শীতলক্ষ্যা দখল দূষণকারী ৭ কারখানাকে ৬ কোটি ২৭ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ

সিটি করেসপন্ডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ১০:২৪ পিএম, ১১ ফেব্রুয়ারি ২০২০ মঙ্গলবার

শীতলক্ষ্যা দখল দূষণকারী ৭ কারখানাকে ৬ কোটি ২৭ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জের বিভিন্ন এলাকায় শীতলক্ষ্যা নদী দখল ও ভরাট এবং ইটিপি ছাড়াই তরল বর্জ্য নদীতে ফেলে শীতলক্ষ্যা নদী দূষণের অভিযোগ ৭টি শিল্পকারখানাকে মোট ৬ কোটি ২৭ লাখ ১০ হাজার টাকা ক্ষতিপূরণ ধার্য্য করেছে পরিবেশ অধিদপ্তর।

এর মধ্যে ৩টি কারখানা ইটিপি ও পরিবেশগত ছাড়পত্র ব্যতীত কারখানা পরিচালনার মাধ্যমে শীতলক্ষ্যা নদী দূষণের অভিযোগে বিদ্যুতের সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়। বাকী ৪টি কারখানাকে ভরাটকৃত মাটি অপসারণ করে পূর্বের অবস্থায় ফিরিয়ে আনার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার ১১ ফেব্রুয়ারী ঢাকাস্থ পরিবেশ অধিদপ্তরের মনিটরিং ও এনফোর্সমেন্ট উইংয়ের পরিচালক রুবিনা ফেরদৌসীর নেতৃত্বে অভিযানটি পরিচালিত হয়। এসময় উপস্থিত ছিলেন পরিবেশ অধিদপ্তর ঢাকার এনফোর্সমেন্ট শাখার উপপরিচালক ডা: আব্দুল্লাহ আল মামুন, নারায়ণগঞ্জ শাখার উপ পরিচালক সাঈদ আনোয়ার, পরিদর্শক মঈনুল হক, মো: আব্দুল গফুর, আসাদুল কিবরিয়াসহ র‌্যাব, পুলিশ, পল্লীবিদ্যুতের সদস্যরা।

পরিবেশ অধিদপ্তর নারায়ণগঞ্জ শাখার উপ পরিচালক সাঈদ আনোয়ার প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানায়, নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জের মাছুমাবাদ এলাকায় ইটিপি ও পরিবেশগত ছাড়পত্র ব্যতীত কারখানা পরিচালনার মাধ্যমে শীতলক্ষ্যা নদী দূষণের অভিযোগে পূর্বাচল পেপার মিলের বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়। এর পাশাপাশি ওই কারখানাটিকে ৪৬ লাখ ৮৭ হাজার ২০০ টাকা ক্ষতিপূরণ ধার্য করা হয়।

রূপগঞ্জের মিঠাব এলাকায় ৩০০ বর্গফুট নদী দখল ও ভরাট করার অভিযোগে হাশেম পেপার মিলকে ৩ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়। ভরাটকৃত মাটি অপসারণ করে পূর্বের অবস্থায় ফিরিয়ে আনার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

রূপগঞ্জের মিঠাব এলাকায় ইটিপি ও পরিবেশগত ছাড়পত্র ব্যতীত কারখানা পরিচালনার মাধ্যমে শীতলক্ষ্যা নদী দূষণের অভিযোগে অনন্ত পেপার মিলের বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়। এর পাশাপাশি ওই কারখানাটিকে ৪৫ লাখ ২১ হাজার ৬০০ টাকা ক্ষতিপূরণ ধার্য করা হয়।

একই এলাকায় ইটিপি ও পরিবেশগত ছাড়পত্র ব্যতীত কারখানা পরিচালনার মাধ্যমে শীতলক্ষ্যা নদী দূষণের অভিযোগে ইউনুছ পেপার মিলের বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়। এর পাশাপাশি ওই কারখানাটিকে ৩ কোটি ১৬ লাখ ৫১ হাজার ২০০ টাকা ক্ষতিপূরণ ধার্য করা হয়।

রূপগঞ্জের মুড়াপাড়া মঙ্গলখালী এলাকায় ৯ হাজার ৪৫০ বর্গফুট নদী দখল ও ভরাট করার অভিযোগে সুপার ক্রিস্টাল সল্ট লিমিটেডকে ৯৪ লাখ ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। ভরাটকৃত মাটি ১ মাসের মধ্যে অপসারণ করে পূর্বের অবস্থায় ফিরিয়ে আনার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

একই এলাকায় ১ লাখ বর্গফুট নদী দখল ও ভরাট করার অভিযোগে এসিআই সল্ট লিমিটেডকে ১ কোটি টাকা জরিমানা করা হয়। ভরাটকৃত মাটি অপসারণ করে পূর্বের অবস্থায় ফিরিয়ে আনার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

রূপগঞ্জের মুড়াপাড়া শিবগঞ্জ এলাকায় ২১ হাজার বর্গফুট নদী দখল ও ভরাট করার অভিযোগে আফজাল ফুড প্রোডাক্টসকে ২১ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়। ভরাটকৃত মাটি অপসারণ করে পূর্বের অবস্থায় ফিরিয়ে আনার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।


বিভাগ : অর্থনীতি


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও