৮ অগ্রাহায়ণ ১৪২৫, বৃহস্পতিবার ২২ নভেম্বর ২০১৮ , ৫:৩০ অপরাহ্ণ

rabbhaban

মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতি বিজড়িত সেই জাহাজ পরিদর্শনে নৌমন্ত্রী


সিটি করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ

প্রকাশিত : ০৯:২৬ পিএম, ১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮ শুক্রবার


মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতি বিজড়িত সেই জাহাজ পরিদর্শনে নৌমন্ত্রী

নারায়ণগঞ্জের বন্দর উপজেলায় রক্ষিত চাঁদপুরের ডাকাতিয়া নদী থেকে উদ্ধারকৃত মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতি বিজড়িত এমভি একরাম নামের সেই জাহাজটি পরিদর্শন করেছেন নৌ পরিবহন মন্ত্রী শাজাহান খান এমপি।

১৪ সেপ্টেম্বর শুক্রবার সকালে বিআইডব্লিউটিএ’র নারায়ণগঞ্জ ড্রেজার বেইজ নির্মাণের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন অনুষ্ঠান শেষে দুপুরে ওই জাহাজটি পরিদর্শনে যান মন্ত্রী। এসময় তিনি জাহাজটির বর্তমান অবস্থা সম্পর্কে খোঁজখবর নেন।

জানা গেছে, ১৯৭১ সালে পাক হানাদার বাহিনীর গোলাবারুদ বহনকারী এম ভি একরাম কার্গো জাহাজটি বীর মুক্তিযোদ্ধারা চাঁদপুরের ডাকাতিয়া নদীতে ডুবিয়ে দেয়। জাহাজটি ১৯৬৫ সালে নেদারল্যান্ডে (হল্যান্ড) নির্মিত হয়েছিল। ১৯৬৫ সালের ১৯ মার্চ জাহাজটি রেজিষ্ট্রেশন হয় এম ভি একরাম নামে। ইউনাইটেড ট্রেডিং করপোরেশন ও ইন্ডাষ্ট্রিয়াল ব্যাংক অব পাকিস্তান জাহাজটির মালিকানা ছিল। স্বাধীনতার পরে জাহাজটি বাংলাদেশ শিল্প ব্যাংকের অধীনে চলে আসে। ২০০৮ সালের মাঝামাঝিতে বন্দরের সোনাকান্দা এলাকার মোক্তার হোসেন ডুবুরী বাংলাদেশ শিল্প ব্যাংক থেকে নিলামে ক্রয় করে। এরপর ওই বছরের ১৪ অক্টোবর ডাকাতিয়া নদী থেকে জাহাজটি উদ্ধার করে পরদিন নারায়ণগঞ্জের বন্দর উপজেলার সোনাকান্দায় শাহেনশাহ’র মালিকানাধীন ডকইয়ার্ডে এনে রাখে। পরে এ জাহাজটি মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতি হিসেবে সংরক্ষণের জন্য সারা দেশের মুক্তিযোদ্ধাদের পক্ষ থেকে দাবি উঠলে ২০০৯ সালের ১৭ আগষ্ট মুক্তিযোদ্ধা মন্ত্রনালয় থেকে জাহাজটি সংরক্ষণের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। এরপর থেকে জাহাজটি শাহেনশাহ’র ডকেই রক্ষিত থাকে। ২০১৭ সালের ২৯ জুন মুক্তিযোদ্ধা পরিচয়দানকারী নূরে আলম ও জসিম নামে দুই ব্যক্তি মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতি বিজড়িত এম ভি একরাম জাহাজটি কাটা শুরু করে। এ ঘটনায় ডুবুরী মোক্তার থানায় অভিযোগ করলে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে জাহাজ কাটা বন্ধ করে দেয়। গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশের পরে বিষয়টি নৌ পরিবহন মন্ত্রী শাজাহান খান এমপির দৃষ্টিগোচরে আসলে তিনি বিআইডব্লিউটিএ নারায়ণগঞ্জ নদী বন্দর কর্তৃপক্ষকে জাহাজটি সংরক্ষণের নির্দেশ দেন। এছাড়াও জাহাজটি শিল্প মন্ত্রনালয় ও মুক্তিযোদ্ধা মন্ত্রনালয়ের অধীনে থাকায় নৌ পরিবহন মন্ত্রনালয়ের অধীনে দেয়ার জন্য মন্ত্রী ডিও লেটার দিয়েছিলেন। এরপর থেকে ওই জাহাজটি দেখভাল করে আসছে বিআইডব্লিউটিএ নারায়ণগঞ্জ নদী বন্দর কর্তৃপক্ষ।

নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
Shirt Piece

ফিচার -এর সর্বশেষ