৩০ অগ্রাহায়ণ ১৪২৪, শুক্রবার ১৫ ডিসেম্বর ২০১৭ , ১২:৪০ পূর্বাহ্ণ

আন্দোলনের সফলতায় ভাসছে বন্দর গার্লসের শিক্ষার্থীরা


সিটি করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ

প্রকাশিত : ০৮:৩৬ পিএম, ৫ ডিসেম্বর ২০১৭ মঙ্গলবার | আপডেট: ০২:৩৬ পিএম, ৫ ডিসেম্বর ২০১৭ মঙ্গলবার


আন্দোলনের সফলতায় ভাসছে বন্দর গার্লসের শিক্ষার্থীরা

নারায়ণগঞ্জ বন্দর গার্লস স্কুলের আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের ৮৯ জনের মধ্যে ৫৭ জন ফরম ফিলাপের সুযোগ পেয়েছে। এদের মধ্যে ৯ জন সরাসরি ফরম ফিলাপের সুযোগ পেলেও বাকিরা বিশেষ পরীক্ষার মধ্য দিয়ে পাশ করে ফরম ফিলাপের সুযোগ পায়। স্কুলের দুর্নীতি বন্ধে টানা আন্দোলনের মধ্য দিয়ে শিক্ষার্থীরা বিশেষ পরীক্ষার সুযোগে তাদের যোগ্যতা প্রমাণ করে ফরম ফিরাপের সুযোগ পায়।

৫ ডিসেম্বর মঙ্গলবার দুপুরে বন্দর গার্লস স্কুলের বিশেষ পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশের মধ্য দিয়ে শিক্ষার্থীরা উচ্ছ্বাসে ফেটে পড়েন। এতে করে শিক্ষার্থীরা এসএসসি পরীক্ষার ফরম ফিলাপের সুযোগ পায়।

প্রসঙ্গত বন্দর গার্লস স্কুলের টেস্ট পরীক্ষায় সব বিষয়ে ফেল করা শিক্ষার্থীদের সুযোগ দিলেও কয়েক বিষয়ে ফেল করা শিক্ষার্থীদের এই সুযোগ থেকে বঞ্চিত করা হয়। এতে বঞ্চিত শিক্ষার্থীরা আন্দোলনের পথ বেছে নেয়। টানা আন্দোলনের মধ্যে ঢাকা শিক্ষা বোর্ড থেকে ফরম ফিলাপের সুযোগ বাড়িয়ে দেয়া হলেও প্রধান শিক্ষক মো. বদরুজ্জামান এসব শিক্ষার্থীদের সুযোগ দিবেনা বলে সাফ জানিয়ে দেয়।

অন্যদিকে শিক্ষার্থীরা তাদের আন্দোলন চালিয়ে যায়। এসময় জেলা প্রশাসকের তদারকিতে তদন্ত সাপেক্ষে ৯ জন শিক্ষার্থীকে সরাসরি এসএসসি পরীক্ষার ফরম ফিলাপের সুযোগ দেয়। এছাড়া বাকি ৮০ জন শিক্ষার্থীরা ৪ ডিসেম্বর সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত ৩ বিষয়ে পরীক্ষা দিলে পরের দিন ৫ ডিসেম্বর দুপুরে পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশ হয়। এতে ৪৮ জন শিক্ষার্থী বিশেষ পরীক্ষায় পাশ করেন বলে জানিয়েছে স্কুল কর্তৃপক্ষ।

স্কুলের সহকারি প্রধান শিক্ষক ইসমাইল মুঠোফোনে জানান, ‘বাদ পড়া শিক্ষার্থীদের ৯ জন কম বিষয়ে ফেল করার কারণে সরাসরি ফরম ফিলাপের সুযোগ পায়। আর বাকি ৮০ জন শিক্ষার্থী বিশেষ পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করলে ৪৮ জন পাশ করেন। এই পাশ করা সবাই ফরম ফিলাপ করবে।’

এদিকে স্কুলের পাশ করা শিক্ষার্থীরা উচ্ছ্বাসিত মনোভাব নিয়ে নিউজ নারায়ণগঞ্জকে জানায়, ‘আমরা এখন অনেক খুশি। আমাদের আন্দোলন যে, সঠিক ছিল এই পরীক্ষার ফলাফলই তার প্রমাণ। এখন আর কেউ বলতে পারবেনা, আমরা অযথা আন্দোলন করেছি। আমরা ন্যায়ের পথে আন্দোলন করেছি বলেই আজকে আমাদের সুন্দর ভবিষ্যতের পথ সুগম ও প্রসারিত হয়েছে। আর যাদি আজকে এই ন্যায়সঙ্গত সুযোগটা শিক্ষার্থীরা না পেত তাহলে অনেক শিক্ষার্থী ঝরে যেত। কিন্তু এই পরীক্ষার মধ্য দিয়ে একদিকে আমাদের যোগ্যতা প্রমাণিত হয়েছে, অন্যদিকে আমাদের এসএসসি পরীক্ষার ফরম ফিলাপের সুযোগ হয়েছে।

শিক্ষার্থীরা আরো বলছেন, ‘আমরা চাই আমাদের মত আর কোন শিক্ষার্থীদের সাথে যেন অন্যায় না হয়। স্কুল কর্তৃপক্ষ যেন আজগুবি গ্রেজের মধ্য দিয়ে কোন শিক্ষার্থীর প্রতি যেন অবিচার না করে এটা আমাদের জোর দাবি থাকবে। স্কুল কর্তৃপক্ষ হয়তো কাজটা বুঝে করেনি। কিন্তু এর মধ্য দিয়ে অনেক শিক্ষার্থীরা ভবিষ্যত ও জীবন ধ্বংস হয়ে যেতে পারে।
এদিকে পাশ করা শিক্ষার্থীদের অভিভাবকরা জানায়, ‘বিশেষ পরীক্ষার ফলাফলে আমরা সন্তুষ্ট। এই পরীক্ষার কারণে আজকে অনেকগুলো শিক্ষার্থী এসএসসি পরীক্ষার সুযোগ পেয়েছে। ছাত্রীদের বেশির ভাগ পাশ করেছে। আর যদি আজকে এই পরীক্ষা না নেয়া হত তাহলে অনেক শিক্ষার্থী পিছিয়ে পড়ত। আবার অনেকে শিক্ষার্থী ঝরে পড়ত। তাই এই বিশেষ পরীক্ষা নেয়ার সিদ্ধান্ত খুবই যুক্তিসঙ্গত ছিল। কারণ, যারা যোগ্যতা সম্পন্ন শিক্ষার্থী তারা পাশ করে এসএসসি পরীক্ষার ফলম ফিলাপ করবে।

নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
Shirt Piece

শিক্ষাঙ্গন -এর সর্বশেষ