শ্রমিক অসন্তোষের মূলে গুজব ও বহিরাগত স্বার্থান্বেষী গ্রুপ

সিটি করেসপন্ডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৮:৪৬ পিএম, ৬ ডিসেম্বর ২০১৮ বৃহস্পতিবার



শ্রমিক অসন্তোষের মূলে গুজব ও বহিরাগত স্বার্থান্বেষী গ্রুপ

নারায়ণগঞ্জে সপ্তাহ জুড়ে চলছে শ্রমিক অসন্তোষ। আর এ অসন্তোষকে কেন্দ্র করে কয়েক দফায় শ্রমিকদের সঙ্গে পুলিশ সংঘর্ষে শতাধিক শ্রমিক আহত হয়েছে। তবে গার্মেন্টস মালিকদের দাবি এ অসন্তোষের মূলে রয়েছেন গুজব ও বহিরাগত স্বার্থন্বেষী গ্রুপ। যারা শ্রমিকদের উস্কানি দিয়ে স্বার্থ হাসিল চেষ্টা করে। এর পুলিশ তাদের চিহ্নিত করেছেন তবে সেটা নির্বাচনের পরপরই ব্যবস্থা নিবেন বলেও জানিয়েছেন।

৬ ডিসেম্বর বৃহস্পতিবার সকাল থেকে দুপুরে পর্যন্ত বিসিক শিল্পনগরীতে ‘এন আর গার্মেন্টস’ নামে পোশাক কারখানার শ্রমিকদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ হয়। এতে ভয়ে বুবলী বেগম (৪৫) নামে নারী শ্রমিক নিহত ও পুলিশ সহ ২০জন শ্রমিক আহত হয়। তবে এ ঘটনার পিছনে গুজব ছড়ানো হয়েছে দাবি গার্মেন্টস মালিক কর্তৃপক্ষের।

বিসিক গার্মেন্ট মালিক সমিতির সভাপতি মোহাম্মদ হাতেম নিউজ নারায়ণগঞ্জকে বলেন, কোন ইস্যুই নেই। অবন্তী ও ক্রোনী গার্মেন্টসে যেভাবে বাড়িয়ে বেতন দেওয়া হয়েছে সেভাবে বেতন দিতে হবে। তবে আমি তাদের সঙ্গে কথা বলে জেনেছি তারা এখনও বেতন দেয়নি। আগামী মাস থেকে বেতন পরিশোধ করবেন। একটা গুজব ছড়ানো হয়েছে ১১হাজার না ১২ হাজার টাকা বেতন দেওয়া হয়েছে তাদেরও বেতন দিতে হবে। এটা নিয়ে গত দুইদিন ধরে এনআরে সমস্যা। আজকে তারা ভাঙচুর করেছে। জেনারেটরের রিজার্ভ ওয়েলের ট্যাংকী ভেঙে ফেলে। সেখান থেকে তেল ঢেলে কারখানায় আগুন লাগিয়ে দেওয়ার পরিকল্পনা করে। ওইসময় পুলিশ গিয়ে তাদের লাঠিচার্জ করে বের করে দেয়। এ ঘটনায় পুলিশও আহত হয়েছে।

তিনি আরো বলেন, আজকে চিহ্নিত করা হয়েছে বহিরাগতদের। এখন তাদের ব্যবস্থা নিবে প্রশাসন। এ বহিরাগত স্বার্থন্বেষী গ্রুপ যারা শ্রম অসন্তোষকে কেন্দ্র করে উস্কানি দিয়ে তাদেরকে রাস্তায় নামিয়ে তাদের সঙ্গে সম্পৃক্ত হয়ে বা তাদের স্বার্থ হাসিলের চেষ্টা করে। তাদেরকে চিহ্নিত করে সরকার যেন কঠোর ব্যবস্থা নেয়।

এদিকে শ্রমিক মারা যাওয়ার ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ প্রকাশ করে গার্মেন্ট শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্র নারায়ণগঞ্জ জেলার সভাপতি এমএ শাহীন নিউজ নারায়ণগঞ্জকে জানান, বিভিন্ন কারখানায় উৎপাদন ভিত্তিক শ্রমিকেরা মজুরি বৃদ্দির দাবি তুলেছে। কিন্তু মালিকরা তা বিবেচনায় নিচ্ছে না। ফলে শ্রমিকেরা আন্দোলনে নামতে বাধ্য হয়েছে। সরকার বেতন ভুক্ত শ্রমিকের মাসিক মজুরি বৃদ্দি করেছে তাও বর্তমান বাজার দরের সাথে সঙ্গতি পূর্ণ নয়। আর উৎপাদন ভিত্তিক শ্রমিকের মজুরি বৃদ্ধির বিষয়ে কোন সিদ্ধান্ত না দেওয়ায় সঙ্গত কারনেই শ্রমিকরা আন্দোলনে নেমেছে। আলোচনার মাধ্যমে এ সংকট সমাধান করতে হবে। এক সঙ্গে আহত শ্রমিকদের চিকিৎসা ও নিহতদের যথাযথ ক্ষতিপূরণ প্রদান করতে হবে।

তিনি বলেন, প্রকৃত শ্রমিকেরা কখনো প্রতিষ্ঠানের ক্ষতি করে না। মূলত কিছু স্বার্থলোভী বহিরাগত আছে তারাই শ্রমিকদের মধ্যে ডুকে এ ধরনের বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করে। শ্রমিকেরা শুধু মাত্র তাদের পাওনা চায় আর কাজের নিশ্চিয়তা চায়। তাই তদন্ত সাপেক্ষে ওইসব বহিরাগতদের বিরুদ্ধে আইন গত ব্যবস্থা গ্রহণ দাবি জানাচ্ছি।

ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্র নারায়ণগঞ্জ জেলার সাবেক সভাপতি ও সিপিবি নারায়ণগঞ্জ জেলার সভাপতি হাফিজুল ইসলাম নিউজ নারায়ণগঞ্জকে বলেন, শ্রমিকদের পাওনা শ্রমিকেরা পেলেই খুশি। তারা কাজ করে তিনবেলা খেয়ে পরে বাঁচতে চায়। তারা কখনো সংঘর্ষ চায় না। তবে সহজ সরল শ্রমিকদের ব্যবহার করে অন্যরা সুবিধা নিতে চায়। যারা এ সুবিধা নিতে চায় তাদের চিহ্নিত করে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হোক।

অন্যদিকে শ্রমিক নিহতের প্রতিবাদে ও বিভিন্ন দাবিতে মানববন্ধন করে বাংলাদেশ টেক্সটাইল গার্মেন্টস শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি মাহবুবুর রহমান ইসমাইল বলেন, এন আর গার্মেন্টের প্রতিবাদী শ্রমিকদের পুলিশের ছত্রছায়ায় মালিকের নিয়োজিত সন্ত্রাসীরা পশুর মতো নির্যাতন চালায়। বুবলী বেগম নাম একজন নারী মারা গেছে। ৫০ থেকে ৬০জন শ্রমিক গুরুতর আঘাত প্রাপ্ত হয়ে তার পুলিশের ভয়ে চিকিৎসা না নিয়েই এলাকা ছাড়তে বাধ্য হয়।

তিনি আরো বলেন, এভাবে শ্রমিক নির্যাতন ও হত্যা করে শিল্পের অস্থিরতা দূর করা যাবে না। শ্রমিক হত্যাকান্ড কোন সমস্যার প্রকৃত সমাধান নয়। তবে কেন শ্রমিক হত্যা করা হলো? এ বিষয়ে সুষ্ঠু তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নিতে হবে।

ইন্ডাস্ট্রিয়াল পুলিশ-৪ নারায়ণগঞ্জের পুলিশ সুপার মো. জাহিদুল ইসলাম নিউজ নারায়ণগঞ্জকে জানান, দুষ্কৃতিকারীদের শনাক্ত করতে কাজ চলছে। নির্বাচনের পরে তাদের বিষয়ে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

প্রসঙ্গত এক দুই সপ্তাহ ধরে ফতুল্লার বিসিক শিল্পনগরীতে ফরিকর অ্যাপারেলস ও এনআর গার্মেন্টসে শ্রমিক অসন্তোষের ঘটনা ঘটছে। বেশ কিছুদিন দুটি গার্মেন্টেসের অব্যন্তরে শ্রমিকেরা আন্দোলন করলেও। গত ৩ ডিসেম্বর ও ৬ডিসেম্বর বিসিক এলাকায় আন্দোলন ছড়িয়ে পরে। এতে যানবাহন সহ বিভিন্ন গার্মেন্টস ভাঙচুর করা হয়।


বিভাগ : অর্থনীতি


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

এই বিভাগের আরও