শ্রমিক ছাঁটাইয়ের প্রতিবাদে গার্মেন্টসে ভাংচুর, জিএমসহ আহত ৪

সিটি করেসপন্ডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৩:৪৮ পিএম, ২৩ ডিসেম্বর ২০১৯ সোমবার

শ্রমিক ছাঁটাইয়ের প্রতিবাদে গার্মেন্টসে ভাংচুর, জিএমসহ আহত ৪

নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জের সুমিল পাড়া মুনলাক্স কম্পোজিট নীট গার্মেন্টস লিমিটেড নামে একটি গার্মেন্টে শ্রমিক অসন্তোষ ও ভাঙচুরের ঘটনা ঘটেছে। ২৩ ডিসেম্বর সোমবার সকালে এ ঘটনাটি ঘটে।

শ্রমিকেরা জানায়, গার্মেন্টের গ্রুপ জিএম হুমায়ুন ২২ ডিসেম্বর বহিরাগত লোক এনে শ্রমিক আমিনুলকে গার্মেন্টে রাত সাড়ে ৯ টা পর্যন্ত আটকে রাখে এবং হুমকি দিয়ে তাকে ছাটাই করে দেয়। সোমবার সকালে শ্রমিকরা আমিনুলের ছাঁটাই আদেশ প্রত্যাহারের জন্য গ্রুপ জিএম হুমায়ুনকে অনুরোধ করলে তিনি শ্রমিকদের গালমন্দ করতে থাকে। এতে ক্ষুব্দ হয়ে পড়ে শ্রমিকেরা। এসময় বিক্ষুব্ধ শ্রমিকেরা মালিকপক্ষের সঙ্গে কোন প্রকার আলোচনা না করেই গার্মেন্টে ভাংচুর করতে থাকে।

গার্মেন্টের মালিক মহিউদ্দিন সাংবাদিকদের জানান, বিক্ষুব্ধ শ্রমিকরা গার্মেন্টে ব্যাপক ভাংচুর চালায়। এতে গার্মেন্টের প্রায় ২৫ থেকে ৩০ লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। এ ব্যাপারে তিনি আইনী পদক্ষেপ নিবেন।

বিনা নোটিশে শ্রমিক ছাঁটাইয়ের কথা অস্বীকার করে তিনি বলেন, ওই শ্রমিক স্বেচ্ছায় এ মাসের পর চাকরি করবেনা বলে জানানোর পর তার পাওনাদি আমরা তাকে দিয়ে দিয়েছি। কিন্তু সে পাওনাদি পাওয়া সত্বেও আরো ২৫-৩০ জনকে অগ্রীম তিন মাসের পাওনা নিয়ে বের হয়ে যেতে আমাদের উপর চাপ প্রয়োগ করছিলো। আমরা তাদের কথায় রাজী না হওয়ায় তারা ভাংচুর করে এবং জিএমকে মারধর করে। এসময় তারা গার্মেন্টের অফিসকক্ষ, ম্যানেজিং ডিরেক্টরের কক্ষ ও কনফারেন্স রুম ভাংচুর করে। শ্রমিকদের হামলায় জিএম মনিরসহ ৪ জন কর্মকর্তা আহত হয়েছে।

নারায়ণগঞ্জ শিল্প পুলিশ-৪ এর পুলিশ সুপার সৈকত শাহীন জানান, শ্রমিক ছাঁটাইকে কেন্দ্র করে শ্রমিকদের সঙ্গে জিএম এর কথা কাটাকাটির একপর্যায়ে বিক্ষুব্দ শ্রমিকরা জিএমকে মারধর করে ও তার কক্ষের কাঁচের দরজা ভাঙচুর করে। খবর পেয়ে শিল্প পুলিশের ২ জন এএসপি ও ২ জন পরিদর্শকের নেতৃত্বে শিল্প পুলিশের ৪০ জনের একটি টিম ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে। শ্রমিকরা কারখানার ভেতরেই অবস্থান করছে। মালিকপক্ষ ও শ্রমিকপক্ষের সঙ্গে কথা বলে বিষয়টি সমাধানের চেষ্টা করা হচ্ছে।

সিদ্ধিরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কামরুল ফারুক জানান, গার্মেন্টের বিশৃঙ্খলার খবর পেয়ে আমাদের পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে এনেছে। আমরা মালিকপক্ষের সঙ্গে এ ব্যাপরে কথা বলছি। মালিকপক্ষ শ্রমিকদের দাবিগুলো মেনে না নিলে এবং শ্রমিকরা অভিযোগ দিলে আমরা আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করবো। বর্তমানে ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।


বিভাগ : অর্থনীতি


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও