শহরের সবজির বাজারে স্বস্তি, তবে নতুন আলুতে আগুন!

স্টাফ করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৮:০১ পিএম, ১৫ নভেম্বর ২০১৮ বৃহস্পতিবার



শহরের সবজির বাজারে স্বস্তি, তবে নতুন আলুতে আগুন!

নিম্ন ও মধ্যবিত্তদের হাতের নাগালে চলে এসেছে শীতকালীন সবজির দাম। ফলে সবজির বাজারে চলছে বিক্রির ধুম। এতে খুশি ক্রেতা-বিক্রেতা সবাই।

বৃহস্পতিবার ১৫ নভেম্বর সরেজমিনে শহরের প্রধান সবজি বাজার দিগুবাবুর বাজার ঘুরে দেখা যায় এমন চিত্র। কমেছে সব ধরনের সবজির দাম। ১৫ দিনের ব্যবধানে ফুলকপি, সিম, মুলা, পটল, বেগুন, বাঁধাকপিসহ সব ধরনের সবজিতে কেজি প্রতি কমেছে ১৫-২০ টাকা। তবে এখনো চড়া দামে বিক্রি হচ্ছে গাজর ও টমেটো। বাজারে নতুন আলু উঠলেও বিক্রি হচ্ছে প্রচুর দামে।

পনের দিন আগে ৬০-৮০ টাকায় বিক্রি হওয় ফুলকপি এখন বিক্রি হচ্ছে ৩০-৪০ টাকা জোড়া। বাঁধাকপি বিক্রি হচ্ছে ৪০-৬০ টাকা জোড়া। সীম বিক্রি হচ্ছে ৩০-৪০ টাকা প্রতি কেজি দরে। জালি কুমড়া ও লাউ বিক্রি হচ্ছে আকার অনুযায়ী হচ্ছে ৪০-৬০ টাকা প্রতি পিস। এছাড়া গোল বেগুন ৩৫-৫০, করল্লা ৪০, উস্তা ৬০, লতি ৪০-৫০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। কাঁচা মরিচ বিক্রি হচ্ছে ৩০-৪০ টাকা কেজি দরে। বাজারে সব থেকে কম দামে ১০ টাকা কেজিতে বিক্রি হচ্ছে পেঁপে। এছাড়াও মুলা, জলপাই, পটল, লম্বা বেগুন ও ঢেঁরস বিক্রি হচ্ছে ২০ টাকা কেজি দরে।

কমেছে সব ধরনের শীতকালীন শাকের দাম। লাল শাক বিক্রি হচ্ছে প্রতি কেজি ১০ টাকা দরে। পালং শাক বিক্রি হচ্ছে ২০ টাকা কেজি দরে। মুলাসহ শাক বিক্রি হচ্ছে ৪০-৫০ টাকা কেজি দরে।

তবে এখনো দাম কমতে শুরু করেনি গাজর ও টমেটোর। প্রতি কেজি গাজর বিক্রি হচ্ছে ৭০-৮০ টাকা কেজি দরে। টমেটো বিক্রি হচ্ছে প্রতি কেজি ৭০-৮০ টাকা কেজি দরে।

বাজারে নতুন আলু উঠতে শুরু করলেও লেগে আছে আগুন। প্রতি কেজি আলু বিক্রি হচ্ছে ১৪০ কেজি দরে। পুরাতন আলু বিক্রি হচ্ছে ১১০-১০৫ টাকা পাল্লায়।

দিগুবাবুর বাজারের সবজি ব্যবসায়ী জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, বাজারে প্রচুর সবজি আসছে তাই দাম অনেক কম। সামনে দাম বাড়ার কোনো সম্ভাবনা দেখছি না। তবে দাম আরো কমতে পারে।


বিভাগ : অর্থনীতি


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও