৬ অগ্রাহায়ণ ১৪২৫, মঙ্গলবার ২০ নভেম্বর ২০১৮ , ৬:১৯ অপরাহ্ণ

rabbhaban

সন্ত্রাসীদের মহড়ায় আতঙ্কে লক্ষ্মীনারায়ণ কটন মিলের শ্রমিকরা


সিটি করেসপন্ডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ

প্রকাশিত : ০৯:১৪ পিএম, ৮ নভেম্বর ২০১৮ বৃহস্পতিবার


সন্ত্রাসীদের মহড়ায় আতঙ্কে লক্ষ্মীনারায়ণ কটন মিলের শ্রমিকরা

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের ১০ নং ওয়ার্ডের সিদ্ধিরগঞ্জের গোদনাইলে অবস্থিত নিউ লক্ষ্মী নারায়ণ কটন মিলের অভ্যন্তরে অস্ত্রধারী বহিরাগত সন্ত্রাসীদের অব্যাহত মহড়ায় আতঙ্ক দেখা দিয়েছে আন্দোলনকারী শেয়ারহোল্ডারদের মধ্যে। যেকোন সময় সন্ত্রাসীরা হামলা চালাতে পারে এমন আশঙ্কায় চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন তারা। বিশেষ করে গত কয়েকদিন ধরেই মিলটিতে অস্ত্রধারী বহিরাগত সন্ত্রাসীদের আনাগোনা বৃদ্ধি পাওয়ায় শেয়ারহোল্ডারদের মধ্যে আতঙ্ক দেখা দিয়েছে। গত ৫ বছর ধরেই শেয়ারহোল্ডাররা মানবেতর জীবনযাপন করছেন। ৫ বছর ধরেই গ্যাস ও বিদ্যুৎ হীনতায় মিলটির অভ্যন্তরে শেয়ারহোল্ডারদের কলোনীতে বিরাজ করছে ভুতুড়ে পরিবেশ। এর মধ্যেই আবার বিরাজ করছে উচ্ছেদ আতঙ্ক। কয়েকদিন আগে নিরীহ শেয়ারহোল্ডাররা মিলটির পরিচালনা পর্ষদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান ও নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসক রাব্বি মিয়ার সুদৃষ্টি কামনা করে একাধিকবার সভায় মিলিত হলেও নেয়া হয়নি কোন ধরনের কার্যকরী পদক্ষেপ। যেকারণে আতঙ্ক কমছেনা ভুক্তভোগীদের।

আন্দোলনরত শেয়ারহোল্ডাররা জানান, ২০০১ সালে ২১ মার্চ ৫১০ জন শেয়ার হোল্ডারদের মালিক বানিয়ে মিলটি হস্তান্তর করে তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন সরকার। পরে পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যান শামসুদ্দিন প্রধানের নেতৃত্বাধীন পরিচালনা পর্ষদ দীর্ঘ এক যুগ ধরে ব্যাপক অনিয়ম ও দুর্নীতি করে বলে অভিযোগ শেয়ারহোল্ডারদের। সাবেক পরিচালনা পর্ষদ মিলটিতে একজন বিনিয়োগকারী নিয়োগের কথা বলে প্রতারণার মাধ্যমে ৩৮২ জনের শেয়ার হাতিয়ে নিয়ে নিট কনসার্ন গ্রুপের কাছে হস্তান্তর করে। ১৮ একর ৬৫ শতাংশের উপর গড়ে ওঠা শতবছরের পুরনো এই মিলটির আনুমানিক মূল্য ৭০০ কোটি টাকা হলেও মাত্র ৩৫ কোটি টাকায় মিলটি দখলে নেয়ার চেষ্টা করছে নিট কনসার্ন গ্রুপের জয়নাল আবেদীন মোল্লা ও তার লোকজন এমনটিই অভিযোগ শেয়ারহোল্ডারদের। ৫৩ জন শেয়ারহোল্ডার শেয়ার বিক্রি করতে রাজী না হওয়ায় তাদের উপর ৪ বছর ধরে চালানো হয়েছে নির্যাতনের স্টীম রোলার। চার বছরে ধরে শেয়ারহোল্ডারদের কলোনীতে গ্যাস ও বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন রয়েছে। ২০১৩ সালের ৩১ আগষ্ট বকেয়া বিলের অজুহাতে মিলের বিদ্যুৎ, গ্যাস ও পানির সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেয় মিলের দুর্নীতিবাজ পরিচালনা পর্ষদ। সন্ত্রাসীরা প্রকাশ্য দিবালোকে অস্ত্র নিয়ে হামলাও চালিয়েছে। ২০১৪ সালের ২১ অক্টোবর পরিচালনা পর্ষদের লোকজন শেয়ারহোল্ডারদের কলোনীতে আগুন ধরিয়ে দেয়। এতে এতে পুড়ে যায় শেয়ারহোল্ডার স্বার্থ রক্ষা সংগ্রাম কমিটির আহবায়ক মোহাম্মদ হোসেন, আব্দুর রশিদ, নিরঞ্জন দাস ও সুশীল বাড়ৈ এর ঘর। মিলটির শেয়ারহোল্ডার স্বার্থ রক্ষা সংগ্রাম কমিটির আহবায়ক মোহাম্মদ হোসেনের রিট পিটিশন অনুযায়ী ২০১৫ সালের ২১ জানুয়ারী হাইকোর্ট ডিভিশন বেঞ্চের জাস্টিস মোঃ রেজাউল হাসান নির্বাচন দেয়ার আদেশ দেন। নির্বাচন না হওয়া পর্যন্ত নিরপেক্ষ হিসেবে নারায়ণগঞ্জের জেলা প্রশাসককে পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যান পদে ও শেয়ারহোল্ডারদের সরাসরি ভোটে পরিচালনা পর্ষদের পরিচালক পদে নির্বাচনের নির্দেশ দিয়েছেন। পরে ১১ এপ্রিল জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে বার্ষিক সাধারণ সভা আহবান করেন জেলা প্রশাসক। ওই দিন অবৈধ পরিচালনা পর্ষদের সন্ত্রাসী বাহিনী শেয়ারহোল্ডারদের সম্মেলনকক্ষে প্রবেশে বাধাঁ দেয়। এতে করে শেয়ারহোল্ডাররা বার্ষিক সাধারণ সভায় প্রবেশ না করে বাহিরেই অবস্থান নেন। পরে জেলা প্রশাসক নিট কনসার্ন গ্রুপের শেয়ার হস্তান্তরের কাগজপত্র যাচাই বাছাই করে তাতে জয়েন্ট স্টক রেজিষ্টারের বৈধতা না পাওয়ায় বার্ষিক সাধারণ সভা স্থগিত করেন।

এদিকে আন্দোলনরত শেয়ারহোল্ডারদের সঙ্গে চলতি বছরের ২২ মার্চ বিকেলে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সম্মেলনকক্ষে মতবিনিময় করেছেন মিলটির বর্তমান ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান জেলা প্রশাসক রাব্বি মিয়া যিনি আদালতের নির্দেশে ওই মিলটির চেয়ারম্যান পদেও আসীন রয়েছেন। এসময় তিনি আন্দোলতরত শেয়ারহোল্ডারদের বিভিন্ন বক্তব্য শোনেন এবং বিবদমান দুই পক্ষকে নিয়ে শীঘ্রই বৈঠকের মাধ্যমে বিষয়টি সমাধান করার আশ্বাস দেন। এছাড়া শেয়ারহোল্ডারদের কলোনীতে বিদ্যুৎ সংযোগ দ্রুত লাগিয়ে দেয়ার বিষয়েও পদক্ষেপ নিবেন বলে আশ্বস্ত করেন। কয়েক মাস আগেও জেলা প্রশাসকের কাছে দ্বারস্থ হয়েছিলেন আন্দোলনরত শেয়ারহোল্ডাররা। তারা মিলটির বর্তমান অবস্থা তুলে ধরে জেলা প্রশাসককে জানান, হাইকোর্ট মিলটির স্থাবর ও অস্থাবর সম্পদ ভাঙচুরে নিষেধাজ্ঞা জারি করলেও তাতে কোনরূপ কর্ণপাত করেনি নিট কনসার্ন গ্রুপের মালিকপক্ষ ও তাদের লোকজন। ইতিমধ্যে মিলটির বেশীরভাগ স্থাপনা ভেঙ্গে বিরানভূমিতে পরিণত করা হয়েছে। গাছ কেটে ফেলা হয়েছে। ৪ বছর ধরে শেয়ারহোল্ডারদের কলোনীতে ষড়যন্ত্রের মাধ্যমে গ্যাস, বিদ্যুৎ ও পানির সংযোগ বিচ্ছিন্ন রয়েছে। কলোনীতে বসবাসতরত শ্রমিকদের উচ্ছেদে হামলা মামলা অগ্নিসংযোগও করেছে নিট কনসার্ন গ্রুপের নিয়োজিত অবৈধ অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীরা। এখনো মিলটিতে অবৈধ অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীরা প্রতিনিয়ত মহড়া দিচ্ছে। আমরা সবসময়ই আতঙ্কের সঙ্গে বসবাস করছি। বিদ্যুতের অভাবে শিক্ষার্থীদের শিক্ষাজীবন ব্যাহত হচ্ছে। তবে ওইসময় জেলা প্রশাসক রাব্বি মিয়া তাদেরকে আশ্বস্ত করে বলেন, আন্দোলনকারী শেয়ারহোল্ডারদের নিরাপত্তার বিষয়টি তিনি দেখবেন। তবে জেলা প্রশাসক তাদেরকে আশ্বাস দিলেও অদ্যাবধি অন্ধকার ও আতঙ্কেই রয়ে গেছে শেয়ারহোল্ডাররা।

নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
Shirt Piece

অর্থনীতি -এর সর্বশেষ