স্কুল ছাত্রী আহতের প্রতিবাদে সড়ক অবরোধ

সোনারগাঁ করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৭:০০ পিএম, ২ মে ২০১৯ বৃহস্পতিবার

স্কুল ছাত্রী আহতের প্রতিবাদে সড়ক অবরোধ

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ের হাড়িয়া সরাকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী সাবিহা আক্তার রাস্তা পারাপারে সময় দ্রুতগতিতে আসা সিএনজি চাপা দিয়ে আহত করার ঘটনায় সড়ক অবরোধ করেছে শিক্ষার্থী ও এলাকাবাসী।

২ মে বৃহস্পতিবার দুপুরে সড়ক দুই ঘণ্টাব্যাপী অবরোধ করে। এসময় অবরোধকারীরা রাস্তায় ব্যারিকেড দিয়ে কাছের গুড়ি ফেলে রাখে। সিএনজি চালককে এলাকাবাসী গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করেছে। চাপা দেওয়া সিএনজি ভাংচুর করে পাশ্ববর্তী পুকুরে ফেলে রাখে।

এলাকাবাসী সাবিহাকে উদ্ধার করে সোনারগাঁ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে তার অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় চিকিৎসক তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠায়। আহত ওই শিক্ষার্থী সাবিহা হাড়িয়া বৈদ্যোপাড়া গ্রামের সেলিম মিয়ার মেয়ে।

এলাকাবাসী অভিযোগ করেন, বৈদ্যেরবাজার এনএএম পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় ও হাড়িয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা এ স্থানেই রাস্তা পার হয়ে থাকে। স্কুল কর্তৃপক্ষ দায়িত্ব নিয়ে সড়কে গতিরোধক তৈরী করার কথা থাকলেও তা হয়নি। প্রশাসনের প্রতি অনুরোধ প্রতিটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সামনে গতিরোধক তৈরির অনুরোধ করেছেন।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, শিক্ষার্থী ও এলাকাবাসী বিক্ষোভ করছে। এসময় ওই রুটে সকল প্রকার যান চলাচল বন্ধ করে দেয়। যাত্রীদের পায়ে হেঁটে তাদের গৌন্তব্যে পৌঁছাতে দেখা যায়। সিএনজি চালককে এলাকাবাসী গনধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপার্দ করেছে। চাপা দেওয়া সিএনজি ভাংচুর করে পাশ্ববর্তী পুকুরে ফেলে রাখে।

আহত স্কুল ছাত্রী সাবিহার চাচা তৌহিবুর রহমান শ্যামল বলেন, স্কুল কর্তৃপক্ষের গাফিলতির কারনে এ দূর্ঘটনা ঘটেছে। স্কুলের সামনে প্রশাসনের কাছে আবেদন করে গাড়ির জন্য গতিরোধক আইল্যান্ড তৈরি করেনি। আমার ভাতিজী সাবিহার অবস্থা আশংকাজনক।

সোনারগাঁও থানার ওসি মনিরুজ্জামান বলেন, ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। এলাকাবাসী ও শিক্ষার্থীদের শান্ত করার চেষ্টা চলছে।


বিভাগ : শিক্ষাঙ্গন


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও