হাতে খড়ি ও পুষ্পাঞ্জলী অর্পণে শিক্ষার্থীদের সরস্বতী পূজা

সিটি করেসপন্ডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৮:০৪ পিএম, ১০ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ রবিবার

হাতে খড়ি ও পুষ্পাঞ্জলী অর্পণে শিক্ষার্থীদের সরস্বতী পূজা

জ্ঞান ও বিদ্যার দেবীর কাছে হাতে খড়ি দিয়ে শিক্ষাজীবন শুরু ও পুষ্পাঞ্জলী অর্পণের মধ্যে দিয়ে নারায়ণগঞ্জে পালিত হয়েছে শিক্ষার্থীদের সরস্বতী পূজা।

১০ ফেব্রুয়ারী রোববার সকাল ৬টা থেকে নারায়ণগঞ্জের বিভিন্ন স্কুল, কলেজ, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, মন্দির, আশ্রম সহ বাসা বাড়িতে বিভিন্ন আয়োজনের মধ্যে দিয়ে পূজা অনুষ্ঠিত হয়। এসময় শিক্ষার্থীরা “সরস্বতী মহাভাগে বিদ্যে কমললোচনে, বিশ্বরূপে বিশালাক্ষী বিদ্যাংদেহী নমোহস্তুতে” এ মন্ত্র উচ্চারণ করে বিদ্যা ও জ্ঞান অর্জনের দেবী সরস্বতীর পূজা অর্চনা ও পুষ্পাঞ্জলীর অর্পণ করেন।

সকাল ৮টায় নারায়ণগঞ্জ তোলারাম বিশ্ববিদ্যালয় কলেজে, নারায়ণগঞ্জ কলেজে, মর্গ্যান বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, নারায়ণগঞ্জ হাই স্কুল, রামকৃষ্ণ মিশন আশ্রম, দেওভোগ মন্দির, উকিলপাড়া দূর্গা মন্দির সহ বিভিন্ন বাসা বাড়ির ছাদে অস্থায়ী মণ্ডপ করে পূজা অনুষ্ঠিত হয়।

সকাল থেকে নতুন পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন পোষাক পরে পুজা মণ্ডপে ছাত্রছাত্রীরা ভিড় করতে শুরু করে। পূজারী পূজা শেষে সকল শিক্ষাথীদের পাঠ করান সরস্বতীর প্রনাম মন্ত্র “সরস্বতী মহাভাগে বিদ্যে কমললোচনে, বিশ্বরূপে বিশালাক্ষী বিদ্যাংদেহী নমোহস্তুতে”। সবগুলো পূজা মন্ডপে ছিল শিক্ষার্থী ও ভক্তদের উপছে পড়া ভিড়। সকলের একটাই প্রার্থনা, জ্ঞান, বিদ্যা, বুদ্ধিতে সংসম্পন্ন করে দেয়া।

জানা গেছে, হিন্দু সম্প্রদায়ের অন্যতম ধর্মীয় উৎসব সরস্বতী পূজা। বিদ্যাদেবীর কৃপালাভের আশায় নারায়ণগঞ্জের বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এবং ঘরে ঘরে এ পূজা উদযাপন করা হয়। ধর্মীয় বিধান অনুসারে প্রতি বছর মাঘ মাসের শুক্ল পক্ষের  পঞ্চমী তিথিতে সাদা রাজহাঁসে চড়ে বিদ্যা ও জ্ঞানদাত্রী দেবী সরস্বতী পৃথিবীতে আসেন।

পূজারী রতন চক্রবর্তী নিউজ নারায়ণগঞ্জকে বলেন, নারায়ণগঞ্জের প্রতিটি হিন্দু বাড়িতে সরস্বতী পূজা অনুষ্ঠিত হয়ে থাকে। তাই সঠিক ভাবে কেউ বলতে পারবে না কতগুলো পূজা অনুষ্ঠিত হচ্ছে। কিন্তু আমি এ পর্যন্ত  ৬টি পূজা দিয়েছি। সরস্বতী পূজার দিন সকল শিক্ষার্থীরা তারা তাদের লেখাপড়া ভালো হওয়ার জন্য এবং পড়া মনে থাকার জন্য মায়ের কাছে প্রার্থনা করেন।

সরস্বতী পূজা উপলক্ষে বিভিন্ন পূজা মণ্ডপে দুই দিন ব্যাপী কর্মসূচি। প্রথম দিন সকাল থেকে পূজা অর্চনা, শিশু কিশোরদের চিত্রাঙ্কান প্রতিযোগীতা, ধর্মীয় সঙ্গীতানুষ্ঠান। দ্বিতীয় প্রসাদ বিতরণ, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও ধর্মীয় সঙ্গীতানুষ্ঠান। মূলত সরস্বতী পূজা শিক্ষার্থীদের হওয়ায় বিসর্জন করা হয় বিগত বছরের প্রতিমার। নতুন প্রতিমা বছরের জুড়ে পূজা অর্চনার জন্য শিক্ষার্থীদের রুমে কিংবা মন্দিরে রেখে দেয়া হয়।


বিভাগ : শিক্ষাঙ্গন


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও