৬ কার্তিক ১৪২৫, রবিবার ২১ অক্টোবর ২০১৮ , ৫:১৭ অপরাহ্ণ

UMo

ধর্মঘট ডাক দিলেও নারায়ণগঞ্জের কলেজগুলো ছিল প্রভাবহীন


স্টাফ করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ

প্রকাশিত : ০৮:৪৪ পিএম, ১৪ মে ২০১৮ সোমবার


ধর্মঘট ডাক দিলেও নারায়ণগঞ্জের কলেজগুলো ছিল প্রভাবহীন

কোটা বাতিলের প্রজ্ঞাপন দাবিতে বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষন পরিষদের পক্ষ  থেকে থেকে  সারাদেশে ছাত্র ধর্মঘটের ডাক দেয়া হলেও নারায়ণগঞ্জে এর কর্মসূচি পালন করতে দেখা যায়নি।  এমনকি এর কোন ধরণের প্রভাব পড়েনি।  আর শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোতে স্বাভাবিক কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে। তবে নারায়ণগঞ্জের কোটা আন্দোলকারীদের কয়েকজনকে মারধর ও হুমকির ঘটনায় এ আন্দোলন থমকে গেলে বলে গুঞ্জন রয়েছে।

১৪ মে সোমবার বিকেল পর্যন্ত নারায়ণগঞ্জে এই আন্দোলনের কোন কার্যক্রম দেখা যায়নি।

জানা গেছে, গত রোববার দুপুরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র শিক্ষক কেন্দ্রে (টিএসসি) এক সংবাদ সম্মেলনে কোটা সংস্কার আন্দোলনের প্ল্যাটফর্ম ‘বাংলাদেশে সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ’ এর পক্ষ থেকে সোমবার সকাল ১০টা থেকে দেশের সব বিশ্ববিদ্যালয় ও কলেজে অনির্দিষ্টকালের ছাত্র ধর্মঘট ও অবস্থান কর্মসূচি পালনের ঘোষণা দিয়েছিলেন তারা।  কোটা সংস্কারের বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণা অনুযায়ী প্রজ্ঞাপন জারির দাবিতে আলটিমেটাম শেষে ফের কঠোর আন্দোলনে নামছেন শিক্ষার্থীরা।

এর আগে কোটা বাতিলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দেয়া ঘোষণা ৩০ এপ্রিলের মধ্যে বাস্তবায়নের দাবিতে ২৬ এপ্রিল আলটিমেটাম দিয়েছিলেন আন্দোলনকারীরা।  এরপর আরো কয়েকদফা আল্টিমেটামের সময় বর্ধিত হলেও সেই দাবি বাস্তবায়ন হয়নি।  কিন্তু চতুর্থ দফা আলটিমেটাম অনুযায়ী প্রজ্ঞাপন জারি না হলে ১৩ মে রোববার বিক্ষোভের ডাক দেন আন্দোলনকারীরা।  ওই বিক্ষোভ থেকে ১৪ মে সোমবার থেকে লাগাতার ছাত্র ধর্মঘটের ডাক দেয়া হয়।

এদিকে নারায়ণগঞ্জে এর আগে কোটা আন্দোলনে নারায়ণগঞ্জের ছাত্রদের আন্দোলন করতে দেখা গেছে।  কিন্তু সোমবারের ধর্মঘটে সেই আন্দোলনের কোন চিহ্ন দেখা যায়নি।  যদিও রাজধানীর শাহাবাগে এই আন্দোলন কর্মসূচি সারাদিন ব্যাপী পালিত হয়েছে।  এসময় এ্যাম্বুলেন্স ছাড়া অন্য সব যান চলাচল বন্ধ ছিল।  রাজধানীতে আন্দোলনাকারীদের এই চিত্র দেখা গেলেও নারায়াণগঞ্জে এর কোন প্রভাব পড়েনি।

এদিকে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা বলছে, আজকে তাদের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো স্বাভাবিক নিয়মে কার্যক্রম চালিয়েছে।  তাদের কোন বাধা বিপত্তি আসেনি।  এমনকি এই বিষয়ে অনেক শিক্ষার্থীরা জানেনা।  আবার অনেকে জানলেও এটাকে জাতীয় ইস্যু বলে পাশ কাটিয়ে গেছে।

তবে একাধিক সূত্র বলছে, বিগত কিছুদিন আগে নারায়ণগঞ্জে কোটা নিয়ে আন্দোলনকারীদের কয়েকজনকে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা মারধর সহ হুমকির নানা ঘটনা ঘটেছে।  নারায়ণগঞ্জে কোটা আন্দোলকারীদের মধ্যে সাংবাদিক ও শিক্ষার্থী সিয়ামকে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা মারধরের অভিযোগ তোলা হয়েছিল।  এছাড়া আরেক আন্দোলনকারী সাংবাদিক ও শিক্ষার্থী এ্যানিকে ফোনে ও সরাসরি বাড়িতে গিয়ে হুমকির ঘটনায় তিনি থানায় জিডি পর্যন্ত করেছেন।  কোটা আন্দোলনকারীরা এর আগে সব ধরণের আন্দোলন করে এসেছে।  কিন্তু এসব আন্দোলনকারীদের মারধর ও হুমকির ঘটনায় পর থেকে তারা অনেকটা নিস্ক্রিয় হয়ে পড়েন।  এতে করে সাধারণ মানুষের মনে নানা প্রশ্নের আবির্ভাব হচ্ছে।

নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
Shirt Piece

শিক্ষাঙ্গন -এর সর্বশেষ