আলোচিত জয়নালের বিরুদ্ধে প্রতিকার না পেলে ধর্মঘট

স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৪:০১ পিএম, ১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৯ শনিবার

আলোচিত জয়নালের বিরুদ্ধে প্রতিকার না পেলে ধর্মঘট

জাতীয় পার্টির নেতা আল জয়নালের নামের আগে ‘ভূমিদস্যু’ ব্যবহার করে মিথ্যা মামলা ও হয়রানি থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্য দাবি জানিয়েছেন একটি সংগঠনের নেতারা। একই সঙ্গে তার বিরুদ্ধে আইনগত কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণের জন্যও প্রশাসনের প্রতি আহবান জানান।

১৪ সেপ্টেম্বর শনিবার বেলা ১২টায় নারায়ণগঞ্জ প্রেসক্লাবের হানিফ খান মিলনায়তনে সাংবাদিক সম্মেলনে নারায়ণগঞ্জ জেলা ট্রাক মলিক সমিতির সভাপতি মতিউল্লাহ মিন্টু সংগঠনের পক্ষে এসব কথা বলেন। এসময় তিনি লিখিত ভাবে জমির মামলা সংক্রান্ত তথ্য ও দখলকৃত জমির বিবরণ প্রেস বিজ্ঞপ্তি হিসেবে সাংবাদিকদের মধ্যে বিতরণ করেন।

লিখিত বক্তব্যে পাঠ করে তিনি বলেন, ‘ভূমিদস্যূ আল জয়নাল নারায়ণগঞ্জ জেলা ট্রাক, কাভার্ড ভ্যান ও ট্যাংকলরী মালিক সমিতির জমি দখল করার পাঁয়তারা করছে। বিভিন্ন মামলা দিয়ে আমাদেরকে হয়রানি করছে এবং জমি দখলের হুমকি দিচ্ছে। জমিতে অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞা থাকা সত্ত্বেও জমি দখলের চেষ্টা করে। এ ঘটনায় থানায় জিডিও করা হয়েছে। আমার জমির পাশের দাগের জমির মালিক নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি হাসান ফেরদৌস জুয়েলের জমিও অবৈধ ভাবে দখল করতে যায়। শহরের কোথাও কোন ওয়ারিশ দ্বন্ধ জমি থাকলে সেই জমির আমমোক্তার নামা নিয়ে দখল করতে যায়। আর এজন্য তাকে ভূমিদস্যু জয়নাল বলা হয়।’

তিনি আরো বলেন, এ বিষয়ে জেলা প্রশাসক ও জেলা পুলিশ সুপারের কাছে স্মারকলিপি দেওয়া হয়েছে। নারায়ণগঞ্জ বিজ্ঞ ২য় জেলা জজ আদালতে ৪টি মামলা চলমান আছে।

মতিউল্লাহ বলেন, এ ঘটনায় আমরা যদি প্রতিকার না পাই তাহলে কঠোর কর্মসূচি দেওয়া হবে। আমরা আমাদের সংগঠনের জমি যে কোন ভাবে এসব ভূমি দস্যু থেকে রক্ষা করবো।

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের কাউন্সিলর ও সংগঠনের সেক্রেটারী শফিউদ্দিন প্রধান বলেন, যে জায়গাটি দখলের জন্য ভূমি দস্যু আল জয়নাল চেষ্টা করছে আসলে সেটা সংগঠনের জায়গা। সংগঠনের সদস্যদের টাকা জমিয়ে ওই জায়গা কেনা হয়। এটা কারো ব্যক্তিগত জায়গা না। কিন্তু এর মধ্যে ভুমিদস্যুর চোখ পড়ছে। আমরা এর প্রতিকার চাই। অবিলম্বে প্রশাসন এ ভূমি দস্যুর বিরুদ্ধে ব্যবস্থাগ্রহণ করুক এ দাবি জানাই। গত এপ্রিল মাসে ভূমিদস্যু আল জয়নালকে পুলিশ চাঁদাবাজি মামলায় গ্রেফতার করেছিল। সে এত সাহস পায় কোথায় সেটা আমাদের বোধগম্য নয়। জয়নালের বিরুদ্ধে আমরা জেলা প্রশাসকের কাছে স্মারকলিপি দিয়েছি, পুলিশ সুপার বরাবর দরখাস্তের মাধ্যমে অভিযোগ দায়ের করেছি। জয়নাল আমাদের বিরুদ্ধে নারায়ণঞ্জ ২য় জেলা জজ আদালতে ৪টি দেওয়ানি মোকাদ্দমা দায়ের করেছে যেগুলো এখনো চলমান আছে। আজকে আমরা সংবাদ সম্মেলন করলাম। এরপর মানববন্ধন করবো। তারপরেও প্রতিকার না পাই কিংবা যদি আমাদের ট্রাক মালিক সমিতির এই জায়গা আবার অবৈধভাবে দখল করা হয়, তাহলে আমরা সকল পরিবহণ সেক্টরের মালিক শ্রমিকরা একজোট হয়ে পরিবহন ধর্মঘটের ডাক দেবো। আমরা এ বিষয়ে নারায়ণগঞ্জ চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রিজের সভাপতির সঙ্গেও কথা বলেছি।

এসময় উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের কার্যকারী সভাপতি তাজুল ইসলাম ভূইয়া, সহ সভাপতি আব্দুল লতিফ, সাবেক সভাপতি হারুন অর রশীদ বাবুল, যুগ্ম সম্পাদক আনোয়ার হোসেন, মো. তুহিন ও কোষাধ্যক্ষ লিটন।

প্রসঙ্গত আল জয়নালের বিরুদ্ধে এর আগেও এক ডজনের বেশি জমি দখলের অভিযোগ রয়েছে। এসব অভিযোগে কখনো জিডি আবার কখনো মামলা হয়েছে। সেসব মামলায় কারাগারে পাঠানোর নির্দেশও দিয়েছে আদালত। তাছাড়া জামায়ত শিবিরের পৃষ্ঠপোশক বলেও অভিযোগ পাওয়া যায়।


বিভাগ : অর্থনীতি


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও