ছাত্র আন্দোলনের প্রভাব চাষাঢ়া বৃক্ষ মেলায়

৫ ভাদ্র ১৪২৫, সোমবার ২০ আগস্ট ২০১৮ , ৮:২৬ অপরাহ্ণ

ছাত্র আন্দোলনের প্রভাব চাষাঢ়া বৃক্ষ মেলায়


সিটি করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ

প্রকাশিত : ০৯:০১ পিএম, ৬ আগস্ট ২০১৮ সোমবার | আপডেট: ০৯:৫৫ পিএম, ৬ আগস্ট ২০১৮ সোমবার


ছাত্র আন্দোলনের প্রভাব চাষাঢ়া বৃক্ষ মেলায়

নারায়ণগঞ্জসহ সারাদেশে চলমান ছাত্র আন্দোলন ও শ্রমিক আন্দোলনের প্রভাব পড়েছে নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসন, বন বিভাগ ও কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর আয়োজিত ফল ও বৃক্ষ মেলায়। ৬ আগষ্ট সোমবার সরেজমিনে শহরের চাষাঢ়া জিয়া হল প্রাঙ্গনে অনুষ্ঠিত বৃক্ষ মেলায় গিয়ে বিক্রেতাদের সাথে কথা বলে এই তথ্য জানা গেছে।

জানা যায়, রাজধানীর বিমানবন্দর সড়কে দুই বাসের রেষারেষিতে শহীদ রমিজ উদ্দিন কলেজের দুই শিক্ষার্থীর মৃত্যুর ঘটনায় ৯ দফা দাবিতে গত ৩১ জুলাই মঙ্গলবার থেকেই আন্দোলন কর্মসূচি পালন করে আসছেন বিভিন্ন শিক্ষা-প্রতিষ্ঠানের কোমলমতি শিক্ষার্থীরা।

অপরদিকে বাস চালক ও শ্রমিকরাও শিক্ষার্থীদের বিপক্ষে বিভিন্ন দাবিতে ধর্মঘট কর্মসূচি পালন করছে। টানা কয়েকদিন এসকল আন্দোলন কর্মসূচি চলে আসার কারণে যার প্রভাব সকল ব্যবসা বাণিজ্যের পাশাপাশি বৃক্ষমেলায়ও ভর করেছে।

মেলায় অংশগ্রহণকারী স্টল মালিকেরা জানান, প্রতি বছরেই একবার চাষাড়া জিয়া হল প্রাঙ্গনে বৃক্ষ মেলার আয়োজন করা হয়। তার ধারাবাহিকতায় এবার গত ২আগষ্ট থেকে মেলা শুরু হয়েছে, চলবে আগামী ১৪ আগষ্ট পর্যন্ত। অন্য বছর লাভজনক ব্যবসা হলেও এবার তা হবে বলে মনে হচ্ছে না। এরই মধ্যে ৪দিন পার হয়ে গেছে। কিন্তু একদিনও স্টলের ভাড়াটা পর্যন্ত উঠেনি।

কম বিক্রির কারণ সম্পর্কে জানতে চাইলে ক্রেতারা বলেন, মেলার শুরুর আগে থেকেই ছাত্র আন্দোলন ও শ্রমিক আন্দোলন শুরু হয়েছে। ফলে লোকজন ঘর থেকে বের হতে পারছেন না। অন্য বছর দর্শনার্থীসহ ক্রেতাদের অনেক ভিড় থাকে। এবার ক্রেতা তো দূরের কথা, কোনো দর্শনার্থীই আসে না। এছাড়া সামনে কোরবানী ঈদ। সেটারও কিছুটা প্রভাব পড়েছে।

বন বিভাগ ও কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তররের কর্মকর্তাদের সাথে কথা বলে জানা যায়, এবারের মেলায় সবমিলিয়ে ৩২টি স্টল রয়েছে। প্রত্যেকটি স্টলের মধ্যে প্রায় দেড় থেকে দুই শতাধিক বিভিন্ন প্রজাতির ফুল ও ফলের গাছ রয়েছে। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো পাহার ক্যাকটাস, রঙ্গন, কামীনি, হাসনাহেনা, মর্নিং গ্লোরি, এরোমেটিক জুই, উলট কম্বল, পদ্ম ফুল, অপরাজিতা, বেলী, টাইম ফুল, লাভলাভ, পিংকেল লেবু, এ্যাডোকেডো, রাম ভুটান, রক্ত চন্দন, কাঠ মালতি, কাঠ গোলাপ, লিপস্টিক, অ্যাপিস্টিক, অ্যানেনাস হৈয়া প্রজাতির ফুল ও ফল গাছগুলোই বেশি বিক্রি হয়।

এসব বিভিন্ন প্রজাতির গাছের মধ্যে সর্বোচ্চ মূল্যের গাছ হলো ৫ হাজার টাকা এবং সর্বনি¤œ মূল্যের গাছ হলো ৪০ টাকা। এছাড়াও এদের মধ্যে বিভিন্ন ঔষধি গাছও রয়েছে।

পপি নার্সারির মালিক মো: সাহাবুদ্দিন বলেন, গাছ আমাদের ও পরিবেশের প্রকৃত বন্ধু। গাছ পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষা করে। গাছ আমাদের বেঁচে থাকার বিশেষ উপকরণ অক্সিজেনের যোগান দেয়। এই যানবাহন আর দালান-কোঠার শহরে বৃক্ষ রোপন করাটা খুবই জরুরি। আমাদের সবাইকে বৃক্ষরোপণে এগিয়ে আসতে হবে।

 

নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
Shirt Piece

ফিচার -এর সর্বশেষ