২৯ কার্তিক ১৪২৫, বুধবার ১৪ নভেম্বর ২০১৮ , ৫:০৭ পূর্বাহ্ণ

UMo

বছর না গড়াতেই চলাচল অনুপযোগী কেওঢালা-আলিপুরা সড়ক


বন্দর করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ

প্রকাশিত : ০৯:৫২ পিএম, ৩০ আগস্ট ২০১৮ বৃহস্পতিবার


বছর না গড়াতেই চলাচল অনুপযোগী কেওঢালা-আলিপুরা সড়ক

বছর না গড়াতেই আবারো চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পরেছে বন্দর উপজেলার কেওঢালা থেকে সোনারগাঁও উপজেলার আলিপুরা পর্যন্ত সড়কটি। এক বছর আগে সড়কটির সংস্কার কাজ করা হলেও এই অল্প সময়ের মধ্যেই রাস্তাটি আবারো বিভিন্ন জায়গায় ভেঙে গেছে। তৈরি হয়েছে ছোট বড় শতাধিক খানাখন্দক। এ অঞ্চলে ১০টির অধিক ইটভাটায় চলাচলকারী ভারী যানবাহনকে এই সড়কটির বেহাল দশার অন্যতম প্রধান কারণ বলে মনে করছেন স্থানীয়রা।

বন্দরের মদনপুর ইউনিয়নস্থ কেওঢালা থেকে সোনারগাঁয়ের সাদিপুর ইউনিয়নস্থ অলিপুরা বাজার পর্যন্ত সড়কটির দৈর্ঘ ৪ কিলোমিটার। রাস্তা দিয়ে নিত্যদিন প্রায় হাজারো শিক্ষার্থী স্কুল ও কলেজে গমন করে এবং প্রায় বিশ হাজার শ্রমিক আদমজী ইপিজেড, ওপেক্স সিনহা গার্মেন্টস, কাঁচপুর বিসিক, রহিম স্টিল, বন্দর স্টিল, পারটেক্সসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে চাকরির সুবাদে যাতায়াত করেন বলে স্থানীয় বাসিন্দাদের সূত্রে জানা যায়।

সোনারগাঁয়ের বারদীতে অবস্থিত লোকনাথ ব্রহ্মচারীর আশ্রমে আগত হাজার হাজার ভক্তকূল আশ্রমে পৌছানোর জন্য অপেক্ষাকৃত সহজ রাস্তা হিসেবে এ পথটিকেই বেছে নেয়। এদিকে শাখা রাস্তা হওয়ায় এ এলাকার যোগাযোগের একমাত্র বাহন হচ্ছে রিক্সা, অটো রিক্সা ও সিএনজি। ফলে এই ভয়াবহ সড়ক সম্পূর্ণরূপেই হয়ে পরেছে জনসাধারণের চলাচল অনুপযোগী।

বৃহস্পতিবার (৩০ আগস্ট) সরেজমিনে রাস্তাটি পরিদর্শন করে দেখা যায়, রাস্তাটির কয়েকটি জনগুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টে ১ ফুটের উপর গর্ত ও খানাখন্দক সৃৃষ্টি হওয়ায় ফলে জনসাধারণের চলাচল ব্যহত হচ্ছে। মাটি ইট ভাটায় পরিবহনে ব্যবহৃত মোটা চাকার ট্রাক্টর, ইট ভাটায় কয়লা আনতে ২০-৩০ টনের ট্রাক ও ইট বিক্রিতে ব্যবহৃত ট্রাকের নিয়মিত যাতায়াত চলছে সড়কটিতে।

স্থানীয়দের সূত্রে জানা যায়, ‘শ্রীরামপুর, কাজীপাড়া ও কাজহরদী এলাকার কিছু অসাধূ জমির মালিক ও কিছু দালাল চক্রের কারণে অঞ্চলের ফসলী জমির মাটি হরহামেশাই ইট ভাটায় বিক্রি হচ্ছে, আর এই মাটি দিয়েই বানানো হচ্ছে ইট। ইট বিক্রিতে ব্যবহৃত ঘাতক ট্রাকের আঘাতে রাস্তা ভেঙ্গে বেহাল দশায় পরিণত হয়েছে। স্থানীয়রা নিয়মিত ক্ষোভ প্রকাশ করলেও এতে কেউ কর্ণপাত করছেনা এবং সমস্যা সমাধানে কোন জনপ্রতিনিধি কোন কার্যকর ভূমিকা নিচ্ছে না।’

অনেক জাতীয় নেতৃবৃন্দের ছোঁয়া থাকা সত্বেও এ রাস্তাটি এভাবে দীর্ঘদিন  প্রশস্ত ও মজবুতভাবে নির্মাণ না হওয়ায় হতবাক সবাই। এই রাস্তাটি নতুন ভাবে নির্মাণ ও প্রশস্ত করা হলে সোনারগাঁয়ের সাদিপুর, সনমান্দি, বারদী ও বন্দরের ধামগড়, মদনপুর ইউনিয়নের মানুষের জন্য যোগাযোগে এক নতুন মাইলফলক সৃষ্টি করবে বলে বিশ্বাস করেন এলাকাবাসী।

rabbhaban

নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
Shirt Piece

ফিচার -এর সর্বশেষ