শ্রমিকদের ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসী দিয়ে মারধরের অভিযোগ, ভাঙচুর

ফতুল্লা করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ১১:১২ পিএম, ২৭ মে ২০১৮ রবিবার

শ্রমিকদের ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসী দিয়ে মারধরের অভিযোগ, ভাঙচুর

নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার ফতুল্লায় একটি রপ্তানীমুখী পোশাক কারখানা বন্ধের আতংকে বিক্ষোভ করেছে ৮ শতাধিক শ্রমিক। এসময় শ্রমিকদেরকে ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসী দিয়ে মারধর ও হুমকির অভিযোগে ব্যাপক ভাংচুরের ঘটনা ঘটে। এতে পুলিশের মারধরে একজন নারী শ্রমিক আহত হয়েছে বলে শ্রমিকদের দাবী।

২৭ মে রোববার রাত ৭টা থেকে সাড়ে ৯টা পর্যন্ত ফতুল্লার ইসদাইর এলাকায় অবস্থিত অ্যাসরোটেক্স ইউনিট-২ গার্মেন্টে এঘটনা ঘটে। পরে পুলিশ ও মালিক পক্ষের আশ্বাসে শ্রমিকরা শান্ত হয়।

বিক্ষুদ্ধ শ্রমিকেরা জানান, কারখানায় যেসব শ্রমিকেরা ন্যায্য পাওনায় প্রতিবাদ করত তাদের মধ্যে রোববার দুপুরে ৮জন শ্রমিককে শ্রম আইন অনুযায়ী পাওনা দিয়ে বিদায় করে দেয়। এরপর মালিক পক্ষের কেউ কেউ শ্রমিকদের জানায় যেকোন সময় কারখানা বন্ধ হয়ে যাবে। এতে ইফতারের পর থেকে শ্রমিকদের মধ্যে উত্তেজনা শুরু হয়।

শ্রমিকদের দাবী এ উত্তেজনা থামাতে মালিক পক্ষ ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসী কারখানায় এনে শ্রমিকদের হুমকি দেয়। এতে শ্রমিকরা আরো উত্তেজিত হয়ে উঠলে পুলিশ এনে শ্রমিকদের মারধর করা হয়। এতে ফাতেমা নামে এক নারী শ্রমিক আহত হয়েছে।

ঘটনাস্থলে যাওয়া ফতুল্লা মডেল থানা পুলিশের পরিদর্শক (আইসিপি) গোলাম মোস্তফা জানান, খবর পেয়ে ওই কারখানায় গিয়ে শিল্প পুলিশদের পেয়েছি। আমার জানা মতে পুলিশ কোন শ্রমিককে মারধর করেনি। তবে কারখানার বিভিন্ন ফ্লোর ভাংচুরের আলামত পেয়েছি। পরে মালিক পক্ষকে নিয়ে শ্রমিকদের আশ্বস্ত করে বলেছি কারখানা বন্ধ হবেনা। যদি মালিক কোন শ্রমিককে ছাটাই করে তাহলে শ্রম আইন অনুযায়ী করবে। এতে শ্রমিকরা শান্ত হয়েছে। এবিষয়ে মালিক পক্ষের সাথে সরাসরি যোগাযোগ করা হলেও কেউ কোন বক্তব্য দেয়নি।


বিভাগ : অর্থনীতি


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও