মদনপুরে একমাত্র সড়ক বন্ধ করে দোকান নির্মাণে জনদুর্ভোগ

সিটি করেসপন্ডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ১০:৫৬ পিএম, ১৯ মে ২০১৯ রবিবার

মদনপুরে একমাত্র সড়ক বন্ধ করে দোকান নির্মাণে জনদুর্ভোগ

নারায়ণগঞ্জের বন্দর উপজেলার মদনপুর দেওয়ানবাগ বড় সাহেব বাড়ি এলাকায় যানবাহন ও মানুষ চলাচলের একমাত্র সড়কটি বন্ধ করে প্রতিদিন বাজার বসিয়ে অবৈধভাবে হাতিয়ে নিচ্ছে হাজার হাজার টাকা। এতে ওই এলাকায় প্রতিদিন যানজটের দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে স্কুল কলেজ মাদ্রাসার শিক্ষার্থী সহ আফিসগামী শত শত যাত্রীদের। এ বিষয়ে খুব দ্রুত প্রয়োজনীয় ব্যাবস্থা গ্রহণ করার জন্য জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপার ও স্থানীয় প্রশাসনের জরুরী হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন এলাকাবাসী ও ভুক্তভোগীরা।

১৯ মে রবিবার সরেজমিনে উপজেলার মদনপুর ইউনিয়নের মদনপুর নাজিম উদ্দিন ভূঁইয়া ডিগ্রি কলেজের পশ্চিমপার্শ্বে মানুষ চলাচলের একমাত্র সড়কটি দখল করে সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত কাচা বাজার, মাছ বাজার, ফলের দোকান সহ বিভিন্ন রকমের দোকান বসিয়ে প্রতিদিন হাজার হাজার টাকা চাঁদা উত্তোলন করছে একটি স্থানীয় প্রভাবশালী মহল।

এ সড়ক দিয়ে মদনপুর নাজিমউদ্দিন ডিগ্রি কলেজ, মদনপুর রহমানিয়া উচ্চ বিদ্যালয় ও প্রাথমিক বিদ্যালয় সহ কয়েকটি মাদ্রাসায় প্রায় ১০ গ্রামের হাজার হাজার লোক প্রতিদিন যাতায়াত করে থাকে। সড়কের উপর দখল করে দোকান বসানোর ফলে প্রতিদিন যানজটে পড়ে ঘন্টার পর ঘন্টা বসে থাকতে হয়। কলেজ ও স্কুল পড়–য়া নারী শিক্ষার্থীদের লাঞ্চিত হতে হয় প্রতিনিয়ত।

মদনপুর নাজিমউদ্দিন ভূঁইয়া ডিগ্রি কলেজের শিক্ষার্থী কানিজ ফাতেমা বলেন, রাস্তা দখল করে দোকান বসানোর ফলে কলেজে আসা যাওয়ার পথে প্রতিদিন সমস্যা হয় আমাদের। তাই এই দোকানপাট অনত্র সড়িয়ে নেওয়ার জন্য প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করছি।

রহমানিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের এক শিক্ষক বলেন, প্রতিদিন সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত যেভাবে রাস্তা দখল করে ব্যাবসা পরিচালনা করা হয় এটা কোন ভাবেই মেনে নেওয়া যায় না। বিদ্যালয়ের ছেলে মেয়েদের চলাচলের একমাত্র রাস্তাটি এভাবে দখল হয়ে যাওয়ার বিষয়টি অত্যন্ত দুঃখজনক।

এলাকার যাত্রী বেলায়েত হোসেন ভূঁইয়া বলেন, রাস্তা বন্ধ করে যে ভাবে পেরেছে ইচ্ছেমত দোকান বসিয়েছে। এতে স্থানীয় প্রশাসন কোন ব্যবস্থা গ্রহণ করছে না।

স্থানীয় মদনপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান গাজী আব্দুস সালাম বলেন, জনগণের একমাত্র চলাচলের রাস্তাটি বন্ধ করে দেয়ার বিষয়টি কোন ভাবেই মেনে নেয়া যায় না। এ বিষয়ে বাজারটি অনত্র স্থানান্তরের ব্যবস্থা করা হবে।

বন্দর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রফিকুল ইসলাম বলেন, মানুষ চলাচলে বিঘ্ন করে সড়ক বন্ধ করে দেওয়ার বিষয়টি আমি শুনেছি। খুব শিঘ্রই এ সকল অবৈধ দখলদার ও ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

নারায়ণগঞ্জের সড়ক বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী অলীউর রহমান বলেন, সরকারী জায়গা দখল করে দোকান পাট বসিয়ে যারা চাঁদা আদায় করছে সকল চাঁদাবাজের তালিকা তৈরী করা হচ্ছে। খুব দ্রুত এ বিষয়ে ব্যবস্থা গ্রহণের প্রস্তুতি চলছে।


বিভাগ : ফিচার


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও