কাঁচপুরে শ্রমিক পুলিশ সংঘর্ষের ৪দিনপর ২০০ শ্রমিকের বিরুদ্ধে মামলা

সিটি করেসপন্ডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৯:০২ পিএম, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯ শুক্রবার

ফাইল ফটো
ফাইল ফটো

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ের কাঁচপুরের রপ্তানিমুখী শিল্প প্রতিষ্ঠান সিনহা ওপেক্স কারখানায় শ্রমিকদের সাথে পুলিশের সংঘর্ষের ঘটনার ৪দিন পর ২শ ৩১জনের নাম উল্লেখ করে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

২০ সেপ্টেম্বর শুক্রবার সকালে সিনহা ওপেক্স গ্রুপের সিকিউরিটি শাহ আলম বাদী হয়ে এ মামলাটি দায়ের করেন। গত ১৫ সেপ্টেম্বর সকালে বেতন ভাতা বৃদ্ধি, মাতৃত্বকালীন ছুটিসহ কয়েকটি সুযোগ সুবিধার দাবিতে কাঁচপুরে সিনহা ওপেক্স গ্রুপের কারখানার শ্রমিকরা বিক্ষোভ মিছিল করে সড়ক অবরোধ করে। পুলিশ তাদের সরিয়ে দিতে গেলে এ সংঘর্ষ বাধে। সংঘর্ষ চলাকালে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। পরদিন ১৬ সেপ্টেম্বর অভিযুক্ত শ্রমিকদের বহিস্কার করে নামের তালিকা প্রধান ফটকের সামনে সাটিয়ে দেয় সিনহা ওপেক্স গার্মেন্ট কর্তৃপক্ষ।

জানা যায়, কাঁচপুর শিল্পাঞ্চল এলাকায় ওপেক্স গ্রুপের সিনহা গার্মেন্টের শ্রমিকরা ১৫ সেপ্টেম্বর রোববার শ্রমিকরা কাজে  যোগদান না করে কারখানা এলাকায় জড়ো হতে থাকে। এক পর্যায়ে তাদের মাতৃত্বকালীন ছুটি, ছুটিকালীন সময়ে ভাতা প্রদান, প্রতি মাসের ৮ তারিখের মধ্যে মাসিক বেতন পরিশোধ ও ভাতা বৃদ্ধির দাবীতে বিক্ষোভ করে। শ্রমিকরা কাজে যোগদান না করে বিক্ষোভ মিছিল করে।

শ্রমিকরা ঢাকা-সিলেট মহাসড়ক অবরোধ করার চেষ্টা করলে নিরাপত্তাকর্মী ও পুলিশ বাধা দেয়। এক পর্যায়ে শ্রমিকরা গার্মেন্টেসের সামনে ঢাকা- সিলেট মহাসড়কে টায়ারে আগুন ধরিয়ে বিক্ষোভ করতে থাকে। শ্রমিকদের পুলিশ সড়ক থেকে সরিয়ে দিতে চাইলে শুরু হয় শ্রমিকদের সাথে পুলিশের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া। পুলিশের লাঠিচার্জ, টিয়ার শেল ও রাবার বুলেটে কমপক্ষে ২০ জন শ্রমিক আহত হয়েছেন। এছাড়াও আইনশৃঙ্খলার রক্ষাকারী বাহিনীর ১০ সদস্য আহত হয়। ঘটনার ৪দিন পর শুক্রবার সকালে সিনহা ওপেক্স গ্রুপের সিকিউরিটি শাহ আলম বাদী হয়ে এ মামলাটি দায়ের করেন।

সোনারগাঁ থানার ওসি মনিরুজ্জামান বলেন, কাঁচপুরের সিনহা গার্মেন্টেসে শ্রমিক অসন্তোষের ঘটনায় মামলা গ্রহন করা হয়েছে। মামলাটি গুরুত্বের সাথে তদন্ত করে অভিযুক্ত শ্রমিকদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


বিভাগ : অর্থনীতি


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও