উচ্ছেদে ব্যবসায়ীরা সব হারালেও অক্ষত মনির হোটেল

স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৯:১৩ পিএম, ৩১ অক্টোবর ২০১৯ বৃহস্পতিবার

উচ্ছেদে ব্যবসায়ীরা সব হারালেও অক্ষত মনির হোটেল

রাজধানী ঢাকার কমলাপুর থেকে নারায়ণগঞ্জ পর্যন্ত ডাবল রেললাইন প্রকল্পের জন্য অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ অভিযানে অভিযানে মনির রেস্তোরার আংশিক, ফুডল্যান্ড বেকারীর দোকান, একটি অনুমোদনহীন মসজিদসহ কয়েক শত অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়। তবে আওয়ামীলীগের নেতার রেস্তোরা না ভাঙায় জনমনে নানা প্রশ্ন দেখা দিয়েছে।

বৃহস্পতিবার ৩১ অক্টোবর সকালে রেলওয়ের উচ্ছেদ কর্মীরা ৫টি এক্সাভেটর (ভেকু) নিয়ে ২নং রেলগেট এলাকায় উচ্ছেদ অভিযান চলে।

১৭ অক্টোবর নারায়ণগঞ্জ শহরের দুই নং রেলগেইট এলাকায় রেলওয়ের জমি অবৈধ ভাবে দখল করে গড়ে উঠা একটি টিনসেড আধপাকা থান কাপড়ের মার্কেট মার্কেট, রেডিমেট জামাকাপড়ের দোকান ও বসত ঘরসহ প্রায় আড়াই হাজার ছোট বড় স্থাপনা গুড়িয়ে দেয়া হয়। তবে এসময় লাইসেন্স থাকার অজুহাতে শহরের ২নং রেল গেইট এলাকার মনির রেস্তোরা ভাঙা হয়নি। মনির রেস্তোরারা মালিক মনির হোসেন নাসিকের ১৪ নং ওয়ার্ডের সাবেক কাউন্সিলর এবং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক।

এদিকে ৫টি এক্সাভেটর (ভেকু) দিয়ে উচ্ছেদ অভিযান শুরু হলে নাসিকের ১৪নং ওয়ার্ডের সাবেক কাউন্সিলর ও ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সেক্রেটারী মনিরুজ্জামান মনিরের ‘মনির রেস্তোরা’ ভাঙতে শুরু করলেও মনির ও তার লোকজনের বাধায় আংশিক ভেঙ্গে দেয়া হয়। এছাড়া পার্শ্ববর্তী ফুডল্যান্ড বেকারীর দোকান, উকিলপাড়া এলাকায় রেলওয়ে মসজিদ নামের একটি অনুমোদনহীন মসজিদসহ কয়েক শতাধিক অবৈধ স্থাপনা ভেঙ্গে গুড়িয়ে দেয়া হয়।

রেলওয়ের সার্ভেয়ার ইকবাল মাহমুদ জানান, ৪৫ ফুট সীমানা ধরেই উচ্ছেদ অভিযান চলছে। মনির রেস্তোরার লাইসেন্স রয়েছে। বাকী যেসকল অবৈধ স্থাপনা রয়েছে সেগুলো ভেঙ্গে দেয়া হচ্ছে।


বিভাগ : অর্থনীতি


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও