ভোটার শূণ্য আড়াইহাজারে পড়েছে ৮৯ শতাংশ ভোট!

স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৮:০৯ পিএম, ৬ জানুয়ারি ২০১৯ রবিবার

ভোটার শূণ্য আড়াইহাজারে পড়েছে ৮৯ শতাংশ ভোট!

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নারায়ণগঞ্জের ৫টি আসনের মধ্যে সবচেয়ে বেশী ভোটার শূণ্য ছিল নারায়ণগঞ্জ-২ (আড়াইহাজার) আসনের কেন্দ্রগুলোতে। ৩০ ডিসেম্বর সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত আড়াইহাজারের একাধিক কেন্দ্র পরিদর্শন করে এমন চিত্রই দেখা গেছে। তবে সেই আড়াইহাজার আসনেই পড়েছে সবচেয়ে বেশী ভোট। বাকী ৪টি আসনে যেখানে প্রায় ৭৭ শতাংশ ভোট পড়েছে সেখানে আড়াইহাজারে ভোটগ্রহণের হার প্রায় ৮৯ শতাংশ।

জানা গেছে, নারায়ণগঞ্জ-২ (আড়াইহাজার) আসনে মোট ভোটার ২ লাখ ৮৩ হাজার ৮শ` ৬৭ জন।  এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ১ লাখ ৪৪ হাজার ১শ` ২২ জন,আর নারী ভোটার ১ লাখ ৩৯ হাজার ৭শ` ৪৫ জন।  মোট ভোট কে›ন্দ্র ১১৩টি।  মোট ভোট কক্ষ ৫৮৭টি।  স্থায়ী ভোট কক্ষ ৫৮১টি ও অস্থায়ী ৬টি।

সরেজমিনে ৩০ ডিসেম্বর একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের দিন আড়াইহাজারের বিভিন্ন ভোটকেন্দ্র ঘুরে দেখা গেছে প্রায় সবকটি ভোটকেন্দ্রই ছিল ফাঁকা। নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে যেমন সবগুলো কেন্দ্রে ভোটারদের লম্বা লাইন ভোটকেন্দ্রের অভ্যন্তরে মাঠে ছাড়াও অনেক সময়ে সড়কেও চলে আসতো তেমনটি ছিলনা। নারায়ণগঞ্জ-২ (আড়াইহাজার) আসনের পাঁচরুখী সাহেব আলী ফকির উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে ও ৩৮নং পাঁচরুখী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে গিয়ে দেখা যায় সকাল ১১টার মধ্যে অর্ধেকের বেশী ব্যালটে ভোট দেয়া হয়ে গেছে। অথচ ভোটকেন্দ্রে ভোটারদের উপস্থিতি ছিল নগন্য। একই অবস্থা দেখা গেছে অন্যান্য কেন্দ্রগুলোতেও।

ধানের শীষের প্রার্থী বিএনপির সহ আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক নজরুল ইসলাম আজাদ অভিযোগ করেছিলেন, বিভিন্ন কেন্দ্রে আগের রাতেই বাক্সে ব্যালট ভরে রাখা হয়েছিল। আড়াইহাজারের প্রত্যেকটি কেন্দ্রে পোলিং এজেন্টকে ঢুকতে দেয়া হয়নি। যেসব কেন্দ্রে এজেন্ট ও পোলিং এজেন্ট ছিল তারা গিয়ে দেখেছে সেখানে আগে থেকেই বাক্সে ব্যালট ভরা। বাধা দেয়ায় সাতগ্রাম সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে উকিল নামের এক পোলিং এজেন্টকে ছুরিকাঘাত করেছে আওয়ামীলীগ দলীয় ক্যাডাররা। আহত উকিলকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। বেশীরভাগ কেন্দ্র থেকেই পোলিং এজেন্ট বের করে দেয়া হয়েছে। তিনি ফলাফল প্রত্যাখ্যান করে পুন:নির্বাচনের দাবি জানান।

নারায়ণগঞ্জ-২ (আড়াইহাজার) আসনে বাতিলসহ প্রদত্ত ভোট ২ লাখ ৫২ হাজার ৬২৪ ভোট। ভোটার উপস্থিতির হার ৮৮ দশমিক ৯৯ ভাগ।

অপরদিকে নারায়ণগঞ্জ-১ (রূপগঞ্জ) আসনে মোট ভোটার ৩ লাখ ৪৯ হাজার ৭শ` ৯১ জন। তার মধ্যে বাতিল ছাড়া সর্বমোট ভোট পড়েছে ২ লাখ ৬৮ হাজার ৭৯৪টি। ভোটার উপস্থিতির হার ছিল প্রায় ৭৭ ভাগ। নারায়ণগঞ্জ-৩ (সোনারগাঁও) আসনে ১১৮টি ভোটকেন্দ্রে মোট ভোটার ৩ লাখ ৩ হাজার ৮শ` ৭২ জন। বাতিল ছাড়া প্রদত্ত ভোট ২ লাখ ৩২ হাজার ৫১৪ ভোট। ভোটার উপস্থিতির হার প্রায় ৭৭ ভাগ। নারায়ণগঞ্জ-৪ (ফতুল্লা ও সিদ্ধিরগঞ্জ) আসনে মোট ভোটার ৬ লাখ ৫১ হাজার ৯৯জন। বাতিল ছাড়া প্রদত্ত ভোট ৪ লাখ ৯২ হাজার ৬৭৬ ভোট। ভোটার উপস্থিতির হার প্রায় ৭৬  ভাগ। নারায়ণগঞ্জ-৫ (সদর ও বন্দর) আসনে ১৭১ ভোটকেন্দ্রে মোট ভোটার ৪ লাখ ৪৫ হাজার ৬শ` ১৬ জন। বাতিল ছাড়া প্রদত্ত মোট ভোট ৩ লাখ ৪৩ হাজার ৫৩৪ ভোট। ভোটার উপস্থিতির হার ৭৭ ভাগ।


বিভাগ : ফিচার


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও