১৫ জুনের পরে লক্ষ্মীনারায়ণের শেয়ারহোল্ডারদের উচ্ছেদের হুমকী

সিটি করেসপন্ডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ১১:২০ পিএম, ৩০ মে ২০১৯ বৃহস্পতিবার

ফাইল ফটো
ফাইল ফটো

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের ১০ নং ওয়ার্ডের সিদ্ধিরগঞ্জের গোদনাইলে অবস্থিত নিউ লক্ষ্মী নারায়ণ কটন মিলটির আন্দোলনরত শেয়ারহোল্ডারদের শেয়ার জমা দিতে আবারো মাইকিং করেছে নিট কনসার্ন গ্রুপের লোকজন।

৩০ মে বৃহস্পতিবার দুপুরে মাইকিং করে শেয়ারহোল্ডারদের শেয়ার জমা দিতে বলা হয়। অন্যথায় ১৫ জুনের পরে তাদেরকে উচ্ছেদ করা হবে বলে মাইকিং করা হয়। এ বিষয়ে নিট কনসার্ন গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক জয়নাল আবেদীন মোল্লার সঙ্গে পুলিশ সুপারের কথাও হয়েছে বলে মাইকিংয়ে উল্লেখ করা হয়। 

জানা গেছে, গত কয়েক বছর ধরেই নিউ লক্ষ্মী নারায়ণ কটন মিলটির আন্দোলনরত শেয়ারহোল্ডারদের উচ্ছেদ করার চেষ্টা চালাচ্ছে নিট কনসার্ন গ্রুপের ক্যাডার বাহিনী। গত ১৬ মে মিলটির প্রবেশ ফটক সংলগ্ন দেয়ালে একটি নোটিশ সাটানো হয়েছে। সেখানে উল্লেখ করা হয়, গত ১৫ মে মিলের ৯৩ তম বোর্ড সভায় সিদ্ধান্ত অনুযায়ী অদ্য পর্যন্ত যারা শেয়ার হস্তান্তর ও নবায়ন করেন নাই তাদেরকে ৪৮ ঘন্টার মধ্যে পরিচালনা পর্ষদের সাথে দেখা করার জন্য মিলের ১নং গেটের ভেতরের অফিসে দুপুর ১২টার মধ্যে উপস্থিত থাকার জন্য বলা হয়েছে। নোটিশের নিচে স্বাক্ষর করেন জয়নাল আবেদীন মোল্লা যার পদবী উল্লেখ করা হয়েছে মিলটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও চেয়ারম্যান। অথচ আদালতের নির্দেশে গত সোয়া ৪ বছর ধরেই চেয়ারম্যান পদে রয়েছেন জেলা প্রশাসক রাব্বি মিয়া।

পরবর্তীতে ১৯ মে মিলটিতে আবারো মাইকিং করে শেয়ারহোল্ডারদের ৪৮ ঘন্টার মধ্যে কলোনীর বসতবাড়ি খালি করার কথা জানানো হয়। এখানেই শেষ নয়,  ২২ মে মিলটিতে নিট কনসার্ন গ্রুপের শতাধিক ক্যাডার মহড়া দেয়ার পাশাপাশি ২ ঘন্টার মধ্যে কলোনীর বসতবাড়ি খালি করে দেয়ার হুমকী দেয়। এছাড়া কয়েকদিন পরপর ক্যাডার বাহিনী মহড়া দিয়ে শেয়ারহোল্ডারদের ভয়ভীতিসহ হুমকী দিচ্ছে।

অপরদিকে শেয়ারহোল্ডাররা এ বিষয়ে মিলটির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান জেলা প্রশাসক রাব্বি মিয়ার কাছে স্মারকলিপি প্রদান সহ নারায়ণগঞ্জ প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন করেছে।

বৃহস্পতিবার ৩০ দুপুরে শেয়ারহোল্ডারদের শেয়ার জমা দিতে মাইকিং করা হয়। এসময় মাইকিংয়ে উল্লেখ করা হয়, শেয়ারহোল্ডাররা শেয়ার জমা না দিলে আগামী ১৫ জুনের পরে তাদেরকে উচ্ছেদ করা হবে। মাইকিংয়ে বলা হয় ব্যবস্থাপনা পরিচালক জয়নাল আবেদীন মোল্লার সঙ্গে পুলিশ সুপারের কথা হয়েছে। মানবিক দিক বিবেচনা করে পবিত্র রমজান মাস ও ঈদুল ফিতর উপলক্ষ্যে শেয়ারহোল্ডারদেরকে এখন উচ্ছেদ করা হচ্ছেনা। তবে আগামী ১৫ জুনের পরে তাদেরকে উচ্ছেদ করা হবে বলে জানিয়ে দেয়া হয়। এতে করে শেয়ারহোল্ডারদের মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করছে।

শেয়ারহোল্ডাররা জানান, ২০০১ সালের ২১ মার্চ ৫১০ জন শেয়ার হোল্ডারদের মালিক বানিয়ে মিলটি হস্তান্তর করে তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন সরকার। পরে পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যান শামসুদ্দিন প্রধানের নেতৃত্বাধীন পরিচালনা পর্ষদ দীর্ঘ এক যুগ ধরে ব্যাপক অনিয়ম ও দুর্নীতি করে বলে অভিযোগ শেয়ারহোল্ডারদের। সাবেক পরিচালনা পর্ষদ মিলটিতে একজন বিনিয়োগকারী নিয়োগের কথা বলে প্রতারণার মাধ্যমে ৩৮২ জনের শেয়ার হাতিয়ে নিয়ে নিট কনসার্ন গ্রুপের কাছে হস্তান্তর করে। ১৮ একর ৬৫ শতাংশের উপর গড়ে ওঠা শতবছরের পুরনো এই মিলটির আনুমানিক মূল্য ৭০০ কোটি টাকা হলেও মাত্র ৩৫ কোটি টাকায় মিলটি দখলে নেয়ার চেষ্টা করছে নিট কনসার্ন গ্রুপের জয়নাল আবেদীন মোল্লা ও তার লোকজন এমনটিই অভিযোগ শেয়ারহোল্ডারদের। ৫৩ জন শেয়ারহোল্ডার শেয়ার বিক্রি করতে রাজী না হওয়ায় তাদের উপর গত ৬ বছর ধরে চালানো হয়েছে নির্যাতনের স্টীম রোলার। ২০১৩ সালের ৩১ আগষ্ট বকেয়া বিলের অজুহাতে মিলের বিদ্যুৎ, গ্যাস ও পানির সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেয় মিলের দুর্নীতিবাজ পরিচালনা পর্ষদ। সন্ত্রাসীরা প্রকাশ্য দিবালোকে অস্ত্র নিয়ে হামলাও চালিয়েছে। ২০১৪ সালের ২১ অক্টোবর পরিচালনা পর্ষদের লোকজন শেয়ারহোল্ডারদের কলোনীতে আগুন ধরিয়ে দেয়। এক শেয়ারহোল্ডারের রিট পিটিশন অনুযায়ী ২০১৫ সালের ২১ জানুয়ারী হাইকোর্ট ডিভিশন বেঞ্চের জাস্টিস মোঃ রেজাউল হাসান নির্বাচন দেয়ার আদেশ দেন। নির্বাচন না হওয়া পর্যন্ত নিরপেক্ষ হিসেবে নারায়ণগঞ্জের জেলা প্রশাসককে নিউ লক্ষ্মী নারায়ণ কটন মিলের পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যান পদে ও শেয়ারহোল্ডারদের সরাসরি ভোটে পরিচালনা পর্ষদের পরিচালক পদে নির্বাচনের নির্দেশ দিয়েছেন। পরে ওই বছরের ১১ এপ্রিল জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে বার্ষিক সাধারণ সভা আহবান করেন তৎকালীন জেলা প্রশাসক। ওই দিন অবৈধ পরিচালনা পর্ষদের সন্ত্রাসী বাহিনী শেয়ারহোল্ডারদের সম্মেলনকক্ষে প্রবেশে বাধাঁ দেয়। এতে করে শেয়ারহোল্ডাররা বার্ষিক সাধারণ সভায় প্রবেশ না করে বাহিরেই অবস্থান নেন। পরে জেলা প্রশাসক নিট কনসার্ন গ্রুপের শেয়ার হস্তান্তরের কাগজপত্র যাচাই বাছাই করে তাতে জয়েন্ট স্টক রেজিষ্টারের বৈধতা না পাওয়ায় বার্ষিক সাধারণ সভা স্থগিত করেন। যে কারণে হাইকোর্টের আদেশে অদ্যাবধি মিলটির চেয়ারম্যান পদে রয়েছে নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসক। গত ৫ বছরে ধরে শেয়ারহোল্ডারদের কলোনীতে গ্যাস ও বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন ছিল। গত ২০১৮ সালের ১৭ নভেম্বর নারায়ণগঞ্জ-৪ (ফতুল্লা ও সিদ্ধিরগঞ্জ) আসনে আওয়ামীলীগ দলীয় সংসদ সদস্য এমপি শামীম ওসমান নিউ লক্ষ্মী নারায়ণ কটন মিলের অভ্যন্তরে গণসংযোগে গেলে অর্ধশত শেয়ারহোল্ডার ও তাদের পরিবাররা দীর্ঘ ৫ বছর ধরে বিদ্যুৎহীন থাকার বিষয়টি অবগত করলে তিনি তাৎক্ষনিক ডিপিডিসি কর্তৃপক্ষকে এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশ দেন। পরে গত ৪ ডিসেম্বর দুপুরে তাদের সংযোগ প্রদান করে ডিপিডিসি কর্তৃপক্ষ।

আন্দোলনরত শেয়ারহোল্ডারদের অভিযোগ, হাইকোর্ট ঐতিহ্যবাহী মিলটির স্থাবর ও অস্থাবর সম্পদ ভাঙচুরে নিষেধাজ্ঞা জারি করলেও তাতে কোনরূপ কর্ণপাত করেনি বিগত দুর্নীতিবাজ পরিচালনা পর্ষদ এবং নিট কনসার্ন গ্রুপের মালিকপক্ষ ও তাদের লোকজন। বেশীরভাগ স্থাপনা ভেঙ্গে বিরানভূমিতে পরিণত করা হয়েছে। গাছ কেটে ফেলা হয়েছে। বেশ কিছু স্থানে পাইলিংও করেছে। ভেকু দিয়েও চলছে মাটি অপসারণের কাজ। পূর্বতন দুর্নীতিবাজ পরিচালনা পর্ষদ ও নিট কনসার্ন গ্রুপের লোকজন সেখানে অবৈধভাবে ভবন নির্মাণের উদ্দেশ্যে নির্মাণ সামগ্রী স্তুপীকৃত করে আসছে। কিছুসংখ্যক দুর্নীতিবাজ পরিচালনা পর্ষদের কারণে ৭০০ কোটি টাকা মূল্যের এই বিশাল মিলটি মাত্র ৩৫ কোটি টাকায় দখলে নিতে চাইছে নিট কনসার্ন গ্রুপ। আর এসকল বিষয়ে প্রতিবাদ করায় আন্দোলনরত শেয়ারহোল্ডারদের উপরে চালানো হচ্ছে নির্যাতনের স্টীমরোলার।


বিভাগ : অর্থনীতি


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও

আরো খবর