সম্পদের পাহাড় গড়া প্যারাডাইজ মালিকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ দাবী

সিটি করেসপন্ডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ১০:১০ পিএম, ২৬ জুলাই ২০২০ রবিবার

সম্পদের পাহাড় গড়া প্যারাডাইজ মালিকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ দাবী

প্যারাডাইজ কেবলস শ্রমিকদের বকেয়া বেতন পরিশোধ নিয়ে শ্রমিকেরা ২৬ জুলাই (রবিবার) সকাল ১১ টায় চাষাঢ়া শহীদ মিনারে বিক্ষোভ দেখিয়েছে। সমাবেশ শেষে একটি বিক্ষোভ মিছিল শহরের প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে চাষাঢ়া সলিমুল্লাহ রোডে অবস্থিত কল কারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদপ্তর ঘেরাও করে বিক্ষোভ করা হয়।

এদিে রাখেন সংগঠনের কেন্দ্রীয় কমিটির নেতা দুলাল সাহা, জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন, সহ-সাধারণ সম্পাদক দিলীপ কুমার দাস, প্যারাডাইজ কেবল শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক মোঃ রুবেল, ফকির নীটের শ্রমিক মনোয়ার হোসেন ও সানোয়ারা বেগম প্রমুখ।

নেতৃবৃন্দ বলেন প্যারাডাইজ কেবল লিঃ শ্রমিকদের দীর্ঘ লড়াই সংগ্রামের পর গত ২ জুলাই শ্রম মন্ত্রণালয়ে শ্রম প্রতিমন্ত্রী মুন্নুজান সুফিয়ানের নেতৃত্বে মালিক পক্ষের সাথে আলোচনা করে সিদ্ধান্ত দেয়া হয়েছিলো ১২ মাসের বকেয়া বেতন চার কিস্তিতে ৩ মাস করে বেতন এক সাথে দেয়া হবে। প্রথম কিস্তি ২৬ জুলাই (রবিবার) দেওয়ার কথা ছিলো কিন্তু মালিকেরা কথা রাখেনি।

প্যারাডাইজ কেবল লিঃ মালিকদের এই আচরণের ধিক্কার জানিয়ে নেতৃবৃন্দ বলেন, এই কারখানার মালিকদের বিরুদ্ধে সরকারের পক্ষ থেকে দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ করে শ্রমিকদের বেতন প্রদানের কার্যকরি পদক্ষেপ নিতে হবে।

এ ব্যাপারে বিকেএমইএ সভাপতি সেলিম ওসমান এমপি বলেন, আমি নারায়ণগঞ্জের জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপারের কাছে অনুরোধ রাখছি প্রয়োজনে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হোক। গত একটি বছর ধরে তাদের ৪ ভাইয়ের নিজেদের মধ্যে বিরোধের কারণে শ্রমিক কর্মচারী সহ প্রায় ৫০০ মানুষকে হয়রানী করা হচ্ছে। শ্রম মন্ত্রনালয়ের মাননীয় প্রতিমন্ত্রীর কাছে ২ জুলাই তারা লিখিত আকারে পাওনা পরিশোধের বিষয়টি অঙ্গিকার করেছিলো। কিন্তু আজকে তারা পাওনা পরিশোধ করেনি। এতে করে নারায়ণগঞ্জে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি হতে পারে। আজকে শ্রমিকেরা আশায় বুক বেধে ছিলা। রাষ্ট্রকে কথা দেওয়ার পরও তারা শ্রমিকদের পাওনা পরিশোধ করেনি। অথচ গুঞ্জন রয়েছে তাদের কোন ভাইয়েরা শুধু দেশেই নয় বিদেশেও বিশাল সম্পদের পাহাড় গড়েছে। আবার ব্যাংক থেকে বিশাল অংকের লোন নিয়ে তারা কারখানা বন্ধ রেখে ব্যাংকের টাকা আত্মসাৎ করছে বলেও জানা গেছে। লিখিতভাবে শ্রমপ্রতিমন্ত্রীকে অঙ্গিকার করেও তারা তা রক্ষা করেনি। এতে করে তারা রাষ্ট্রকেও অসম্মান করেছে বলে আমি মনে করি এবং বিষয়টি ব্যবসায়ী সমাজ কখনোই মেনে নিবেন না। সুতরাং তাদের বিরুদ্ধে অবশ্যই আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করে ঈদের পূর্বে শ্রমিকদের পাওনা পরিশোধের ব্যাপারে যথাযথ পদক্ষেপ প্রশাসনের পক্ষ থেকে নেওয়া আবশ্যক বলে আমি মনে করি।

‘পাশাপাশি শ্রমিকদের প্রতি আমার অনুরোধ থাকবে আমরা আপনাদের ন্যায পাওনা পরিশোধের বিষয়ে আপনাদের পাশে আছি থাকবো। কিন্তু আপনার রাস্তায় নেমে বিশৃঙ্খলা করবেননা। চারিদিকে করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে আপনারা নিজেদের নিরাপদ রাখুন। এ বিষয়টি সুষ্ঠু সমাধানের জন্য আমি ডিসি এসপি এবং নারায়ণগঞ্জের ব্যবসায়ী মহল ও শ্রমিক নেতৃবৃন্দ সকলের সহযোগীতা চাই।’


বিভাগ : অর্থনীতি


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও