২৯ অগ্রাহায়ণ ১৪২৪, বুধবার ১৩ ডিসেম্বর ২০১৭ , ৭:১৭ অপরাহ্ণ

নারায়ণগঞ্জে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের ফলাফল শূণ্য!


স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ

প্রকাশিত : ০৯:১৩ পিএম, ১৯ নভেম্বর ২০১৭ রবিবার


নারায়ণগঞ্জে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের ফলাফল শূণ্য!

নারায়ণগঞ্জে জেলার কয়েকটি স্কুলের নির্বাচনি অর্থাৎ টেস্ট পরীক্ষায় ফেল করা শিক্ষার্থীরা এসএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণের দাবিতে আন্দোলন করে। স্কুল কর্তৃপক্ষ আন্দোলনের সুরাহা করতে বিশেষ পরীক্ষার ব্যবস্থা করলে শিক্ষার্থীরা তা মেনে নিয়ে পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করলে লক্ষ্মী নারায়ণ কটন মিলস স্কুলের শিক্ষার্থীদের কেউ পাশ করতে পারেনি আর মর্গ্যান গার্লস স্কুলের এক তৃতীয়াংশ পাশ করে। এতে করে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের ফলাফল একেবারে শূন্যতে নেমে এসেছে।

সম্প্রতি শহরের মর্গ্যান গার্লস স্কুল ও গোদনাইল এলাকার লক্ষ্মীনারায়ণ কটন মিলস স্কুলের টেস্ট পরীক্ষায় ফেল করা শিক্ষার্থীরা আন্দোলন করে এসএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণের জন্য। প্রথমে মর্গ্যান গার্লস স্কুলে আন্দোলন ও আত্মহত্যার চেষ্টায় কয়েকজন শিক্ষার্থী অসুস্থ হয়ে পড়ে। অন্যদিকে লক্ষ্মী নারায়ণ স্কুলের ফেল করা শিক্ষার্থীরাও তাদের অনুসরণ করে আন্দোলন শুরু করে।

স্কুল সূত্রে জানা যায়, প্রত্যেক বছর দু এক বিষয়ে ফেল করা শিক্ষার্থীদের স্বাভাবিকভাবে সুযোগ দেয়া হয়। প্রতিবছরের মত এ বছরও নির্দিষ্ট কয়েকটি বিষয়ে ফেল করা শিক্ষার্থীদের প্রথম দিক থেকেই সুুযোগি দিয়ে দিলেও বাকিরা সুযোগের আশায় আন্দোলন চালিয়ে যায়। সবশেষে স্কুল কর্তৃপক্ষ আন্দোলন থামাতে বিশেষ পরীক্ষা নেয়ার কথা জানালে শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা তা মেনে নেয়। কিন্তু লক্ষ্মী নারায়ণ স্কুলের বিশেষ পরীক্ষায় অংশগ্রহণকারী শতাধিক শিক্ষার্থীদের কেউই পাশ করতে পারেনি। অন্যদিকে মর্গ্যান গার্লস স্কুলের শিক্ষার্থীদের বিশেষ পরীক্ষায় অংশগ্রহণকারী ৬৮ জনের মধ্যে মাত্র ২২ জন পাশ করে।

লক্ষ্মী নারায়ণ স্কুলে ১০১ জন শিক্ষার্থী বিশেষ পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করলে কেউ পাশ করেনি। এমনকি সর্বোচ্চ দু জন শিক্ষার্থী ৭০ নম্বরের মধ্যে মাত্র ১০ নম্বর করে পায় বাকিরা দুই সংখ্যার গন্ডি পর্যন্ত পৌঁছাতে পারেনি। এদিকে মর্গ্যান গার্লস স্কুলের বিশেষ পরীক্ষায়র ফলাফল তাদের তুলনায় ভাল হলেও তাতেও দুই-তৃতীয়াংশ শিক্ষার্থীরা পরীক্ষায় ফেল করার কারণে বাদ পড়ে।

সংশ্লিষ্টদের মতে, শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের মুখে শিক্ষকদের বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ উঠলেও স্কুল  কর্তৃপক্ষ পিছু হাটতে বাধ্য হয়। তবে স্কুল কর্তৃপক্ষ বিশেষ পরীক্ষার মধ্য দিয়ে আন্দোলন করা শিক্ষার্থীদের সুযোগ দেয়ার কথা জানালে। তবে অবশেষে শিক্ষার্থীদের  আন্দোলনের ফলাফল শিক্ষার্থীদের পরীক্ষার ফলাফলের কারণে শূণ্যে পরিণত হয়েছে। যদিও মর্গ্যান স্কুলের শিক্ষার্থীদের কিছুটা পাশ করলেও তা খুব একটা সন্তুষ্টজনক নয়। আগে এসব আন্দোলন ঢাকার বিভিন্ন কলেজ কিংবা বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে দেখা গেলেও বর্তমানে বিভিন্ন জেলাতেও আন্দোলনের ভুত শিক্ষার্থীদের  ঘারে চেপে বসেছে। আর এভাবে আন্দোলনের মধ্য দিয়ে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে জিম্মি করতে থাকলে এক সময় শিক্ষা খাত ধ্বংস হতে থাকবে।

নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
Shirt Piece

শিক্ষাঙ্গন -এর সর্বশেষ