স্কুল গেইটের বাইরে গেলেই রাস্তায় কাঁদাপানি

স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৯:২৩ পিএম, ৮ ডিসেম্বর ২০১৯ রবিবার

স্কুল গেইটের বাইরে গেলেই রাস্তায় কাঁদাপানি

পাশাপাশি একটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও একটি আধা সরকারি উচ্চবিদ্যালয় দুইটির পশ্চিম দিকে গেইটের সামনে অবস্থিত রাস্তা। গেইটের সামনে থেকে পূর্বদিক থেকে গেছে আরো একটি সংযোগ রাস্তা। এই তিনরাস্তার মোড়েই অবস্থিত বিদ্যালয় দুইটি। কিন্তু বিদ্যালয় দুইটিরই গেইটের বাইরে বের হয়ে রাস্তার যে দিকে তাকানো হয় সেদিকেই থৈথৈ করছে পানি। আর এই পরিস্থিতি একদিনের নয় প্রায় সাড়ে ৩বছর ধরে রাস্তাটিতে ভয়াবহ জলাবদ্ধতা।

এতক্ষণ যে স্কুল দুইটির বর্ণনা করা হয়েছে দুইটি স্কুলেরই অবস্থান নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সাংসদ একেএম মামীম ওসমানের সংসদীয় এলাকা ফতুল্লার ইসদাইরে অবস্থিত ৭২নং সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও ইসদাইর রাবেয়া হোসেন উচ্চ বিদ্যালয়ের। চাঁদমারি থেকে সদর উপজেলা পর্যন্ত সড়ক ও রিংক রোড থেকে উপজেলা সড়কের সযোগা স্থানেই অবস্থিত বিদ্যালয় দুইটি।

৮ ডিসেম্বর রোববার দুপুরে সরেজমিনে দেখা যায় চাঁদমারি থেকে ইসদাইর বাজার পর্যন্ত উপজেলা সড়ক সম্পূর্ণটা জুড়েই হাটু পানি। প্রায় সাড়ে ৩বছর ধরে রাস্তাটিতে ভয়াবহ জলাবদ্ধতা। দীর্ঘদিন জলাবদ্ধতায় ডুবে থাকায় রাস্তার বিভিন্ন স্থানে এখন তৈরী হয়েছে বড় বড় গর্ত। যে কারণে কোনো যানবাহন এই রাস্তা দিয়ে চলাচল করতে চায় না। পায়ে হেঁটে চলাচলের জন্য এলাকাবাসী সড়কের এক পাশে ইটের সুরকির বস্তা ফেলে পায়ে চলার পথ তৈরী করেছে। আর এই পথই এখন এলাকাবাসীর শেষ ভরসা।

অপরদিকে লিংক রোড ও উপজেলা সড়কটির সংযোগ রাস্তাতেও হাঁটু পানি। দীর্ঘদিন ধরে এই সড়কটিরও কোনো সংস্কার করা হয়নি। যে কারণে গর্ত তৈরী হওয়ার পাশাপাশি বিভিন্ন সময় সড়কের উপর ফেলা ইট এখন উচু নিচু হয়ে ঠেলে বেরিয়ে আছে। যে কারণে এই সড়কটিতেও যানবাহন খুব বেশি চলাচল করতে চায় না। তবে যে কয়েকটি যান চলাচল করে সেগুলোও খুব ধীর গতিতে এবং একেবারে কিনার ঘেঁষে।

এলাকাবাসীর মাধ্যমে জানা যায়, এতদিন শুধু উপজেলা সড়কটিতেই জলাবদ্ধতা ছিল। তবে সম্প্রতি তিন রাস্তার মোড়ের পাশেই অবস্থিত কালী পুকুর নামে জলাশয় ভরাট করায় এখন সংযোগ সড়কটিতেও জলাবদ্ধতা তৈরী হয়েছে। ফলে এখন বিদ্যালয় দুইটির তিন দিকের রাস্তাতেই পানি। ফলে ড্রেনের ময়লা মিশ্রিত পানি মাড়িয়ে বিদ্যালয়ে আসতে হয় শিক্ষার্থীদের। বছরের পর বছর চরম দুর্ভোগে বিদ্যালয়ে যাতায়াত করতে হচ্ছে দুই বিদ্যালয়ের অন্তত আড়াই হাজার শিক্ষার্থীকে।

জানা যায়, রাস্তাটি নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের ১২নং ওয়ার্ডের আওতায় তাকলেও তা নাসিকের গ্যাজেটভুক্ত ছিল না। তবে প্রায় ৩মাস আগে উপজেলা সড়কটির পাশ দিয়ে ড্রেন নির্মাণের জন্য জাপানি সংস্থা জাইকার সহযোগীতায় ৩কোটি ১৭রাখ টাকার বাজেট পাশ করে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন। সেই বাজেটের আওতায় চাঁদমারি থেকে ইসদাইর রাবেয়া হোসেন উচ্চ বিদ্যালয় পর্যন্ত রাস্তা সংস্কার ও ড্রেন নির্মাণের কথা রয়েছে। তবে ৬মাস পেরিয়ে গেলেও এখনো কাজ শুরু না করায় শিক্ষার্থী ও এলাকাবাসীসহ কয়েক লাখ মানুষের দুর্ভোগ লাঘব হচ্ছে না।

ভোগান্তি প্রসঙ্গে ইসদাইর রাবেয়া হোসেন উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. মিজানুর রহমান নিউজ নারায়ণগঞ্জকে বলেন, বিদ্যালয়ে আসার সবগুলো সড়কেই পানি। যে কারণে শিক্ষার্থীরা বিদ্যালয়ে আসতে চায় না। অভিভাবকরাও নতুন করে বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের ভর্তি করাহেত চায় না।

তিনি আরো বলেন, আরোও প্রায় ২মাস আগে খবর পেয়েছি ড্রেন নির্মাণের জন্য একটি বাজেট পাশ হয়েছে। কিন্তু এতদিনেও কাজ ধরা হচ্ছে না। যে কারণে শুষ্ক মৌশুমেও এই রাস্তায় হাটু পানি। বর্ষা মৌসুমেতো পানির পরিমাণ আরো থাকে। এতে করে শিক্ষক শিক্ষার্থী সহ কয়েক লাখ এলাকাবাসী ভয়াবহ দুর্ভোগের মধ্যে আছি।

তবে এ প্রসঙ্গে কথা বলার জন্য নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের ১২নং ওযার্ড কাউন্সিলর শওকত হাসেম শকুর সঙ্গে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি ফোন ধরেননি।


বিভাগ : শিক্ষাঙ্গন


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও