অস্থির নারায়ণগঞ্জ

স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৯:১৪ পিএম, ২১ নভেম্বর ২০১৯ বৃহস্পতিবার

অস্থির নারায়ণগঞ্জ

নারায়ণগঞ্জে নিত্যপণ্যের ঊর্ধ্বগতি সহ গুজবের কারণে পুরো শহর প্রায় অস্থির হয়ে পড়েছে। পেঁয়াজের ঝাঁজের কারণে এমনিতে নিত্যপণ্যের বাজার বেশ বেসামাল ছিল। সেই রেশ কাটতে না কাটতে লবণের গুজবে চারদিকে লঙ্কাকান্ড দেখা গেছে। এসব ঘটনা সামলে ওঠার আগেই হঠাৎ করে পরিবহন শ্রমিকদের ধর্মঘটের কারণে যানচলাচল বন্ধ থাকায় ফের সকল ধরনের নিত্যপণ্যের দাম বেড়েছে। এতে করে বেশ অস্থির অবস্থা বিরাজ করছে।

জানাগেছে, পার্শ্ববর্তী দেশ ভারত গত ২৯ সেপ্টেম্বর পেঁয়াজ রপ্তানী বন্ধ করে দেয়ার ফলে পেঁয়াজের দাম হু হু করে বাড়তে শুরু করে। এতে ৩৫ টাকার পেঁয়াজ লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়তে বাড়তে আড়াইশ টাকায় গ-ি পেরিয়ে যায়। যদিও প্রথম দিকে দাম বাড়লেও তা ক্রেতাদের নাগালের মধ্যে ছিল। কিন্তু গত কয়েকদিন ধরে হঠাৎ করে পেঁয়াজ সংকটের অজুহাতে দাম আকাশচুম্বি বৃদ্ধি পায়।

এর মধ্যে নারায়ণগঞ্জে বেশি দামে পেঁয়াজ বিক্রির জন্য ভ্রাম্যমাণ আদালত তিনটি দোকানে জরিমানা করে। এরপর থেকে পেঁয়াজ বিক্রেতারা সাবধান হয়ে যায়। পরবর্তীতে পেঁয়াজের দাম ধীরে ধীরে কেজি প্রতি ৭০ টাকা কমে ১৫০-১৬০ টাকা কেজিতে বিক্রি শুরু হয়।

এই ঘটনার রেশ কাটতে না কাটতে গত ১৯ নভেম্বর সকাল থেকেই লবণের দাম বৃদ্ধির গুজব শুরু হয়ে যায়। গুজবের ফলে নারায়ণগঞ্জের অন্যতম পাইকারী বাজার নিতাইগঞ্জে লবণ বিক্রির হিড়িক পড়ে। ক্রেতাদের চাহিদা অনুযায়ী লবণ বিক্রি করতে গিয়ে হিমশিম খাচ্ছে বিক্রেতারা। আবার অনেকে ক্রেতাদের ভীড় সামলাতে না পেরে দোকানে তালা দিয়ে দিয়েছেন। লবণের সংকট ও এর জন্য দাম বেড়ে যাওয়ার গুজব ছাড়ানো কেন্দ্রে করে এ বিক্রি বেড়েছে বলে দাবি করেছেন বিক্রেতারা। তবে লবণের সংকট নেই ও দাম বৃদ্ধির কোন আশঙ্কাও নেই বলে জানিয়েছেন বিক্রেতারা। আর লবণ কারখানার মালিকেরা বলছেন, যে লবণ মজুদ আছে তাতে লবণের সংকট হবে না।

নারায়ণগঞ্জ লবণ মিল মালিক সমিতির সভাপতি পরিতোষ কান্তি সাহা বলেন, লবণের সংকট ও দাম বৃদ্ধির বিষয়টি গুজব। আগামী এক বছরেও লবণের দাম বৃদ্ধি বা সংকটের কোনো সুযোগ নেই। নারায়ণগঞ্জ সহ বাংলাদেশে প্রচুর পরিমাণ লবণ মজুদ রয়েছে। এতে জনগণের চিন্তিত হওয়ার কোন কারণ নেই।

মোবাইলে ও ফেসবুকে লবনের দাম বাড়ার গুজব ছড়ানোর অভিযোগে পৃথক স্থান থেকে আরো দুইজনকে আটক করেছে নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানা পুলিশ। আটককৃতরা হলো রহিম (২০) ও অহিদুল ইসলাম (২৮)।

এ বিষয়ে নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ আসাদুজ্জামান জানান, লবণের দাম বাড়ার গুজব ছড়ানো এবং বাজারে লবণ সংকটের মিথ্যা তথ্য দিয়ে বেশি দামে লবণ বিক্রীর অভিযোগে নিতাইগঞ্জ থেকে রহিম এবং দিগুবাবুর বাজার থেকে অহিদুল নামে দু`জনকে গ্রেফতার করেছি। এ বিষয়ে আইনানুগ প্রক্রিয়া চলমান রয়েছে।

এসব ঘটনায় পুরো জেলা যখন অস্থির অবস্থার মধ্য দিয়ে অতিবাহিত করছে তখন রাত না পোহাতেই নতুন করে বিশাল অস্থিরতা দেখা দেয়। কারণ পরবর্তী দিন ২০ নভেম্বর সকাল থেকে পরিবহন শ্রমিকদের অঘোষিত ধর্মঘটের কারণে নারায়ণঞ্জের যান চলাচল বন্ধ ছিল। সকাল থেকে কোন ধরনের যান চলাচল করতে দেখা হয়নি। বুধবার সকাল ৬টা হতে টানা ৮ ঘণ্টা চলমান এই অবরোধের মধ্যে শুধুমাত্র রিকশা চলাচল করতে দেখা গেছে। এতে করে যাত্রীদের চরম ভোগান্তিতে পড়তে হয়।

সরেজমিনে ঘুরে দেখা গেছে, ঘণ্টার পর ঘণ্টা যাত্রীরা চাষাঢ়া বাস টার্মিনালে যানবাহনের জন্য অপেক্ষা করেন। বাস থাকলেও বন্ধ থাকায় অনেকেই বাসায় ফিরে যান। আর যারা জরুরী প্রয়োজনে বের হয়েছে তাদের কেউ ট্রেনের জন্য আবার কেউ হেঁটে রওনা হন কিংবা রিকশায়। সিএনজি অটোরিকশাও চলাচলে বাধা দিতে দেখা যায় শ্রমিকদের। শুধু মাত্র প্রাইভেটকার, অ্যাম্বুলেন্স, রিকশা ও লেগুনা চলাচল করতে দেখা যায়।

এই ধর্মঘটের ফলে পণ্যদ্রব্যের বাজারেও বেশ প্রভাব পড়েছে, বিশেষ করে কাঁচাবাজারে। ব্যবসায়ীরা বলছেন, যানবাহন চলাচল বন্ধ ছিল তাই পণ্যদ্রব্যের দাম বেড়ে গেছে। এটা স্বাভাবিক বৃদ্ধি। যান চলাচলা বন্ধ থাকলে পণ্যের দাম বাড়ছে যা সকলের জানা।

এ কারণে ১৫০-১৬০ টাকা কেজিতে বিক্রি হওয়া পেঁয়াজ কেজি প্রতি ২০ টাকা বৃদ্ধিতে ১৮০ টাকা কেজিতে বিক্রি হচ্ছে। আর কাঁচা বাজারের প্রায় সকল পণ্য কেজি প্রতি প্রায় ১০-২০ টাকা করে বৃদ্ধি পেয়েছে।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, বিগত কয়েকদিনের ধারাবাহিক ঘটনার ফলে পুরো জেলায় অস্থিরতা বিরাজ করছে। পেঁয়াজের ঝাঁজের পর লবণের গুজবে অস্থিরতা কয়েকগুণ বেড়ে যায়। পরবর্তীতে সেই অস্থিরতায় নতুন করে ঘি ঢালতে শুরু করে পরিবহন শ্রমিকদের অঘোষিত ধর্মঘট।


বিভাগ : অর্থনীতি


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও