতি -এর সর্বশেষ