৬ কার্তিক ১৪২৫, সোমবার ২২ অক্টোবর ২০১৮ , ৮:২৭ পূর্বাহ্ণ

UMo

নারায়ণগঞ্জে এইচএসসিতে জিপিএ পায়নি যেসব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান


সিটি করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ

প্রকাশিত : ০৮:৪৫ পিএম, ১৯ জুলাই ২০১৮ বৃহস্পতিবার


নারায়ণগঞ্জে এইচএসসিতে জিপিএ পায়নি যেসব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান

এইচএসসি পরীক্ষার ফলাফলে এ বছর জিপিএ-৫ এর সংখ্যা মারাত্মকহারে কমেছে। নারায়ণগঞ্জের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর অনেকগুলো প্রতিষ্ঠান জিপিএ-৫ এর দেখা পায়নি। মুষ্ঠি কয়েক প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা জিপিএ-৫ পেলেও না পওয়ার তালিকাটা ছিল সুবিশাল। এমনকি স্বনামধন্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো এ বছর জিপিএ-৫ এর কৃতিত্ব থেকে বাদ পড়েছে।

১৯ জুলাই দুপুরে এইচএসসি পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশ হলে জিপিএ-৫ প্রাপ্তিতে ব্যর্থ হওয়া শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের তালিকা বেড়িয়ে আসে।

নারায়ণগঞ্জ সদর
নারায়ণগঞ্জ সদরে ১০ টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে জিপিএ-৫ এর দেখা মিলেছে। আর বাকি গুলোর একটিতেও কেউ জিপিএ-৫ পায়নি। কানাইনগর সোবহানিয়া স্কুল অ্যান্ড কলেজের পরীক্ষার্থী ছিলেন ৫৬জন, পাশ করেছে ৩২ জন, জিপিএ-৫ কেউ পায়নি, পাশের হার ৫৭ দশমিক ১৪। এরিবস ইন্টারন্যাশনাল স্কুল অ্যান্ড কলেজের পরীক্ষার্থী ছিলেন ২৪জন, পাশ করেছে ১৬ জন, জিপিএ-৫ কেউ পায়নি, পাশের হার ৬৬ দশমিক ৬৭।নারায়ণগঞ্জ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় অ্যান্ড কলেজে পরীক্ষার্থী ছিলেন ৪৩জন, পাশ করেছে ৭ জন, জিপিএ-৫ পায়নি কেউ, পাশের হার ১৬ দশমিক ২৮।নারায়ণগঞ্জ কমার্স কলেজে পরীক্ষার্থী ছিলেন ৩১৭জন, পাশ করেছে ২৫৬ জন, জিপিএ-৫ পেয়েছেন ০০ জন, পাশের হার ৮০ দশমিক ৭৬ ভাগ। নারায়ণগঞ্জ মডেল কলেজে পরীক্ষার্থী ছিলেন ৫১জন, পাশ করেছে ৪৭ জন, জিপিএ-৫ পেয়েছেন ০০ জন, পাশের হার ৯২ দশমিক ১৬ ভাগ। ইকরা কমার্স কলেজে পরীক্ষার্থী ছিলেন ১০জন, পাশ করেছে ৭জন, জিপিএ-৫ পেয়েছেন ০০ জন, পাশের হার ৭০ ভাগ। ইস্টার্ন আইডিয়াল কলেজে পরীক্ষার্থী ছিলেন ৬১জন, পাশ করেছে ২২ জন, জিপিএ-৫ কেউ পায়নি, পাশের হার ৩৬ দশমিক ০৭ভাগ। কমর আলী হাই স্কুল অ্যান্ড কলেজে পরীক্ষার্থী ছিলেন ১২৪জন, পাশ করেছে ৩৬ জন, জিপিএ-৫ পেয়েছেন ০০ জন, পাশের হার ২৯ দশমিক ৩ ভাগ। 

রূপগঞ্জ উপজেলা
রুপগঞ্জ উপজেলার একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে জিপিএ-৫ এর দেখা মিলেনি। ভুলতা উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে পরীক্ষার্থী ছিলেন ৮৯জন, পাশ করেছে ৬৬ জন, জিপিএ-৫ পেয়েছেন ০০ জন, পাশের হার ৭৪ দশমিক ১৬। নাবা কিশোলয় হাই স্কুলে পরীক্ষার্থী ছিলেন ৩১জন, পাশ করেছে ১৯ জন, জিপিএ-৫ কেউ পায়নি, পাশের হার ৬১ দশমিক ২৯ ভাগ। রূপসী নিউ মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজে পরীক্ষার্থী ছিলেন ৫৭জন, পাশ করেছে ৫৫ জন, জিপিএ-৫ কেউ পায়নি, পাশের হার ৯৬ দশমিক ৪৯। হাজী মোহাম্মদ এখলাসউদ্দিন ভূইয়া কলেজে পরীক্ষার্থী ছিলেন ১৩জন, পাশ করেছে ১২ জন, জিপিএ-৫ কেউ পায়নি, পাশের হার ৯২ দশমিক ৩১ভাগ। মুড়াপাড়া কলেজে পরীক্ষার্থী ছিলেন ৪২১জন, পাশ করেছে ৩২৪ জন, জিপিএ-৫ কেউ পায়নি, পাশের হার ৭৬ দশমিক ৯৬ভাগ।  নুরুন্নেছা উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে পরীক্ষার্থী ছিলেন ১৩৫জন, পাশ করেছে ১০৩ জন, জিপিএ-৫ পেয়েছেন ০০ জন, পাশের হার ৭৬ দশমিক ৩০ ভাগ। পূর্বাচল আদর্শ স্কুলে পরীক্ষার্থী ছিলেন ৬৮জন, পাশ করেছে ৪৬ জন, জিপিএ-৫ কেউ পায়নি, পাশের হার ৬৭ দশমিক ৬৫ ভাগ।  আলহাজ্ব লায়ন মোহাম্মদ হাবিবুর রহমান হারেজ সিটি কলেজে পরীক্ষার্থী ছিলেন ৫৮জন, পাশ করেছে ৫৬জন, জিপিএ-৫ পেয়েছেন ০০ জন, পাশের হার ৯৬ দশমিক ৫৫। এএইচবি ইন্টারন্যাশনাল কলেজে পরীক্ষার্থী ছিলেন ১৩১জন, পাশ করেছে ১০২জন, জিপিএ-৫ পেয়েছেন ০০ জন, পাশের হার ৭৭ দশমিক ৮৬।সলিমউদ্দিন চৌধুরী কলেজে পরীক্ষার্থী ছিলেন ৩৩০জন, পাশ করেছে ৩২৩ জন, জিপিএ-৫ পেয়েছেন ০০ জন, পাশের হার ৯৭ দশমিক ৮৮ ভাগ।

আড়াইহাজার উপজেলা
আড়াইহাজার উপজেলায় ৪টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে জিপিএ-৫এর দেখা মিললেও বাকি দুটোতে জিপিএ-৫ পায়নি।  কবি নজরুল স্কুল অ্যান্ড কলেজে পরীক্ষার্থী ছিলেন ৭২জন, পাশ করেছে ৬৯ জন, জিপিএ-৫ কেউ পায়নি, পাশের হার ৯৫.৮৩ ভাগ। পাচরুখী বেগম আনোয়ার কলেজে পরীক্ষার্থী ছিলেন ২৯০ জন, পাশ করেছে ২৫৬ জন, জিপিএ-৫ পেয়েছেন ০০ জন, পাশের হার ৮৮ দশমিক ২৮ ভাগ। 

সোনারগাঁও উপজেলা
সোনারাগাঁও উপজেলাতে দুটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ব্যাতীত বাকি সবগুলোতে জিপিএ-৫ এর দেখা মিলেনি। হোসাইনপুর এসপি ইউনিয়ন কলেজে পরীক্ষার্থী ছিলেন ৭২জন, পাশ করেছে ৩৮ জন, জিপিএ-৫ কেউ পায়নি, পাশের হার ৫২ দশমিক ৭৮ ভাগ। মেঘনা শিল্প নগরী স্কুল অ্যান্ড কলেজে পরীক্ষার্থী ছিলেন ৯৩ জন, পাশ করেছে ৬৬  জন, জিপিএ-৫ কেউ পায়নি, পাশের হার ৭০ দশমিক ৯৭ ভাগ।বারদি স্কুল অ্যান্ড কলেজে পরীক্ষার্থী ছিলেন ১৯জন, পাশ করেছে ৮ জন, জিপিএ-৫ কেউ পায়নি, পাশের হার ৪২ দশমিক ১১ ভাগ। সোনারগাঁও কলেজে পরীক্ষার্থী ছিলেন ৮৬৬ জন, পাশ করেছে ২৮৯ জন, জিপিএ-৫ পেয়েছেন ০০ জন, পাশের হার ৩৩ দশমিক ৩৭ ভাগ।  সিনহা উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে পরীক্ষার্থী ছিলেন ১৭৯জন, পাশ করেছে ১৪৭ জন, জিপিএ-৫ পেয়েছেন ০০ জন, পাশের হার ৮২ দশমিক ১২ ভাগ। সোনারগাঁও আইডিয়াল কলেজে পরীক্ষার্থী ছিলেন ১৩০জন, পাশ করেছে ৩২ জন, জিপিএ-৫ কেউ পায়নি, পাশের হার ১৪ দশমিক ৬২ ভাগ। সোনারগাঁও নলেজ কিং কলেজে পরীক্ষার্থী ছিলেন ১১০জন, পাশ করেছে ৬১ জন, জিপিএ-৫ পেয়েছেন ০০ জন, পাশের হার ৫৫ দশমিক ৪৫ ভাগ। ইউসুফগঞ্জ স্কুল অ্যান্ড কলেজে পরীক্ষার্থী ছিলেন ১৭০জন, পাশ করেছে ১০১ জন, জিপিএ-৫ কেউ পায়নি, পাশের হার ৫৯ দশমিক ৪১ ভাগ।

বন্দর উপজেলা
বন্দর উপজেলাতে একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ব্যাতীত বাকিগুলোতে কোন জিপিএ-৫ নেই। ঢাকেশ্বরী মিলস স্কুল অ্যান্ড কলেজে পরীক্ষার্থী ছিলেন ৪০জন, পাশ করেছে ২৮ জন, জিপিএ-৫ কেউ পায়নি, পাশের হার ৭০  ভাগ। হাজী ইব্রাহিম আলম চান মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজে পরীক্ষার্থী ছিলেন ২৮৫জন, পাশ করেছে ১৮০ জন, জিপিএ-৫ কেউ পায়নি, পাশের হার ৬৩ দশমিক ১৬ ভাগ। বিএম ইউনিয়ন স্কুল অ্যান্ড কলেজে পরীক্ষার্থী ছিলেন ৩৪জন, পাশ করেছে ১৯ জন, জিপিএ-৫ পেয়েছেন ০০ জন, পাশের হার ৫৫ দশমিক ৮৮ ভাগ। কদমরসুল কলেজে পরীক্ষার্থী ছিলেন ৬১৫জন, পাশ করেছে ২২৯ জন, জিপিএ-৫ পেয়েছেন ০০ জন, পাশের হার ৩৭ দশমিক ২৪ ভাগ। নাজিম উদ্দিন ভূইয়া কলেজ পরীক্ষার্থী ছিলেন ৪৩২ জন, পাশ করেছে ১৬৮ জন, জিপিএ-৫ পেয়েছেন ০০ জন, পাশের হার ৩৮ দশমিক ৮৯ ভাগ।

rabbhaban

নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
Shirt Piece

শিক্ষাঙ্গন -এর সর্বশেষ